Advertisement
০৫ ডিসেম্বর ২০২২
Jamai Sasthi

Jamai Sasthi 2022: জামাইয়ের পাতে ‘চকলেট বোম’

আজ, রবিবার জামাইষষ্ঠী। অন্য পদের পাশাপাশি জামাইদের পাতে থাকবে হরেক রকম মিষ্টি।

রকমারি মিষ্টির পসরা জেলার দোকানে।

রকমারি মিষ্টির পসরা জেলার দোকানে। নিজস্ব চিত্র।

নিজস্ব সংবাদদাতা
বর্ধমান ও গুসকরা শেষ আপডেট: ০৫ জুন ২০২২ ০৭:৩৩
Share: Save:

জামাইষষ্ঠীতে জামাইয়ের পাতে পড়বে ‘চকলেট বোম’! অবাক হওয়ার কিছু নেই। বর্ধমানে জামাইষষ্ঠীর বাজারে এসেছে এই নামের মিষ্টি।

Advertisement

আজ, রবিবার জামাইষষ্ঠী। অন্য পদের পাশাপাশি জামাইদের পাতে থাকবে হরেক রকম মিষ্টি। সেই তালিকায় রসগোল্লা, জামাইষষ্ঠী ছাপ দেওয়া সন্দেশ, দই, সীতাভোগ- মিহিদানার সঙ্গে এ বার জায়গা করে নিয়েছে ‘চকলেট বোম’। একটি দাম ১৫ টাকা। এই মিষ্টির প্রস্তুতকারক বর্ধমানের মিষ্টি ব্যবসায়ী দেবাদিত্য চক্রবর্তী।

চকলেট, দুধ, কোকো পাউডার, ছানা, খোয়া, চকলেট ‘সস’ দিয়ে তৈরি এই মিষ্টির চাহিদাও বেশ ভাল, দাবি দেবাদিত্যর। আর এক ব্যবসায়ী প্রমোদ সিংহ তৈরি করেছেন ‘মিষ্টি বিরিয়ানি’। তবে তাতে ভাত আর মাংসের পরিবর্তে রয়েছে সীতাভোগ, ছানার মিষ্টি এবং কারিপাতা। একশো গ্রাম মিষ্টি বিরিয়ানির দাম ৩০ টাকা, জানাচ্ছেন প্রমোদ। এ বার মিষ্টিতে টক-ঝাল স্বাদ এনেছেন ব্যবসায়ী সৌমেন দাস। জামাইষষ্ঠী উপলক্ষে তাঁর তৈরি ‘মালাই চাট’ বিকোচ্ছে দেদার। মিষ্টির উপরে থাকছে টক চাটনি, মুখরোচক মশলা এবং সেও ভাজা। দাম ১২ টাকা।

শহরের মিষ্টি ব্যবসায়ী বাসুদেব বিদ, মনোরঞ্জন মল্লিক, শ্যামল মালিকরা জানাচ্ছেন, এ সব মিষ্টির পাশাপাশি, ‘সুগার-ফ্রি’ সন্দেশ, রসগোল্লা, দই ও নানা রকমের সন্দেশেরও চাহিদা রয়েছে। ‘সীতাভোগ-মিহিদানা ট্রেডার্স অ্যাসোসিয়েশন’-এর তরফে জানানো হয়েছে, ২০০ টাকা, ৩০০ টাকা কেজি সীতাভোগ আর মিহিদানা যেমন মিলছে, তেমনই পাওয়া যাচ্ছে ৬০০ টাকা কেজি দরে ‘জি আই ট্যাগ’ পাওয়া সীতাভোগ বা মিহিদানা।

Advertisement

গুসকরায় জামাইষষ্ঠীর বাজারে শনিবার ‘হট কেক’-এর মতো বিক্রি হয়েছে ‘বেনারসি পান’! মালাই, ছানা, সন্দেশ এবং বিভিন্ন রকম ফল দিয়ে তৈরি ‘বেনারসি পান’ কিনতে লাইন পড়েছিল গুসকরা বাসস্ট্যান্ড এলাকার মিষ্টির দোকানে। রাজীব দে নামে এক ব্যবসায়ী বলেন, “প্রত্যেক বছর জামাইষষ্ঠীর সময় নতুন ধরনের মিষ্টি বানাই। এ বার বানিয়েছি বেনারসি পান।” শনিবার বাজারে এসেছে এই মিষ্টি। রাজীব বলেন, ‘‘প্রথমে ছানা দিয়ে পানের মতো দেখতে মিষ্টি বানিয়ে তা রসে ফোটানো হয়েছে। এর পরে, রস থেকে তুলে, ভাল করে রস নিঙড়ে, দুধ ঘন করে তৈরি মালাইয়ে ফেলা হচ্ছে। শেষে, মিষ্টির উপরে সন্দেশ, আপেল, বেদানা, কাজু, পেস্তার টুকরো সাজানো হচ্ছে। এই মিষ্টির প্রতিটির দাম ১৫ টাকা।’’

গুসকরার বাসিন্দা গুরুপ্রসাদ রায়, সজীব চট্টোপাধ্যায়, মেনকা মণ্ডলের মতো ক্রেতারা বলেন, “নতুন ধরনের মিষ্টি দেখে ভাল লাগল। জামাইষষ্ঠীর জন্য বেনারসি পান নিয়েছি।’’

সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তেফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ

Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.