×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

২৪ জানুয়ারি ২০২১ ই-পেপার

বুথের কর্মীদের নম্বর ‘ভুয়ো’, ক্ষুব্ধ অনুব্রত

নিজস্ব সংবাদদাতা
মঙ্গলকোট০১ ডিসেম্বর ২০২০ ০২:০০
ফাইল চিত্র।

ফাইল চিত্র।

সংগঠন শক্তিশালী করতে বুথ পিছু ষাট জনের কমিটি গড়ার নির্দেশ দিয়েছিলেন দলীয় নেতৃত্ব। ২০ জন মহিলা ও ৪০ জন পুরুষ সদস্যকে নিয়ে গঠিত কমিটির প্রত্যেককে যোগাযোগের জন্য ফোন নম্বর দিতে বলা হয়েছিল। সে রকম অনেক নম্বরই ভু্য়ো মিলছে, সোমবার মঙ্গলকোটের মাজিগ্রামে বুথভিত্তিক প্রতিনিধি সম্মেলনে এসে দাবি করলেন বীরভূম জেলা তৃণমূল সভাপতি তথা দলের তরফে মঙ্গলকোটের দায়িত্বপ্রাপ্ত নেতা অনুব্রত মণ্ডল। তাঁর দাবি, মনগড়া নম্বর বসিয়ে দেওয়া হয়েছে। কেন এমন ঘটল, দলের কর্মীদের কাছে জানতে চান তিনি।

সোমবার দুপুরে মাজিগ্রাম বিশ্বেশ্বরী উচ্চ বিদ্যালয়ের মাঠে অপূর্ব চৌধুরী এই সম্মেলনের আয়োজন করেন ব্লক তৃণমূল নেতৃত্ব। সেখানে অনুব্রত ছাড়া, যোগ দেন বোলপুরের সাংসদ অসিত মাল। দলের কাটোয়া ১ ব্লকের ১৮টি, ভাল্যগ্রামের ২৩টি ও মাজিগ্রামের ১৮টি বুথ কমিটিকে ডাকা হয়। সম্মেলনের শুরুতেই বুথ কমিটির পদাধিকারীদের ভুল মোবাইল নম্বর দেওয়া নিয়ে কর্মীদের তিরস্কার করেন অনুব্রত। তাঁর ক্ষোভ, ‘‘ফোন করলে কেউ বলছে, চেন্নাইয়ে কাজ করছি। আবার কেউ বলছে, অনেক পুরনো ফোন নম্বর। মেয়েদেরও ফোন নম্বর ঠিক নেই। এমনটা কেন হবে?’’ বুথের পদাধিকারীদের কাছে সংগঠনের হাল জানতে চান তিনি। 

পরে মঙ্গলকোট ব্লক তৃণমূল সভাপতি অপূর্ব চৌধুরী বলেন, ‘‘কোনও কর্মী হয়তো ভুল নম্বর দিয়ে ফেলেছেন। দাদার মুখ থেকে শোনার পরে সঙ্গে সঙ্গে তা সংশোধন করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। এ নিয়ে কোনও সমস্যা হবে না।’’ এ দিন সম্মেলনে কলশা ও ভালশুনি গ্রামে শতাধিক কর্মী অন্য দল থেকে তৃণমূলে যোগ দিয়েছেন বলে দাবি দলীয় নেতৃত্বের। সম্প্রতি রাজ্যের মন্ত্রী তথা মঙ্গলকোটের বিধায়ক সিদ্দিকুল্লা চৌধুরী অভিযোগ করেছেন, দলের মঙ্গলকোটের নেতা বিকাশ চৌধুরী-সহ অনেক কর্মীকে মিথ্যা মামলায় ফাঁসিয়ে জেল খাটানো হচ্ছে। এ দিন সে প্রসঙ্গে অনুব্রতের প্রতিক্রিয়া, ‘‘কেউ অন্যায় করলে জেল খাটবে, নির্দোষ হলে জেল থেকে বেরিয়ে আসবে। মন্ত্রীর কথায় গুরুত্ব দিই না।’’

Advertisement

বিজেপির পূর্ব বর্ধমান জেলা (কাটোয়া) সভাপতি কৃষ্ণ ঘোষের অবশ্য দাবি, ‘‘জোর করে, ভয় দেখিয়ে কর্মীদের ধরে রাখা যায় না। সৎ তৃণমূল কর্মীদের একটা বড় অংশই মনেপ্রাণে আমাদের সঙ্গে রয়েছেন। তৃণমূল নেতাদের হাত থেকে বাঁচতেই ভুল মোবাইল নম্বর দিয়েছেন।’’

Advertisement