×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

২১ জানুয়ারি ২০২১ ই-পেপার

রাতভর ফোনে ‘হুমকি’

নিজস্ব সংবাদদাতা
কালনা২০ অগস্ট ২০১৯ ০১:৪৯
প্রতীকী ছবি।

প্রতীকী ছবি।

সম্প্রতি টেলিফোনে গুলির আওয়াজ, নানা কটূক্তি করা হচ্ছে বলে অভিযোগ করেছিলেন কালনা ২ ব্লক তৃণমূল সভাপতি প্রণব রায়। এ বার অচেনা নম্বর থেকে ফোন করে হুমকি, গালিগালাজ করা হচ্ছে বলে অভিযোগ করলেন জেলা পরিষদের সহ সভাধিপতি দেবু টুডু। 

কালনা ২ ব্লকে বাড়ি হলেও, বেশির ভাগ সময় বর্ধমান সদরে থাকেন দেবুবাবু। ছুটির দিনে আসেন কালনায়। সোমবার জেলাশাসককে লেখা চিঠিতে তিনি অভিযোগ করেছেন, রবিবার রাত ১টা ৩৮ মিনিট থেকে তাঁর ফোনে বিভিন্ন নম্বর থেকে ফোন আসতে থাকে। কোনওটায় খুনের হুমকি দেওয়া হয়, কোনওটায় অকথ্য গালিগালাজ করা হয়। ভোর সওয়া ৩টে পর্যন্ত প্রায় ১৫টি নম্বর থেকে ফোন আসে, দাবি তাঁর। লিখিত অভিযোগে তিনি জানান, এই ধরনের ঘটনা মানসিক ভাবে পীড়াদায়ক। ঘটনাটি নিয়ে তিনি উদ্বিগ্ন। প্রশাসনের কাছে দ্রুত তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়ারও দাবি জানান তিনি।

কালনা থানায় করা অভিযোগে প্রণববাবুও জানিয়েছিলেন, অজস্র নম্বর থেকে ফোন করে বিরক্ত করা হচ্ছে। গুলির আওয়াজ শোনানো হচ্ছে। ফোন নম্বরগুলির তালিকাও তিনি তুলে দিয়েছিলেন পুলিশের হাতে।  তবে অভিযোগ করার পর থেকে আর এ ধরনের ফোন আসেনি বলে তাঁর দাবি। পুলিশও তদন্তে নেমে জেনেছিল, সিমগুলি ভিন্ রাজ্য থেকে নেওয়া।

Advertisement

এ দিন দেবুবাবু বলেন, ‘‘আমার মনে হয়েছে রেকর্ডেড ভয়েস শোনানো হচ্ছে। তবে এতটাই গালিগালাজ যে শোনা যাচ্ছে না। যারা এ কাজ করছে তারা কোনও বিশেষ উদ্দেশ্য নিয়ে করছে বলে আমার অনুমান।’’ জানা যায়, দেবুবাবু দুটি ফোন নম্বর ব্যবহার করেন। একটি তাঁর নিজস্ব। অন্যটি জেলা পরিষদ থেকে দেওয়া। ‘অফিসিয়াল’ নম্বরটিতেই এ ধরনের ফোন আসছে, দাবি তাঁর। জেলা পুলিশের দাবি, তদন্ত শুরু হয়েছে।            



Tags:

Advertisement