Advertisement
২৪ জুন ২০২৪

ক্যাম্পাসিং চেয়ে কলেজের গেটে তালা পড়ুয়াদের

ভর্তির সময় চাকরির প্রতিশ্রুতি দেওয়া হলেও ক্যাম্পাসিং-এ দেখা মিলছে না কোনও বড় সংস্থারএই অভিযোগে মঙ্গলবার কলেজ গেটে তালা ঝোলালেন পড়ুয়াদের একাংশ। এর জেরে এ দিন পানাগড়ের একটি বেসরকারি ইঞ্জিনিয়ারিং ও ম্যানেজমেন্ট কলেজে লাটে উঠল পড়াশোনা। অন্য দিকে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে কলেজ কর্তৃপক্ষের তরফে হস্টেল বন্ধ রাখার কথাও ভাবা হচ্ছে বলে জানা গিয়েছে।

বিক্ষোভ কলেজে। —নিজস্ব চিত্র।

বিক্ষোভ কলেজে। —নিজস্ব চিত্র।

নিজস্ব সংবাদদাতা
দুর্গাপুর শেষ আপডেট: ১৮ মার্চ ২০১৫ ০১:৪০
Share: Save:

ভর্তির সময় চাকরির প্রতিশ্রুতি দেওয়া হলেও ক্যাম্পাসিং-এ দেখা মিলছে না কোনও বড় সংস্থারএই অভিযোগে মঙ্গলবার কলেজ গেটে তালা ঝোলালেন পড়ুয়াদের একাংশ। এর জেরে এ দিন পানাগড়ের একটি বেসরকারি ইঞ্জিনিয়ারিং ও ম্যানেজমেন্ট কলেজে লাটে উঠল পড়াশোনা। অন্য দিকে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে কলেজ কর্তৃপক্ষের তরফে হস্টেল বন্ধ রাখার কথাও ভাবা হচ্ছে বলে জানা গিয়েছে।

স্থানীয় সূত্রে গিয়েছে, ২০০৩ সালে পানগড় গ্রামে ওই কলেজটি গড়ে ওঠে। সাতটি বিষয়ে বি-টেক, একটি বিষয়ে এম-টেক ছাড়াও বিবিএ, বিসিএ ও এমবিএ পড়ানো হয় ওই কলেজে। কলেজের তৃতীয় ও চতুর্থ বর্ষের পড়ুয়ারা ক্যাম্পাসিং-এর দাবিতে দিন চারেক ধরে বিক্ষোভ দেখাচ্ছেন। কর্তৃপক্ষের তরফে মৌখিক আশ্বাসও মিলছে। কিন্তু তাতে কোনও ফল না মেলায় মঙ্গলবার সকালে কলেজ গেটে তালা দেওয়া হয় বলে জানান পড়ুয়ারা। এর জেরে নির্দিষ্ট সময়ে কলেজে ঢুকতে পারেননি শিক্ষক ও আধিকারিকেরা। ঘণ্টাখানেক পরে তালা খোলা হলেও কলেজে কোনও ক্লাস হয়নি বলে জানা গিয়েছে।

পড়ুয়াদের দাবি, গত বছর থেকেই ক্যাম্পাসিং-এর হাল ভাল নয়। এ বছর এখনও পর্যন্ত কোনও বড় সংস্থা কলেজ আসেনি। পড়ুয়াদের দাবি, কর্তৃপক্ষের তরফে ভর্তির সময় চাকরির প্রতিশ্রুতি দেওয়া হলেও বাস্তবে তা রাখা হয়নি। যদিও পড়ুয়াদের অভিযোগ অস্বীকার করে এক কলেজ আধিকারিকের দাবি, “ভর্তির সময় বলা হয়, চাকরি খুঁজতে সাহায্য করা হবে। প্লেসমেন্ট বিভাগ রাজ্য ও রাজ্যের বাইরের বিভিন্ন সংস্থার সঙ্গে কথাবার্তা বলছেন।” কলেজ কর্তৃপক্ষের দাবি, চাকরির বাজারে মন্দা থাকায় স্থানীয় স্তরেও নিয়োগ হচ্ছে না।

পড়ুয়াদের অভিযোগ, কলেজের পরিস্থিতি স্বাভাবিক করার জন্য কলেজ কর্তৃপক্ষের তরফে হস্টেলের খাবার সরবরাহ বন্ধের হুমকি দিচ্ছেন। কলেজ কর্তৃপক্ষ অবশ্য পড়ুয়াদের অভিযোগ অস্বীকার করেন। বুধবার থেকে অনির্দিষ্ট কাল হস্টেল বন্ধ রাখার কথা ভাবা হচ্ছে বলে কলেজ সূত্রে জানা গিয়েছে। সে ক্ষেত্রে বিপাকে পড়েবেন ভিন্ রাজ্যের পড়ুয়ারা। চতুর্থ বর্ষের অক্ষয় প্রসাদ, শুভম কর্মকারদের প্রশ্ন, “আচমকা হস্টেল বন্ধ হলে ভিন্ রাজ্যের পড়ুয়ারা কোথায় থাকবেন?” কলেজের চেয়ারম্যান প্রদীপ অগস্তির মোবাইল ফোন বন্ধ থাকায় যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)

অন্য বিষয়গুলি:

student strike campassing durgapur
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement

Share this article

CLOSE