Advertisement
০৩ মার্চ ২০২৪
partha chatterjee

পার্থর কর্মশালায় স্লোগান ‘মজবুত বুথ, শক্ত ভিত’, বিজেপি বলছে, রাস্তা দেখাবে তাদের পথই

বেহালা পশ্চিম কেন্দ্রে এর আগে চারবার তৃণমূলের প্রার্থী হয়েছেন পার্থ। কিন্তু বুথভিত্তিক এমন স্লোগান আগে কখনও দেওয়া হয়েছে বলে মনে করতে পারছেন না এলাকার কোনও তৃণমূল নেতা-কর্মী।

এই স্লোগান নিয়েই নামছেন পার্থ।

এই স্লোগান নিয়েই নামছেন পার্থ। নিজস্ব চিত্র

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা শেষ আপডেট: ৩০ জানুয়ারি ২০২১ ১৯:৩৫
Share: Save:

তিনি তৃণমূলের মহাসচিব। রাজ্যের গুরুত্বপূর্ণ মন্ত্রীও বটে। রবিবার তাঁর বিধানসভায় কেন্দ্র বেহালা পশ্চিমের সরশুনা কলেজ মাঠে এক বুথকর্মী রাজনৈতিক কর্মশালার আয়োজন করা হয়েছে। সেখানে হাজির থাকবেন এলাকার বিধায়ক পার্থ চট্টোপাধ্যায়। পার্থ ছাড়াও থাকতে পারেন তৃণমূল রাজ্য সভাপতি সুব্রত বক্সী, দক্ষিণ কলকাতার সাংসদ মালা রায়। সেই কর্মশালার হোডিংয়ে ছয়লাপ বেহালা এলাকা। যেখানে স্লোগান লেখা— ‘মজবুত বুথ, শক্ত ভিত’।

ঘটনাচক্রে, ২০১৯ সালের লোকসভা ভোটের আগে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী এবং অমিত শাহ বিজেপি কর্মীদের জন্য একটি স্লোগান ঠিক করে দিয়েছিলেন। দেশজুড়ে বুথ স্তরের কর্মীদের চাঙ্গা করতে স্লোগান দেওয়া হয়েছিল, ‘মেরা বুথ, সব সে মজবুত’। সেই প্রসঙ্গ টেনেই রাজ্য বিজেপি নেতাদের একাংশ পার্থর কর্মশালার স্লোগান নিয়ে বলছেন, বিজেপি-র পথই যে আসল, সেটাই ওই স্লোগানের মাধ্যমে স্বীকার করে নেওয়া হয়েছে। এক নেতার কথায়, ‘‘এতদিনে তৃণমূল বুঝেছে যে, আমাদের পথই ওদের রাস্তা দেখাবে। তবে অনের দেরি হয়ে গিয়েছে!’’

বেহালা পশ্চিম কেন্দ্রে এর আগে চারবার তৃণমূলের প্রার্থী হয়েছেন পার্থ। কিন্তু বুথভিত্তিক এমন স্লোগান আগে কখনও দেওয়া হয়েছে বলে মনে করতে পারছেন না এলাকার কোনও তৃণমূল নেতা-কর্মী। ২০০১ সালে বেহালা পশ্চিম বিধানসভা কেন্দ্রে প্রথম জন্য কংগ্রেস-তৃণমূল জোটের প্রার্থী হন পার্থ। নাকতলার বাসিন্দা পার্থ সে বার ১৯ হাজার ভোটে হারান বেহালার ‘ভুমিপুত্র’ দু’বারের বিধায়ক তথা সিপিএম নেতা নির্মল মুখোপাধ্যায়কে। ২০০৬ সালে বামফ্রন্টের ব্যাপক জয়েও ওই কেন্দ্রে সাড়ে চার হাজার ভোটে জিতে বিরোধী দলনেতা হন পার্থ। ২০১১ সালে ‘পরিবর্তন’-এর ভোটে পাহাড়ের তিনটি আসন বাদ দিয়ে সমতলের মধ্যে সবচেয়ে বেশি, ৫৯ হাজার ভোটে জিতেছিলেন পার্থ। কোনও বারই কোনও স্লোগানে নির্ভর করতে হয়নি পার্থকে।

তবে ২০১৬ সালের বিধানসভা ভোটে একটি স্লোগান ব্যবহার করেছিলেন তাঁর অনুগামীরা। প্রায় প্রত্যেক হোর্ডিংয়েই লেখা হয়েছিল ‘এক, ছয়, এগারো, পার্থদা এ বারও’। তবে জিতলেও পার্থর ব্যবধান নেমে এসেছিল সাড়ে ৮ হাজার ভোটে। এ বারের ভোট প্রস্তুতিতে গত কয়েক মাসে বেহালা পশ্চিম কেন্দ্রে একঝাঁক কর্মী সম্মেলন করেছেন বিধায়ক পার্থ। নির্বাচনী নির্ঘণ্ট ঘোষণার সময় হয়ে এসেছে। তাই জানুয়ারি মাসের শেষদিন বুথকর্মী রাজনৈতিক কর্মশালার আয়োজন করেছেন তিনি। সেই কর্মশালায় অংশগ্রহণকারী কর্মীদের জন্যই বুথ মজবুত করার স্লোগান ঠিক করা হয়েছে। যা নিয়ে কটাক্ষ করছে বিজেপি।

তবে তাঁদের স্লোগানের সঙ্গে বিজেপি-র স্লোগানের মিল রয়েছে বলে মানতে চাননি তৃণমূলের রাজ্য সম্পাদক তথা পার্থর গত চারটি নির্বাচনের মুখ্য ‘এজেন্ট’ অঞ্জন দাস। শনিবার তিনি বলেন, ‘‘বিজেপি-র যে স্লোগানের কথা বলা হচ্ছে, তা তো মাত্র কয়েক বছর আগের। চিরকালীন নির্বাচনী স্লোগান তো বুথ ঘিরেই হয়। যে রাজনৈতিক দলই ভোট করে, তাদের প্রত্যেকের ক্ষেত্রে এই ধরনের বুথভিত্তিক স্লোগানের প্রয়োজন হয়। জনসভা বা সম্মেলনে তো আর ভোট হয় না! ভোট তো হয় বুথে। কিছু কিছু শব্দ অবশ্যই মিলে যেতে পারে। তাতে সামগ্রিক মিল আছে বললে সেটা সত্যের অপলাপ হবে। বুথভিত্তিক স্লোগান সব রাজনৈতিক দলেরই অস্ত্র। কথা একটু আগে-পরে হয় হয়তো।’’

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement

Share this article

CLOSE