×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

০৪ মার্চ ২০২১ ই-পেপার

কবাডি খেলোয়াড় ও মায়ের চুল কেটে, পোশাক ছিঁড়ে হেনস্থা-মারধর, অ্যাসিড হামলার হুমকি

নিজস্ব সংবাদদাতা
বনগাঁ ২২ ফেব্রুয়ারি ২০২১ ১৭:৪৯
বাড়িতে চড়াও হয়ে হুমকি, মারধর।

বাড়িতে চড়াও হয়ে হুমকি, মারধর।
—নিজস্ব চিত্র

বিবাহবহির্ভূত সম্পর্কের অভিযোগ তুলে এক কবাডি খেলোয়াড় এবং তাঁর মা-কে বেধড়ক মারধর করা হল। ছিঁড়ে দেওয়া হল পোশাক। কেটে নেওয়া হল চুল। অ্যাসিড মারার হুমকিও দেওয়া হল। এর পর নেটমাধ্যমে সেই সব ভিডিয়ো ছড়িয়ে দেওয়া হল। এমন অভিযোগে তোলপাড় উত্তর ২৪ পরগনার বনগাঁ। স্থানীয় কয়েক জন মহিলার বিরুদ্ধে ওঠা এই অভিযোগের তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ। ঘটনার নিন্দায় সরব এলাকাবাসী।

ঘট়নার সূত্রপাত গত শনিবার দুপুরে। অভিযোগ, গোপালনগর থানা এলাকার কয়েক জন মহিলা আচমকাই কবাডি খেলোয়াড় বার্বি সেনের বাড়িতে ঢুকে তাণ্ডব চালাতে শুরু করেন। তাঁর মা তারা সেনের উপর চড়াও হন হামলাকারীরা। তাঁকে বেধড়ক মারধর করা হয়। বার্বির দাবি, মায়ের চিৎকার শুনে তিনিও বেরিয়ে আসেন। দেখেন, বেশ কয়েক জন মহিলা তাঁর মাকে মারধর করছেন। হামলাকীরাদের হাত থেকে মা-কে বাঁচানোর চেষ্টা করেন বার্বি। অভিযোগ, সেই সময়ে তাঁকেও মারধর করা হয়। এর পর মা-মেয়ের চুলের মুঠি ধরে টানতে টানতে বাড়ির বাইরে বার করার চেষ্টা করেন ওই মহিলারা। নিজেকে এবং মা-কে বাঁচানোর চেষ্টা করতেই বার্বির পোশাক টেনে ছিঁড়ে দেওয়া হয় বলে অভিযোগ। এতেই ক্ষান্ত হননি হামলাকারীরা। অভিযোগ, বার্বি এবং তাঁর মায়ের চুল কেটে নেওয়া হয়। তার পর সেই ঘটনার ভিডিয়ো করে নেটমাধ্যমে ছড়িয়ে দেওয়া হয়। বার্বি এবং তাঁর মা-কে অ্যাসিড মারার হুমকিও দেন হামলাকারীরা।

পুলিশ সূত্রে খবর, গোপালনগরের তাপস মালিকের সঙ্গে বনগাঁর বাবুপাড়ার বাসিনাদা তারা সেনের বিবাহবহির্ভূত সম্পর্কের অভিযোগ নিয়েই ঝামেলার সূত্রপাত। স্থানীয়দের দাবি, দীর্ঘ দিন ধরেই এই অভিযোগে দুই পরিবারের মধ্যে ছোটখাটো ঝামেলা হচ্ছে। শনিবার তা চরমে ওঠে। তাপসের স্ত্রী শ্রাবন্তীর নেতৃত্বে এক দল মহিলা বার্বিদের উপর চড়াও হন। সেই ঘটনার ভিডিয়ো নেটমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়তেই নড়েচড়ে বসে স্থানীয় প্রশাসন। ওই কবাডি খেলোয়াড়ের পরিবারের পাশে দাঁড়ান বনগাঁ পুরসভার প্রতিনিধিরা।

Advertisement

রবিবার গভীর রাতে বনগাঁ থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করে বার্বির পরিবার। ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ। যদিও এই ঘটনায় এখনও পর্যন্ত কাউকে গ্রেফতার করতে পারেনি পুলিশ। বনগাঁ পুলিশ জেলার এসপি তরুণ হালদার বলেন, ‘‘ঘটনার তদন্ত শুরু হয়েছে।’’

ঘটনার নিন্দা করেছেন বনগাঁ পুরসভার প্রাক্তন কাউন্সিলর মৌসুমী চক্রবর্তী। তিনি বলেন, “নেটমাধ্যমে জানতে পারি বাবুপাড়ার ওই কবাডি খেলোয়াড় এবং তাঁর মা-কে মারধর করে চুল কেটে নেওয়া হয়েছে। বার্বিকে আমি চিনি। এটা খুবই লজ্জাজনক ঘটনা। ২০২১-এ দাঁড়িয়ে এ ধরনের ঘটনা ভাবা যায় না। বাড়ির মেয়েদের মাথার চুল কেটে নেওয়া হচ্ছে। এর তীব্র নিন্দা করছি। প্রশাসনকেও বলব এর বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নিতে।”

স্থানীয় বিজেপি নেতা দেবদাস মণ্ডল বলেন, “অ্যাসিড মেরে চেহারা পাল্টে দেবে বলে হুমকি দেওয়া হচ্ছে। এ কোন সমাজে বাস করছি আমরা। বাংলায় নিরাপত্তা বলে কিছু নেই, গণতন্ত্র এবং শাসন বলে কিছু নেই। ধিক্কার জানাচ্ছি।”



Tags:

Advertisement