Advertisement
১০ ডিসেম্বর ২০২২
Gangrape

চুরি করতে ঢুকে কিছু না পেয়ে গণধর্ষণ! হাসনাবাদে বধূর চিৎকার শুনে দুই যুবককে ধরে ফেলে গণধোলাই

নির্যাতিতার পাড়ারই বাসিন্দা অভিযুক্তরা। পুলিশের অনুমান, নির্যাতিতার পরিবারের পূর্ব পরিচিত দুই যুবকই। নির্যাতিতার গোপন জবানবন্দি রেকর্ডের প্রক্রিয়া চলছে।

প্রতীকী ছবি।

নিজস্ব সংবাদদাতা
হাসনাবাদ শেষ আপডেট: ১৬ সেপ্টেম্বর ২০২২ ১৮:২২
Share: Save:

এক বধূকে গণধর্ষণের অভিযোগ উঠল উত্তর ২৪ পরগনার হাসনাবাদে। ওই বধূর চিৎকারে গ্রামবাসীরা ছুটে আসেন। তাঁরা ধরে ফেলেন দুই দুষ্কৃতীকে। এর পর গণধোলাই দিয়ে তাঁদের দু’জনকে তুলে দেওয়া হয় পুলিশের হাতে। ধৃতেরা নিগৃহীতার গ্রামেরই বাসিন্দা বলে জানা গিয়েছে।

Advertisement

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, হাসনাবাদ থানার খরমপুর খাড়া পাড়ার বাসিন্দা বছর একত্রিশের আমজাদ মোল্লা এবং বছর ছাব্বিশের সাজ্জাক মোল্লা ওই ঘটনায় অভিযুক্ত। স্থানীয়দের অভিযোগ, ওই দুই যুবক পাড়ারই এক বাড়িতে চুরি করতে ঢোকেন। কিন্তু বাড়িতে কিছু না পেয়ে বধূর উপর চড়াও হন। তাঁকে জোর করে ধর্ষণ করা হয় বলে অভিযোগ। বধূর চিৎকারে পড়শিরা এসে দুই যুবককে ধরে ফেলেন। তার পর তাঁদের গণধোলাই দেওয়া হয়। খবর পেয়ে ছুটে আসে হাসনাবাদ থানার পুলিশ। গ্রামবাসীরাই দুই যুবককে পুলিশের হাতে তুলে দেন।

নির্যাতিতার অভিযোগের ভিত্তিতে দু’জনকেই গ্রেফতার করা হয়েছে। পুলিশের প্রাথমিক অনুমান, ধৃত দুই যুবক ওই পরিবারের পূর্ব পরিচিত। ধৃতদের শুক্রবার বসিরহাট মহকুমা আদালতে হাজির করানো হয়। বসিরহাট জেলা হাসপাতালে নির্যাতিতার মেডিক্যাল পরীক্ষা করানো হয়েছে। নির্যাতিতার গোপন জবানবন্দি নেবেন ম্যাজিস্ট্রেট।

এ প্রসঙ্গে বসিরহাট পুলিশ জেলার এসপি জোবি থমাস বলেন, ‘‘কাল রাতে ঘটনাটি ঘটেছে। আমরা অভিযোগ পেয়েছি। দু’জনকেই গ্রেফতার করা হয়েছে। শুক্রবার আদালত দু’জনকেই ৪ দিনের পুলিশ হেফাজতের নির্দেশ দিয়েছে। আমরা জিজ্ঞাসাবাদ চালাচ্ছি।’’

Advertisement
(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.