Advertisement
৩০ মার্চ ২০২৩
Baruipur Police

প্রেমিকের সহবাসের ‘চাপ’ সহ্য করতে না পেরে ‘টোপ’ বধূর, বারুইপুর স্টেশন থেকে গ্রেফতার যুবক

ঝাড়খণ্ডের বাসিন্দা দীনেশ দাস কাজের সূত্রে কলকাতায় আসেন। সেখানেই পরিচয় হয় দক্ষিণ ২৪ পরগনার বারুইপুরের ৩২ বছরের এক বধূর সঙ্গে। অল্প কিছু দিনের মধ্যে দু’জনের ঘনিষ্ঠতা বাড়ে।

Lover arrested for blackmailing and physical assault to a lady in Baruipu

সব কিছু শোনার পর, পুলিশ ওই বধূকে জানান, কোনও একটি অছিলায় দীনেশকে তাঁর কাছে নিয়ে আসতে হবে। —প্রতীকী চিত্র।

নিজস্ব সংবাদদাতা
বারুইপুর শেষ আপডেট: ০৭ ফেব্রুয়ারি ২০২৩ ২১:৪৭
Share: Save:

যখন তখন সহবাসের জন্য জোর খাটাতেন প্রেমিক। সম্পর্ক রাখতে না চাইলে শুরু হত হুমকি। দিনের পর দিন এই ঘটনা ঘটতে থাকায় শেষে পুলিশের হাতে প্রেমিককে ধরিয়ে দিলেন যুবতী। ধর্ষণ-সহ একাধিক অভিযোগে গ্রেফতার হলেন এক ভিন্ রাজ্যের যুবক। দক্ষিণ ২৪ পরগনার বারুইপুরের ঘটনা।

Advertisement

পুলিশ সূত্রে খবর, ঝাড়খণ্ডের বাসিন্দা দীনেশ দাস কাজের সূত্রে প্রায়ই কলকাতায় আসেন। পরিচয় হয় দক্ষিণ ২৪ পরগনার বারুইপুরের ৩২ বছরের এক বধূর সঙ্গে। অল্প কিছু দিনের মধ্যে দু’জনের ঘনিষ্ঠতা বাড়ে। বধূর দাবি, পরে কাজের ফাঁকে ইতিউতি সময় কাটানো, বাড়ি ফিরে ফোনে নিয়মিত কথোপকথন হত তাঁদের। কিন্তু কয়েক মাস পরেই প্রেমিকের ‘আসল চেহারা’ দেখতে পান তিনি। বধূর অভিযোগ, দীনেশ তাঁর অজান্তে ব্যাগ থেকে মোবাইল নিয়ে তাঁরই কিছু গোপন ছবি এবং ভিডিয়ো রেকর্ড করেন। তার পর সেগুলো নিজের ফোনে ফরওয়ার্ড করে তাঁকে ব্ল্যাকমেল শুরু করেন।

নির্যাতিতা বলেন, ‘‘প্রথমে ওই সব ছবি ‘ডিলিট’ করার নাম করে আমার সঙ্গে শারীরিক সম্পর্ক করেন দীনেশ। একাধিক বার কলকাতার বিভিন্ন হোটেলে নিয়ে গিয়ে শারীরিক সম্পর্ক করেন। প্রথমে ভয়ে ভয়ে মেনে নিয়েছিলাম। কিন্তু দিনের পর দিন এই ঘটনা চলতে থাকে।’’ অন্য দিকে যুবতীর স্বামীও তাঁকে সন্দেহ করতে শুরু করেন। শেষমেশ পরকীয়ার সম্পর্ক থেকে বেরিয়ে আসতে চান ওই বধূ। তার পরেই শুরু হয় ঝামেলা। অভিযোগ, তাঁদের একান্ত মুহূর্তের ভিডিয়ো সমাজমাধ্যমে ছড়িয়ে দেওয়ার ভয় দেখান দীনেশ। ওই ভয় দেখিয়ে আবারও হোটেলে নিয়ে গিয়ে শারীরিক ভাবে ঘনিষ্ঠ হন। শেষমেশ পুলিশের দ্বারস্থ হন বধূ। বারুইপুর থানার পুলিশের কাছে পুরো বিষয়টি জানান।

সব কিছু শোনার পর, পুলিশ ওই বধূকে জানান, কোনও একটি অছিলায় দীনেশকে তাঁর কাছে নিয়ে আসতে হবে। সেই অনুযায়ী দীনেশকে শিয়ালদহ দক্ষিণ শাখার বারুইপুর স্টেশনে ডাকেন অভিযোগকারিণী। দীনেশ স্টেশনে আসতেই তাঁকে সাদা পোশাকে থাকা পুলিশ গ্রেফতার করে। মঙ্গলবার ধৃতকে বারুইপুর মহকুমা আদালতে পেশ করা হয়। দীনেশের বিরুদ্ধে ধর্ষণ-সহ একাধিক অভিযোগে বিভিন্ন ধারায় মামলা রুজু করেছে পুলিশ। বারুইপুরের এসডিপিও অতীশ বিশ্বাস বলেন, ‘‘অভিযুক্তকে আজ (মঙ্গলবার) বারুইপুর আদালতে পেশ করা হয়। তাঁর মোবাইল ফোনটি বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে। ঘটনার তদন্ত চলছে।’’

Advertisement
(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.