Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

১৮ জানুয়ারি ২০২২ ই-পেপার

রাজ্যের করোনা-ভূমিকা নিয়ে সমীক্ষা দিলীপের

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা ০২ মে ২০২০ ০২:২৩
—ফাইল চিত্র।

—ফাইল চিত্র।

করোনা পরিস্থিতিতে প্রত্যাশিত পথেই হাঁটতে শুরু করে দিল বিজেপি। করোনা মোকাবিলায় রাজ্য সরকারের ভূমিকা নিয়ে এ বার অনলাইন সমীক্ষায় নেমে পড়লেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। দলের একাংশের মতে, বকেয়া পুরভোট এবং আগামী বছরে নির্ধারিত বিধানসভা ভোটের কথা মাথায় রেখেই অনলাইন সমীক্ষার মাধ্যমে রাজ্যে তৃণমূল সরকারের বিরুদ্ধে রাজনৈতিক জমি তৈরির চেষ্টা অব্যাহত রাখতে সক্রিয় হয়েছেন দিলীপবাবু। বিজেপির কাজকর্ম নিয়ে পাল্টা প্রশ্ন তুলেছে শাসক তৃণমূল ও বিরোধী সিপিএম।

নিজের একটি ওয়েবসাইট চালু করে সেখানেই চারটি প্রশ্ন নিয়ে ওই অনলাইন সমীক্ষা শুরু করেছেন দিলীপবাবু। ওই প্রশ্নমালার প্রথমেই জানতে চাওয়া হয়েছে, ‘‘আপনি কি বিশ্বাস করেন, পশ্চিমবঙ্গ সরকার করোনা নিয়ে তথ্য লুকোচ্ছে?’’ এর পরে রয়েছে রেশন না পাওয়া, লকডাউন বিধি ভাঙা এবং করোনা পরীক্ষার হার কম নিয়ে প্রশ্ন। দিলীপবাবুর দাবি, ‘‘আমাদের এই সমীক্ষা কয়েক দিন চললেই রাজ্যের শাসক দল এবং সরকার টের পাবে, তাদের তথ্যের কারচুপি গোটা দেশের মানুষ জেনে গিয়েছেন!’’

মুখ্যমন্ত্রী কয়েক দিন বিরোধীদের উদ্দেশে বলেছিলেন, ‘‘এখন কেউ রাজনীতি করবেন না। আমিও রাজনীতি করব না।’’ সেই সুরেই তৃণমূল দিলীপবাবুর এই উদ্যোগ নিয়ে প্রশ্ন তুলেছে। তৃণমূল নেতা তথা রাজ্যের মন্ত্রী তাপস রায় বলেন, ‘‘আমাদের দেশ তথা গোটা দুনিয়ার মানুষ করোনা-ত্রস্ত এবং স্বজনকে নিয়ে চিন্তিত। অনেকেই লকডাউনে ভিন্ রাজ্যে আটকে পড়েছেন। এই সময় আধা-রাজনীতিকদের এই সব সমীক্ষা কি করোনা-বিরোধী লড়াইকে শক্তিশালী করবে? আমরাও তো কেন্দ্রের বিরুদ্ধে ২০ দফা প্রশ্ন নিয়ে সমীক্ষা করতে পারি। কিন্তু সেটা কি এই সঙ্কটকালে সমীচীন হবে?’’ বাম পরিষদীয় নেতা সুজন চক্রবর্তীরও প্রশ্ন, ‘‘করোনা-যুদ্ধের মধ্যে যে দুই চিকিৎসক এ রাজ্যে প্রয়াত হয়েছেন, তাঁদের জন্য ১০ লক্ষ টাকার রাজ্য সরকারি বিমার ব্যবস্থা হয়েছে। কিন্তু প্রধানমন্ত্রীর ঘোষিত ৫০ লক্ষের কী হল? দিলীপবাবুর কি এ সব বিষয়ে কোনও দায়িত্ব নেই? নাকি শুধু রাজনীতির ফায়দাই দেখবেন?’’

Advertisement

আরও পড়ুন: উত্তরবঙ্গে পাঠানো মেডিক্যাল টিমের চিকিৎসকই করোনা-আক্রান্ত, কোয়রান্টিনে ২৭ জন

(অভূতপূর্ব পরিস্থিতি। স্বভাবতই আপনি নানান ঘটনার সাক্ষী। শেয়ার করুন আমাদের। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিয়ো আমাদের ইমেলে পাঠিয়ে দিন, feedback@abpdigital.in ঠিকানায়। কোন এলাকা, কোন দিন, কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই দেবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।)

আরও পড়ুন

Advertisement