Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

১৮ অক্টোবর ২০২১ ই-পেপার

Calcutta High Court: বাসভাড়া বাড়ানোর দাবিতে হাই কোর্টে

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১ ০৬:৩৫
ফাইল চিত্র।

ফাইল চিত্র।

রাজ্য সরকার কোনও ভাবেই ভাড়া বাড়ানোর দাবি না-মানায় এ বার কলকাতা হাই কোর্টের দ্বারস্থ হয়েছে বাস ও মিনিবাস মালিক সংগঠন। তাদের বক্তব্য, মালিকেরা দু’দিক থেকে ব্যাপক ক্ষতির মুখে পড়েছেন। প্রথমত, কোভিড সংক্রমণের মোকাবিলায় বাসের যাত্রী-সংখ্যা কমিয়ে দিয়েছে সরকার। দ্বিতীয়ত, চড়চড় করে বেড়েছে জ্বালানির দাম। এই পরিস্থিতিতে বাসমালিকেরা বার বার ভাড়া বৃদ্ধির দাবি জানালেও সরকার তাতে কর্ণপাত করেনি।
উচ্চ আদালত সূত্রের খবর, ভাড়া-সমস্যার সুরাহা চেয়ে আসানসোলের মিনিবাস সংগঠন এবং রাজ্যের বাস ও মিনিবাস সমন্বয় সমিতি নামে দু’টি সংগঠন মামলা করেছে। শীঘ্রই সেই তার শুনানি হতে পারে। মামলার আবেদনপত্রে বলা হয়েছে, ২০১০ এবং ২০১৪ সালে কেন্দ্রের পেট্রোপণ্যের দামে নিয়ন্ত্রণ হ্রাস করেছে। তার পর পেট্রোপণ্য বিক্রেতা সংস্থাগুলি নিজেদের মর্জিমাফিক দাম বাড়িয়ে চলেছে। কয়েক বছরে বাসের টায়ার এবং বিভিন্ন যন্ত্রাংশের দামও বেড়েছে। কিন্তু বার বার আর্জি সত্ত্বেও রাজ্যের পরিবহণ দফতর বাসভাড়া বাড়াচ্ছে না। তার উপরে অতিমারি পরিস্থিতিতে বাসের যাত্রী-সংখ্যা বেঁধে দেওয়া হয়েছে। এ ভাবে লোকসানের বোঝা চাপিয়ে পরিবহণ ব্যবসায়ী এবং শ্রমিকদের ক্রমাগত বিপদে ফেলা হচ্ছে বলে বাসমালিকদের অভিযোগ।

মামলার আবেদনপত্রে উল্লেখ করা হয়েছে, রাজ্যে সার্বিক ভাবে বাসের ভাড়া না-বাড়ালেও বিভিন্ন জেলায় ভাড়া বাড়ানো হয়েছে। প্রমাণ হিসেবে কোচবিহারে বাসভাড়া বৃদ্ধির সরকারি নির্দেশিকাও যুক্ত করা হয়েছে মামলার নথিতে। বাসমালিকদের অভিযোগ, বাসভাড়ার ব্যাপারে সারা রাজ্যে সার্বিক ভাবে স্পষ্ট নীতি ঘোষণা না-করে এ ভাবে বিভিন্ন জেলার ভাড়ার মধ্যে অসাম্য তৈরি করা হচ্ছে।

অনেকেরই বক্তব্য, শহরাঞ্চলে অটো ও টোটো ইদানীং পরিবহণ ব্যবস্থার অন্যতম ভিত্তি হয়ে উঠেছে। কিন্তু তাদের ভাড়ায় সরকারি নিয়ন্ত্রণ নেই। অধিকাংশ ক্ষেত্রে শাসক দলের হাতে থাকা অটো বা টোটো ইউনিয়নই ভাড়া নির্ধারণ করে। অতিমারির পরে অধিকাংশ জায়গাতেই অটো ও টোটোর ভাড়া বাড়ানো হয়েছে। তা হলে বাসের ভাড়া কেন বাড়বে না, সেই প্রশ্ন উঠেছে। অনেকে জানান, বহু জায়গায় বাসও ভাড়া বাড়িয়েছে। যাত্রীরা বাড়তি ভাড়া দিয়েই যাতায়াত করছেন। তা সত্ত্বেও সরকারি স্তরে নির্দেশিকা না-থাকায় বিভ্রান্তির সৃষ্টি হচ্ছে এবং তার জেরে যাত্রীদের সঙ্গে বাসকর্মীদের বচসাও হচ্ছে।

Advertisement

আরও পড়ুন

Advertisement