Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

১৯ মে ২০২২ ই-পেপার

URL Copied
Something isn't right! Please refresh.

পথে বেরোলেই উড়ে আসছে কটূক্তি

ছাত্রীদের অভিযোগ, কিছু যুবক প্রায়ই পথেঘাটে তাঁদের হেনস্থা করছে। দেশের নানা প্রান্তে যে ভাবে মেয়েদের উপরে অত্যাচারের ঘটনা ঘটছে, তাতে এই পরিস্

নিজস্ব সংবাদদাতা 
বসিরহাট ০৭ ডিসেম্বর ২০১৯ ০৭:৪০
Save
Something isn't right! Please refresh.
দাবি: নিরাপত্তা চান ওঁরা। ছবিটি তুলেছেন নির্মল বসু

দাবি: নিরাপত্তা চান ওঁরা। ছবিটি তুলেছেন নির্মল বসু

Popup Close

রাতে রাস্তায় বেরোলে বিরক্ত করছে বাইক আরোহী যুবকের দল। কখনও হাত, কখনও ওড়না ধরে টানাটানি করছে। খারাপ প্রস্তাব দিচ্ছে ফোনে। নিরাপত্তার দাবিতে তাই পুলিশের দ্বারস্থ হলেন বসিরহাটের কিছু স্কুল-কলেজের ছাত্রী। শুক্রবার থানায় গিয়ে পুলিশ আধিকারিকের সঙ্গে কথা বলেন তাঁরা। পাশাপাশি, মেয়েদের মধ্যে সচেতনতা বাড়াতে একটি মিছিল করার অনুমতিও চাওয়া হয়েছে।

ছাত্রীদের অভিযোগ, কিছু যুবক প্রায়ই পথেঘাটে তাঁদের হেনস্থা করছে। দেশের নানা প্রান্তে যে ভাবে মেয়েদের উপরে অত্যাচারের ঘটনা ঘটছে, তাতে এই পরিস্থিতিতে নিরাপত্তার অভাব বোধ করছেন বলে জানান ছাত্রীরা।

কয়েক জন কলেজ ছাত্রী জানান, দিন কয়েক আগে বসিরহাটের ইছামতী সেতুর উপরে দুই বাইক আরোহী তাঁদের সঙ্গে খারাপ আচরণ করে। হাত ধরে টানে। ওড়না কেড়ে নেয়। প্রতিবাদ করলে ধাক্কা মেরে ফেলে দেয়। এক সিভিক ভলান্টিয়ারকে বিষয়টি জানালে ওই যুবকেরা তাঁদের হুমকিও দেয়।

Advertisement

দ্বাদশ শ্রেণির এক ছাত্রী বলে, ‘‘গৃহশিক্ষকের কাছে পড়ে বাড়ি ফিরতে ফিরতে প্রায়ই রাত হয়ে যায়। রাস্তায় বাইক আরোহী কয়েক জন যুবক আমাদের নানা ভাবে হেনস্থা করে। আপত্তিকর মন্তব্য শুনতে হয়। বিশেষ করে ইছামতী সেতুর উপরে এই ঘটনা বেশি হচ্ছে। আমরা চাই এদের ধরে শাস্তি দেওয়া হোক।’’

নিরাপত্তার অভাব নিয়ে ছাত্রীরা একত্রিত হয়ে সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে প্রতিবাদে সরব হয়েছেন। তবে তাতেও ভয় কাটেনি। ছাত্রীরা চাইছেন, সকলকে সচেতন করতে একটি মিছিল করবেন। পুলিশ জানিয়েছে, রাতে এলাকায় নিয়মিত নজরদারি চলছে। রাতে শহরে ৬টি মোটর বাইক এবং ৪টি গাড়িতে টহলদারি চলে। ইছামতী সেতু, পার্ক, বিভিন্ন দফতর, স্কুল ও কলেজের সামনে, বিভিন্ন নির্জন এলাকায় নজরদারি থাকে। তবে ছাত্রীদের অভিযোগের পরে বিষয়টি আরও গুরুত্ব দিয়ে দেখার আশ্বাস দিয়েছে পুলিশ।



Something isn't right! Please refresh.

আরও পড়ুন

Advertisement