Advertisement
৩১ জানুয়ারি ২০২৩
West Bengal SSC Scam

‘আকাশের মতো ষড়যন্ত্র’, হাসপাতালে কেন এ কথা বললেন নিয়োগ দুর্নীতিতে ধৃত কুন্তল ঘোষ

বুধবার স্বাস্থ্যপরীক্ষার জন্য কুন্তলকে হাসপাতালে আনা হয়। সেখানে তিনি বলেন, ‘‘আকাশের মতো ষড়যন্ত্র।’’ কেন তিনি ষড়যন্ত্রের কথা বলছেন? কে করছে ষড়যন্ত্র? তা খোলসা করেননি।

হাসপাতালে ঢোকা ও বেরনোর মুখে ইঙ্গিতপূর্ণ মন্তব্য ধৃত যুবনেতা কুন্তলের।

হাসপাতালে ঢোকা ও বেরনোর মুখে ইঙ্গিতপূর্ণ মন্তব্য ধৃত যুবনেতা কুন্তলের। — ফাইল ছবি।

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা শেষ আপডেট: ২৫ জানুয়ারি ২০২৩ ১২:৪২
Share: Save:

আকাশের মতো ষড়ষন্ত্র! নিয়োগ দুর্নীতিতে অভিযুক্ত তৃণমূলের যুবনেতা কুন্তল ঘোষকে হাসপাতালে স্বাস্থ্যপরীক্ষার জন্য আনা হলে, এমনই বলেন তিনি। পাশাপাশি দাবি, তিনি শান্তনু বন্দ্যোপাধ্যায় নামে কাউকে চেনেন না। নিউ টাউনের ফ্ল্যাটে টাকার লেনদেন হয়নি বলেও দাবি ধৃত যুবনেতার।

Advertisement

নিয়োগ মামলায় ইডি তাঁকে গ্রেফতার করেছে। সেই গ্রেফতারি নিয়ে চাপান-উতোরের মধ্যেই এ বার ইঙ্গিতপূর্ণ মন্তব্য করলেন ধৃত যুবনেতা কুন্তল। বুধবার তাঁকে হাসপাতালে আনা হয় স্বাস্থ্যপরীক্ষার জন্য। সেখানে ঢোকা এবং বেরনো, দু’বারই তিনি বলেন, ‘‘আকাশের মতো ষড়যন্ত্র’’ (কুন্তল বলেন, ‘কন্সপিরেসি লাইক স্কাই’)। কিন্তু কেন তিনি ষড়যন্ত্রের পাল্লা বোঝাতে আকাশের ব্যাপ্তির কথা বলছেন তা খোলসা করেননি। জানা যায়নি কে করছে ষড়যন্ত্র, তা-ও। বুধবার কুন্তলের আরও দাবি, তিনি শান্তনু বন্দ্যোপাধ্যায়কে চেনেন না। যদিও ইডি সূত্রে খবর, শান্তনুকে চিনতেন কুন্তুল। নিউ টাউনের ফ্ল্যাটে টাকার লেনদেন হয়নি বলেও দাবি করেছেন ধৃত তৃণমূলের যুবনেতা। স্বাস্থ্যপরীক্ষা করাতে এসে আরও কয়েক জনের নাম নেন কুন্তল। তাঁর দাবি, গোপাল দলপতি, নীলাদ্রি ঘোষেরা এই চক্রে জড়িত। তাঁরা সবাই তাপস মণ্ডলের লোক বলেও দাবি কুন্তলের।

বুধবারই ইডির কার্যালয়ে হাজির হয়েছেন শান্তনু। তবে তিনি সাংবাদিকদের সামনে একটি কথাও বলেননি। কুন্তলকে তিনি চিনতেন কি না, তা নিয়েও সংবাদমাধ্যমের কোনও প্রশ্নের জবাব দেননি তিনি। মঙ্গলবার প্রায় ১২ ঘণ্টা ধরে জেরার পর বুধবারও ডেকে পাঠানো হয়েছে নিয়োগ দুর্নীতি মামলায় অভিযুক্ত প্রাথমিক শিক্ষা পর্ষদের অপসারিত সভাপতি মানিক ভট্টাচার্যের ঘনিষ্ঠ তাপস মণ্ডলকে।

নিয়োগ দুর্নীতি মামলার চার্জশিটে নাম রয়েছে তাপসের। নিয়োগ দুর্নীতিতে কুন্তলের বিরুদ্ধে টাকা নেওয়ার অভিযোগ করেছিলেন তিনি। তাপসের দাবি ছিল, ৩২৫ জন শিক্ষক পদপ্রার্থীর কাছ থেকে ৩ কোটি ২৫ লক্ষ টাকা নিয়েছিলেন কুন্তল। পাশাপাশি তাপসের আরও দাবি ছিল, পরিচিতেরা তাঁকে জানিয়েছেন, তাঁদের কাছ থেকেও প্রায় সাড়ে ১৯ কোটি টাকা তুলেছেন কুন্তল। সেই সংক্রান্ত নথিও তাঁর কাছে রয়েছে বলে দাবি করেছিলেন তাপস। কুন্তলকে দু’দফায় জিজ্ঞাসাবাদ করে সিবিআই। গত শুক্রবার সকালে নিউ টাউনের এক আবাসনের দু’টি ফ্ল্যাটে হানা দেয় ইডি। উদ্ধার করা হয় একাধিক গুরুত্বপূর্ণ নথি। শনিবার সকালে গ্রেফতার করা হয় কুন্তলকে। তাঁর গ্রেফতারির দু’দিন পর কুন্তলের স্ত্রী সংবাদমাধ্যমে দাবি করেছিলেন, নিউটাউনের যে দু’টি ফ্ল্যাটে তল্লাশি চালিয়েছিল ইডি, তার একটিতে দীর্ঘ দিন থাকতেন তাপস। ফ্ল্যাটে তার প্রমাণও আছে বলেও দাবি করেছিলেন কুন্তলের স্ত্রী জয়শ্রী। যদিও জয়শ্রীর দাবি উড়িয়ে তাপসের দাবি ছিল, ওই ফ্ল্যাটে তাঁর আনাগোনা ছিল ঠিকই কিন্তু কোনও দিন থাকেননি। চ্যালেঞ্জের সুরে বলেছিলেন, ‘‘আমি ফ্ল্যাটে থাকতাম, তার প্রমাণ দিন জয়শ্রী।’’

Advertisement
(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.