Advertisement
২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৪
BJP

BJP: সঙ্ঘের রীতি ভেঙে ভুল করেছি, আনন্দবাজার অনলাইনে খবরের পরে টুইটে ক্ষমাপ্রার্থী তথাগত

২৫ জুন ‘পদ্মে এসে কি ‘ছদ্ম’ আরএসএস? সঙ্ঘ পরিবারের কট্টর কটাক্ষে শুভেন্দু-সৌমিত্র-অর্জুনরা’ শীর্ষক সংবাদ প্রকাশিত হয় আনন্দবাজার অনলাইনে।

সঙ্ঘের রীতি মনে করিয়ে টুইট করেন তথাগত।

সঙ্ঘের রীতি মনে করিয়ে টুইট করেন তথাগত। ফাইল চিত্র

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা শেষ আপডেট: ২৮ জুন ২০২১ ১৫:৩৮
Share: Save:

রাষ্ট্রীয় স্বয়ংসেবক সঙ্ঘ (আরএসএস) ব্যক্তিপূজায় বিশ্বাস না করলেও বিজেপি নেতাদের কেউ কেউ নিজেদের সঙ্ঘ-ঘনিষ্ঠ বা অনুগামী প্রমাণ করতে ব্যক্তিপূজা করছেন। সঙ্ঘের রীতি ভেঙে প্রতিষ্ঠাতা-সহ পরবর্তী সময়ের সঙ্ঘ প্রধানদের জন্মদিন, মৃত্যুদিনে টুইট করে শ্রদ্ধাও জানাচ্ছেন। যা নিয়ে সম্প্রতি অভিযোগ ওঠে সঙ্ঘ পরিবারেই। আনন্দবাজার অনলাইন সেই খবর প্রকাশের পরে নিজে থেকেই এমন আচরণের জন্য ক্ষমা চাইলেন বিজেপি নেতা তথাগত রায়। সোমবার তিনি টুইট করেছেন, ‘আমরা (সঙ্ঘ) বছরে ছ’দিন বর্ষ প্রতিপদ, হিন্দু সাম্রাজ্য দিবস, গুরু পূর্ণিমা, রক্ষা বন্ধন, বিজয়া দশমী এবং মকর সংক্রান্তি পালন করি। ইদানীং, কিছু স্বয়ংসেবক অতি উৎসাহে ডাক্তার’জি (সঙ্ঘ প্রতিষ্ঠাতা কেশব হেডগেওয়ার)-র মৃত্যু দিবসে টুইট করেন। আমি না ভেবেই সেটা রিটুইট করি। এর জন্য আমি ক্ষমাপ্রার্থী।’

গত ২৫ জুন ‘পদ্মে এসে কি ‘ছদ্ম’ আরএসএস? সঙ্ঘ পরিবারের কট্টর কটাক্ষে শুভেন্দু-সৌমিত্র-অর্জুনরা’ শীর্ষক সংবাদ প্রকাশিত হয় আনন্দবাজার অনলাইনে। সেখানে অবশ্য তথাগতের নাম ছিল না। তবে বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী, সাংসদ অর্জুন সিংহ ও সৌমিত্র খাঁয়ের টুইটের কথা উল্লেখ করা হয়েছিল। সেই সঙ্গে ছিল সঙ্ঘ পরিবারের উৎসবপালন নিয়ে নীতি ও আদর্শের কথা। পশ্চিমবঙ্গ আরএসএস-এর প্রবীণ প্রচারক তথা ‘স্বস্তিকা’ পত্রিকার (আরএসএস মুখপত্র) প্রাক্তন সম্পাদক বিজয় আঢ্য বলেছিলেন, ‘‘কোনও দিবস পালন করতে হলে আগে সঙ্ঘের আদর্শ বুঝতে হবে। সঙ্ঘ ব্যক্তিপুজোয় বিশ্বাস করে না। তাই প্রতিষ্ঠাতার জন্মদিনও পালিত হয় না। সঙ্ঘের গুরু গৈরিক পতাকা।’’সঙ্ঘের রীতি ভেঙে শুভেন্দুর চেয়ারে বসে প্রার্থনা আবৃত্তি করাটাও ‘মর্যাদাহানিকর’ বলে সঙ্ঘ পরিবারের মধ্যে অভিযোগ ওঠে।

সেই খবর প্রকাশের পরে বিজেপি শিবিরে আলোচনা বাড়ে। ‘নবাগত’-দের ঘনিষ্ঠরা দাবি করেন, ইদানীং কেন্দ্রীয় নেতাদের অনেকেও প্রয়াত সঙ্ঘপ্রধানদের জন্ম ও মৃত্যুদিনে রীতি-রেওয়াজ ভেঙেই টুইট করেছেন। তাঁদের দৃষ্টাম্তই অনুসরণ করেছেন শুভেন্দু-অর্জুনরা। বিজেপি সূত্রে খবর, সেই সূত্রেই রাজ্য বিজেপি-র প্রাক্তন সভাপতি তথা ত্রিপুরা, মিজোরামের প্রাক্তন রাজ্যপাল তথাগতকে নিয়ে প্রশ্ন ওঠে। পুরনো সঙ্ঘ অনুগামী হয়েও তথাগত কেন এমন করলেন, তা নিয়ে রাজ্য বিজেপি-র অন্দরেই আলোচনা শুরু হয়। সে সব কিছু উল্লেখ করেননি তথাগত। তবে প্রকাশ্যে ক্ষমা চেয়েছেন। সেই সঙ্গে সঙ্ঘের আদর্শ ও রীতির ব্যাখ্যা দিয়ে লিখেছেন, ‘ব্যক্তি নিরপেক্ষতা আরএসএস-এর মূলগত নীতি। সেই কারণে আমরা শুধু ধ্বজ (গৈরিক পতাকা)-এর পূজা করি, কোনও ব্যক্তিকে নয়।’ সেই সঙ্গে একটি গল্পের উল্লেখ করেছেন তথাগত। লিখেছেন, ‘এক বার একজন সাংবাদিক ডাক্তার’জির ছবি তুলতে গেলে তিনি ছাতা দিয়ে নিজের মুখ আড়াল করেছিলেন।’

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement

Share this article

CLOSE