Advertisement
০৫ ডিসেম্বর ২০২২
Shatarup Ghosh

বাম-বিজেপি ‘আঁতাঁত’, দাবি শতরূপের কথায়

বুধবার আসানসোলে এসে আসন্ন পঞ্চায়েত ভোটে বিজেপির নিচুতলার কর্মীদের সিপিএমের পাশে থাকার বার্তা দেন সিপিএমের রাজ্য কমিটির সদস্য শতরূপ।

বারাবনিতে সিপিএম নেতা শতরূপ ঘোষ। নিজস্ব চিত্র

বারাবনিতে সিপিএম নেতা শতরূপ ঘোষ। নিজস্ব চিত্র

নিজস্ব সংবাদদাতা
আসানসোল শেষ আপডেট: ২৪ নভেম্বর ২০২২ ০৯:৩৮
Share: Save:

সিপিএম নেতা শতরূপ ঘোষের মন্তব্য ঘিরে ফের বাম-বিজেপি আঁতাঁতের অভিযোগ তুলল তৃণমূল। বুধবার আসানসোলে এসে আসন্ন পঞ্চায়েত ভোটে বিজেপির নিচুতলার কর্মীদের সিপিএমের পাশে থাকার বার্তা দেন সিপিএমের রাজ্য কমিটির সদস্য শতরূপ। তার পরেই তৃণমূলের দাবি, বাম যে রামেরই উল্টো পিঠ, তা আবার প্রকাশ হল। বিজেপি নেতৃত্বের যদিও দাবি, তাঁদের কর্মীরা দলের সঙ্গেই থাকবেন। যে দলের অস্তিত্ব নিয়েই সঙ্কট রয়েছে, তাদের পাশে থাকার প্রশ্ন নেই।

Advertisement

বুধবার বারাবনিতে দলের ‘গ্রাম জাগাও’ কর্মসূচিতে যোগ দিতে আসেন শতরূপ। বারাবনির দোমোহানি অঞ্চলে বাম ও গণতান্ত্রিক সংগঠনগুলি একটি সভার আয়োজন করে এ দিন। সেখানে যোগ দিতে যাওয়ার আগে আসানসোলে দলের কার্যালয়ে পৌঁছন তিনি। সেখানেই সাংবাদিকদের একাংশের কাছে রাজ্যে সন্ত্রাসের অভিযোগ তোলেন তিনি। তাঁর অভিযোগ, ‘‘গত পঞ্চায়েত থেকে প্রতিটি ভোটে সন্ত্রাস করেছে তৃণমূল। গ্রামগঞ্জে আমাদের কর্মীদের মতো বিজেপি কর্মীরাও খুন হয়েছেন, ঘড়ছাড়া হয়েছেন। সিপিএম নেতৃত্ব কর্মীদের পাশে থেকেছেন। কিন্তু বিজেপি নেতৃত্ব কর্মীদের ছেড়ে পালিয়ে গিয়েছেন। তাই বিজেপির নিচুতলার কর্মীদের আহ্বান জানাচ্ছি, সন্ত্রাস রুখতে আমাদের পাশে ও সঙ্গে থাকুন।’’ নাম না করে জেলার তৃণমূল নেতৃত্বের বিরুদ্ধে তোপও দাগেন তিনি। তাঁর বক্তব্য, ‘‘গত পঞ্চায়েত ভোট থেকে লোকসভা ভোট পর্যন্ত এই জেলায় সিপিএম কর্মীদের উপরে অত্যাচারের পাণ্ডা যে তৃণমূল নেতা, তাঁকে সিবিআই যদি ছেড়েও দেয়, সিপিএম ছাড়বে না।’’

এ দিন বিকেল সাড়ে ৩টে নাগাদ বারাবনির দোমোহানিতে সভা শুরু হয়। মূল বক্তা ছিলেন শতরূপ। পঞ্চায়েত ভোটে লড়াইয়ের বার্তা দেওয়া হয় কর্মীদের। শতরূপ দাবি করেন, এ বারও গ্রামে-গ্রামে সন্ত্রাস করবে তৃণমূল। তাই আঘাত এলে পাল্টা আঘাতের জন্য দলের কর্মীদের প্রস্তুত থাকার ডাক দেন তিনি।

গত বিধানসভা ভোটের পরে বারাবনির পানুড়িয়া পঞ্চায়েত এলাকায় বিজেপি সমর্থক প্রায় সাতটি পরিবার ঘড়ছাড়া হয় বলে অভিযোগ। বিজেপি নেতৃত্বের অভিযোগ, তাঁদের একাধিক সমর্থকের বাড়িতে ভাঙচুর-লুটপাটও করা হয়।সে সব ঘটনার প্রসঙ্গ তুলে বিজেপির পশ্চিম বর্ধমান জেলা মুখপাত্র বাপ্পা চট্টোপাধ্যায়ের পাল্টা দাবি, ‘‘আমাদের নেতারা কেউ কর্মীদের পাশ থেকে সরে যাননি। নেতৃত্বের উদ্যোগেই ওই কর্মী-সমর্থকেরা আবার বাড়ি ফিরতে পেরেছেন।আসলে বিধানসভায় শূন্য হয়ে যাওয়া সিপিএমের এখন কোনও অস্তিত্ব নেই। তাই আমাদের কাঁধে ভর দিয়ে চলতে চাইছে।’’

Advertisement

শতরূপের মন্তব্যকে কটাক্ষ করেছে তৃণমূলও। দলের জেলা কমিটির অন্যতম সম্পাদক অভিজিৎ ঘটকের পাল্টা দাবি, ‘‘সিপিএম এখন অত্যন্ত অপ্রাসঙ্গিক দল। সাধারণ মানুষের মন থেকে মুছে গিয়েছে। তাই ক্ষমতা ফিরে পাওয়ার বাসনায় বিজেপিকে পাশে চাইছে। রাম ও বাম যে মুদ্রার দু’টি পিঠ, তা আবার এক বার প্রকাশ্যে এল।’’ সন্ত্রাসের অভিযোগ ও শাসক দলের নেতৃত্বকে শতরূপের তোপ প্রসঙ্গে জেলার তৃণমূল নেতা ভি শিবদাসনের প্রতিক্রিয়া, ‘‘কোথাও কোনও সন্ত্রাস নেই। সিপিএম নেতারা এ সব বলে প্রচারে আসার চেষ্টা করছেন।’’

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.