Advertisement
২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২৪
Civic Polls

BJP: বাঁকুড়া পুরভোটে প্রার্থী খুঁজতে ড্রপ বক্স বসাবে বিজেপি, বিরোধীদের ‘দুর্বল’ বলে খোঁচা তৃণমূলের

বিজেপি-র দাবি, প্রার্থী হিসাবে ১২৯ জন ইচ্ছুক কর্মীর নাম উঠেছে। অন্য কোনও ব্যক্তি প্রার্থী হতে চান কি না, তা জানতেই এ সিদ্ধান্ত।

সাংবাদিক সম্মেলনে বাঁকুড়ার বিজেপি নেতৃত্ব।

সাংবাদিক সম্মেলনে বাঁকুড়ার বিজেপি নেতৃত্ব। —নিজস্ব চিত্র।

নিজস্ব সংবাদদাতা
বাঁকুড়া শেষ আপডেট: ১৮ ডিসেম্বর ২০২১ ১৮:১১
Share: Save:

বাঁকুড়া পুরসভার নির্বাচনে যোগ্য তথা স্বচ্ছ ভাবমূর্তির প্রার্থী খুঁজতে এ বার ড্রপ বক্স বসানোর সিদ্ধান্ত নিল জেলা বিজেপি। রবিবার থেকে ২ ডিসেম্বর পর্যন্ত বিজেপি-র বাঁকুড়া জেলা কার্যালয়ে রাখা থাকবে এই ড্রপ বক্স। বিজেপি-র প্রার্থী হওয়ার জন্য ওই ড্রপ বক্সে নিজেদের আবেদনপত্র জমা করতে পারবেন ইচ্ছুকেরা।

বিজেপি-র দাবি, বাঁকুড়া পুরভোটে প্রার্থী হিসাবে ইতিমধ্যেই ১২৯ জন ইচ্ছুক দলীয় কর্মীর নাম উঠে এসেছে। তবে এর বাইরেও বিজেপি-র মতাদর্শে বিশ্বাসী কোনও ব্যক্তি প্রার্থী হতে চান কি না, তা জানতেই ড্রপ বক্স বসানোর সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। যদিও এ নিয়ে বিজেপি-কে কটাক্ষ করতে ছাড়েনি তৃণমূল। শাসকদলের পাল্টা দাবি, পুরভোটের প্রার্থী খুঁজে না পেয়েই শেষ পর্যন্ত ড্রপ বক্সের আশ্রয় নিতে হয়েছে বিজেপি-কে।

বাঁকুড়ার বিজেপি বিধায়ক নিলাদ্রীশেখর দানা জানিয়েছিলেন, এই পুরভোটের প্রায় সব আসনে দলীয় প্রার্থীদের নাম চূড়ান্ত হয়ে গিয়েছে। তবে শুক্রবার সাংবাদিক সম্মেলনে বিজেপি-র বাঁকুড়া সাংগঠনিক জেলার সভাপতি বিবেকানন্দ পাত্র বলেন, “কয়েকটি আসনে দলীয় প্রার্থীর নাম মোটামুটি ভাবে উঠে এসেছে। তবে বেশ কয়েকটি আসনে তা এখনও স্থির হয়নি। ইতিমধ্যেই ১২৯ জন বিজেপি কর্মী ও বিভিন্ন স্তরের মানুষ বিজেপি প্রার্থী হিসাবে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করার জন্য আবেদন করেছেন। তাঁদের মধ্যে ৪২ জন মহিলা আবেদনকারীও রয়েছেন। এতেই প্রমাণিত যে, বিপুল সংখ্যক মানুষ বিজেপি-র প্রার্থী হতে আগ্রহী। আরও আবেদনপত্র নেওয়ার জন্য এই ড্রপ বক্সের ব্যবস্থা করেছি। আবেদনকারীদের মধ্যে থেকে স্বচ্ছ ভাবমূর্তি ও অন্যান্য বিষয় দেখে তাঁদের প্রার্থী হিসাবে নির্বাচন করা হবে। আমরা আশাবাদী, বাঁকুড়া পুরসভায় ২৪টি আসনেই জয়ী হব।”

যদিও এ ভাবে প্রার্থী বাছাইয়ের ব্যবস্থাকে কটাক্ষ করেছে তৃণমূল। তৃণমূলের বাঁকুড়া সাংগঠনিক জেলা সভাপতি দিব্যেন্দু সিংহ মহাপাত্রের দাবি, “বিজেপি-র সাংগঠনিক পরিকাঠামো এতটাই দুর্বল হয়ে পড়েছে যে তারা বাঁকুড়া পুরভোটে লড়াই করার মতো প্রার্থীই খুঁজে পাচ্ছে না। তাই এ ব্যবস্থা করতে হয়েছে। খোঁজ নিলে দেখা যাবে, এই ড্রপ বক্সেও কেউ প্রার্থী হওয়ার আবেদন জমা দেননি।”

তবে ড্রপ বক্সের মাধ্যমে প্রার্থী বাছাইয়ের সিদ্ধান্ত এই প্রথম নয়। বিজেপি-র রাজ্য সভাপতি হওয়ার পর এ ব্যবস্থা চালু করেছিলেন সুকান্ত মজুমদার। এর আগে কলকাতা এবং হাওড়া পুরভোটের জন্য আবেদনপত্র জমা নিতে ড্রপ বক্স বসিয়েছিল বিজেপি। যদিও হাওড়ার পুরভোট আপাতত স্থগিত হয়ে গিয়েছে।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement

Share this article

CLOSE