Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

১৯ অক্টোবর ২০২১ ই-পেপার

গরমে ক্রেতা টানতে পন্থা

বাজি আইপিএল, রেস্তোরাঁয় দামেও ছাড়

অর্পিতা মজুমদার
দুর্গাপুর ০৪ মে ২০১৭ ০১:২৯
জমজমাট: খেলার সঙ্গে খাওয়াদাওয়া। নিজস্ব চিত্র

জমজমাট: খেলার সঙ্গে খাওয়াদাওয়া। নিজস্ব চিত্র

দু’টির দাম দিয়ে হাতে আসছে তিনটি ঠান্ডা পানীয়ের ক্যান। সামনের জায়ান্ট স্ক্রিনে চলা ক্রিকেট ম্যাচে চোখ রেখে তাতে চুমুক দিচ্ছেন অনেকেই। আইপিএল দেখার ব্যবস্থা, সেই সঙ্গে খাবারদাবারের দামে ছাড়— গরমের মরসুমে এই পন্থায় ক্রেতা টানার রাস্তায় হেঁটেছে শহরের বেশ কিছু রেস্তোরাঁ।

দুর্গাপুরে দিন কয়েক আগেই সিটি সেন্টারের চতুরঙ্গ মাঠে পরপর দু’দিন হয়ে গেল আইপিএল ফ্যান পার্ক। বিশাল জায়ান্ট স্ক্রিন। সঙ্গে রসনাতৃপ্তির বহুবিধ ব্যবস্থা। বাচ্চাদের জন্য নানা ‘রাইড’। তার পরেই ক্রিকেটকে বাজি রেখে ব্যবসা বাড়ানোর সুযোগ নিতে নামেন শহরের নানা রেস্তোরাঁ কর্তৃপক্ষ।

রেস্তোরাঁগুলিতে খোঁজ নিয়ে জানা যায়, টিভিতে নানা রকম অনুষ্ঠান চলেই। খাওয়ার ফাঁকে অনেকে টিভির পর্দায় চোখ রাখেন। আইপিএল শুরুর পরে প্রতি সন্ধ্যায় সেই খেলাই চলছে। দেখা গিয়েছে, অনেকেই খেতে বসে গম্ভীর বা ধোনির ব্যাটিংয়ে আটকে যান। আধ ঘণ্টার খাবার শেষ করতে দেড় ঘণ্টা পার করে ফেলেন। এই সব দেখেই বাড়তি বিক্রির জন্য দামে ছাড়ের ব্যবস্থা করেছে রেস্তোরাঁগুলি। সঙ্গে কেউ-কেউ বড় স্ক্রিনের বন্দোবস্তও করেছে।

Advertisement

ফরিদপুরের এক রেস্তোঁরা কর্তৃপক্ষ জানান, খাবারে ‘অফার’ তো আছেই, সেই সঙ্গে থাকছে পানীয়ের ক্যানে ‘সুপার সিক্সার অফার’। দু’টি ক্যান কিনলে একটি দেওয়া হচ্ছে বিনামূল্যে, যা ক্রেতাদের মধ্যে বেশ জনপ্রিয় হয়েছে। সিটি সেন্টারের একটি রেস্তোঁরায় গিয়ে দেখা গেল, কেকেআরের খেলা দেখতে বেশ ভিড়। সেই সঙ্গে চলছে পেটপুজো। তরুণ-তরুণীদের সংখ্যা বেশি। পানীয়, খাবারের বিভিন্ন পদের অর্ডার হচ্ছে বারবার। ইঞ্জিনিয়ারিংয়ের দ্বিতীয় বর্ষের পড়ুয়া পলাশ রায়, সাগ্নিক মুখোপাধ্যায়, ঐন্দ্রিলা বসুরা বলেন, ‘‘রাতে কেকেআরের খেলা থাকলে আমরা কলেজ থেকে সোজা রেস্তোরাঁয় চলে আসি। টুর্নামেন্ট প্লে-অফের দিকে যত এগোচ্ছে, উন্মাদনা বাড়ছে। এক সঙ্গে বসে আইপিএল দেখার মজাই আলাদা!’’

অনেকে বাড়িতে একা বসে খেলা দেখতে পছন্দ করেন না। তাঁদেরও এখন গন্তব্য রেস্তোঁরাগুলি। সিটি সেন্টারের ননকোম্পানি এলাকার প্রসেনজিৎ রায় বলেন, ‘‘বাইরে এত গরম। রেস্তোঁরায় ঠান্ডা পরিবেশে বসে খাওয়াদাওয়ার সঙ্গে খেলা দেখার মজাই আলাদা!’’ বিক্রি বাড়ায় খুশি রেস্তোরাঁগুলিও। ফরিদপুরের রেস্তোরাঁর ম্যানেজার দয়াময়ী চৌনি বলেন, ‘‘আইপিএল উপলক্ষে ছাড় দেওয়ায় নিয়মিত ক্রেতা আসছেন। আমরা খুশি, তাঁরাও খুশি।’’

আরও পড়ুন

Advertisement