Advertisement
২৮ মার্চ ২০২৩
Teacher Recruitment Scam Case

গোপাল পূর্ব মেদিনীপুরে, আজ যাবেন ইডির কাছে

ইডি সূত্রে আরও দাবি করা হয়েছে যে, নিয়োগ দুর্নীতিতে প্রাক্তন শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় এবং তাঁর ঘনিষ্ঠ অফিসারদের কয়েক দফায় প্রায় সাড়ে ১৫ কোটি টাকা দিয়েছিলেন কুন্তল।

A Representative Picture of giving bribe

নিয়োগ দুর্নীতিতে প্রাক্তন শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় এবং তাঁর ঘনিষ্ঠ অফিসারদের প্রায় সাড়ে ১৫ কোটি টাকা দিয়েছিলেন কুন্তল। ফাইল ছবি।

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা শেষ আপডেট: ৩১ জানুয়ারি ২০২৩ ০৬:৪১
Share: Save:

শিক্ষায় নিয়োগ দুর্নীতির টাকা পূর্বতন শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের মতো উঁচু তলার লোকজন-সহ বিভিন্ন ব্যক্তির কাছে পৌঁছে দেওয়ার সময় তিনি এই মামলায় অভিযুক্ত ও ধৃত কুন্তল ঘোষকে ‘সঙ্গ’ দিতেন বলে অভিযোগ কেন্দ্রীয় তদন্ত সংস্থার। ইডি বা এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট সূত্রের দাবি, সেই গোপাল দলপতির হদিস মিলেছে। পূর্ব মেদিনীপুরে আছেন তিনি। শুধু তা-ই নয়, আজ, মঙ্গলবার গোপাল তদন্তকারীদের মুখোমুখি হবেন বলেও জানিয়েছেন।

Advertisement

ইডি সূত্রে আরও দাবি করা হয়েছে যে, নিয়োগ দুর্নীতিতে প্রাক্তন শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় এবং তাঁর ঘনিষ্ঠ অফিসারদের কয়েক দফায় প্রায় সাড়ে ১৫ কোটি টাকা দিয়েছিলেন কুন্তল। প্রাথমিক জেরাতেই কুন্তল তাদের জানান, প্রতি বারেই সেই টাকা লেনদেনের সময় তাঁর সঙ্গে ছিলেন বেসরকারি কলেজ সংগঠনের নেতা তাপস মণ্ডলের ঘনিষ্ঠ গোপাল। তদন্তকারীদের কথায়, ২০২১ সালে একটি অর্থ লগ্নি সংস্থার মামলায় দিল্লি পুলিশের আর্থিক অপরাধ দমন শাখা গ্রেফতার করেছিল গোপালকে। তিনি ছিলেন তিহাড় জেলে। কুন্তলের যোগসূত্রে গোপালকে খুঁজতে গিয়ে ইডি জানতে পারে, বছরখানেক আগে গোপাল জামিনে ছাড়া পেয়েছেন। তার পরে তাঁর খোঁজ মিলছিল না।

সোমবার তাপস বলেন, ‘‘শনিবার কয়েকটি বেসরকারি কলেজের অনুষ্ঠানে যোগ দিতে পূর্ব মেদিনীপুরে গিয়েছিলাম। সেখানেই গোপালের খোঁজ পেয়েছি। তাঁর সঙ্গে আমার যোগাযোগও হয়েছে। তদন্তকারী সংস্থাকেও তা জানিয়েছি। মঙ্গলবার গোপালকে সঙ্গে নিয়েই আমি তদন্তকারীদের মুখোমুখি হব।’’

Advertisement
(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.