×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

১৬ মে ২০২১ ই-পেপার

আমপানের ক্ষতিপূরণ নিয়ে ক্ষোভ বাড়ছে

নিজস্ব প্রতিবেদন
কলকাতা ২৩ জুন ২০২০ ০৪:৪৬
ফাইল চিত্র।

ফাইল চিত্র।

আমপানের ক্ষতিপূরণে দুর্নীতির অভিযোগ ঘিরে শোরগোল চলছেই।

ক্ষতিপূরণের টাকা নিয়ে দুর্নীতি এবং স্বজনপোষণের অভিযোগে এ দিন দুপুরে তৃণমূল কার্যালয়ে ভাঙচুর চলে উত্তর ২৪ পরগনার মিনাখাঁয়। ‘তৃণমূলের আশ্রিতরা’ পাল্টা মারধর এবং ঘর ভাঙচুর করে বলে বিজেপির অভিযোগ। দু’পক্ষের ৮-১০ জন আহত হন। পরে পুলিশ অবস্থা সামলায়। দুর্নীতির অভিযোগ উড়িয়ে তৃণমূলের ব্লক নেতা আবুল কালাম মল্লিক বলেন, ‘‘ক্ষতিগ্রস্ত অনেকের নাম তালিকায় আছে। অনেকের টাকা ব্যাঙ্কে এসেছে। নথির সমস্যায় কারও কারও টাকা আসতে দেরি হচ্ছে।’’ হামলার অভিযোগ উড়িয়েছেন তিনি।

একই কারণে বিক্ষোভ হয়েছে সাগর ব্লকের ধসপাড়া সুমতিনগর ১ পঞ্চায়েতেও। মহিলা প্রধান ও উপপ্রধানকে মারধরের অভিযোগ ওঠে। পঞ্চায়েতে ভাঙচুর চলে। পঞ্চায়েতের প্রধান শোভা মাইতির অভিযোগ, বিজেপি মিথ্যা অভিযোগে হামলা চালিয়েছে। বিজেপি নেতা সঞ্জয় পাত্রের দাবি, বিক্ষোভে দলীয় পতাকা নিয়ে তৃণমূলের লোকজনও ছিলেন।

Advertisement

এই আবহে পূর্ব মেদিনীপুরে তৃণমূলের এক নেতা ইস্তফা দিয়েছেন। আমপানে ক্ষতিগ্রস্তদের তালিকায় স্বজনপোষণের অভিযোগে পোস্টার পড়েছিল জেলা পরিষদের পূর্ত কর্মাধ্যক্ষ সোমনাথ বেরার বিরুদ্ধে। তিনি এ দিন জেলা সভাধিপতির কাছে পদত্যাগপত্র জমা দেন। যদিও সোমনাথের দাবি, ব্যক্তিগত কারণেই তিনি পদ থেকে সরে যেতে চেয়েছেন।

Advertisement