Advertisement
২৫ সেপ্টেম্বর ২০২২
Mamata Banerjee

Foreign Investment: বিদেশ থেকে রাজ্যে বিনিয়োগ আনতে সক্রিয় ভূমিকা নিন রাজ্যপাল, চাইছেন মুখ্যমন্ত্রী

কোভিডের জন্য চলতি বছরে শিল্প বাণিজ্য সম্মেলন স্থগিত ছিল। সাধারণত তিনদিনের এই সম্মেলন হয় জানুয়ারিতে। আগামী বছর ২০ এবং ২১ এপ্রিল তা হবে।

রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড় এবং মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড় এবং মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ফাইল চিত্র।

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা শেষ আপডেট: ০৯ নভেম্বর ২০২১ ০৬:৫৭
Share: Save:

সুশাসন থেকে উন্নয়ন— সব ক্ষেত্রেই রাজ্যের কড়া সামালোচক তিনি। তাঁর নিশানায় কখনও মুখ্যমন্ত্রী কখনও মুখ্যসচিব বা অন্য মন্ত্রী, আধিকারিকেরা। এ বার সেই রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়কে রাজ্যে উন্নয়নের উদ্যোগে জড়িয়ে নিতে চাইলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। মুখ্যমন্ত্রীর প্রস্তাব, রাজ্যে বিদেশ থেকে বিনিয়োগ আনতে রাজ্যপাল নিজে সক্রিয় ভূমিকা নিন। রাজ্যপালও প্রত্যুত্তরে জানিয়েছেন, তাঁর দিক থেকে যা করণীয় তিনি করবেন।

কোভিডের জন্য চলতি বছরে শিল্প বাণিজ্য সম্মেলন স্থগিত ছিল। সাধারণত তিনদিনের এই সম্মেলন হয় জানুয়ারিতে। তবে আগামী বছর সময় একটু পিছিয়ে ২০ ও ২১ এপ্রিল তা করা হবে বলে সোমবার ঘোষণা করেছেন মুখ্যসচিব হরিকৃষ্ণ দ্বিবেদী। এ দিন ছিল সরকার আয়োজিত বিজয় সম্মিলনী। সেখানে সস্ত্রীক উপস্থিত হন রাজ্যপাল। উপস্থিত অভ্যাগতদের সঙ্গে সৌজন্য বিনিময়ের মধ্যেই মুখ্যসচিবকে একান্তে ডেকে নিয়ে মুখ্যমন্ত্রী আগামী বছর বিশ্ববঙ্গ বাণিজ্য সম্মেলনের দিনক্ষণ স্থির করে নেন। তারপরেই তিনি রাজ্যপালের উদ্দেশে বলেন, ‘‘শিল্প সম্মেলনে দেশ- বিদেশের শিল্পপতি ও বিনিয়োগকারীদের রাজ্যে আমন্ত্রণ জানানো হয়। তাঁরা আসেন। আমি চাই, রাজ্যপাল হিসেবে আপনিও রাজ্যের এই উদ্যোগে সক্রিয় ভূমিকা নিন। আপনি বিদেশে যান। বিনিয়োগকারীদের সঙ্গে কথা বলুন। আমিও একই উদ্দেশ্যে বিদেশ যাওয়ার চেষ্টা করব।’’

প্রত্যুত্তরে রাজ্যপালও মুখ্যমন্ত্রীর বক্তব্যকে স্বাগত জানিয়ে বলেন, ‘‘রাজ্যের সাংবিধানিক প্রধান হিসেবে রাজ্যের সার্বিক উন্নতির জন্য যেখানে যা করার তা আমি করব। পশ্চিমবঙ্গ অগ্রগতির পথে চলেছে। এ বিষয়ে মুখ্যমন্ত্রীর উদ্যম যথেষ্ঠ প্রশংসনীয়।’’

এর আগে এ দিন বিশ্ববাংলা কনভেনশন সেন্টারে দুর্গাপুজোর পুরষ্কার প্রদান অনুষ্ঠানে তিনি জানিয়েছেন, নিউ টাউনে সিলিকন ভ্যালি তৈরি করছে রাজ্য সরকার। ইতিমধ্যেই প্রচুর সংস্থা জমি পেয়েছে। আরও অনেকে পাবে। শিল্পায়ন এবং চাকরির সুযোগও বাড়বে। তিনি জানিয়েছেন, ইএম বাইপাস লাগোয়া মিলন মেলা প্রাঙ্গন সংস্কার করে একটি আন্তর্জাতিক মেলা প্রাঙ্গণ তৈরি করছে রাজ্য সরকার। আগামী মার্চ মাসের মধ্যে সেটি সম্পূর্ণ হবে বলে আশা করা যায়। সূত্রের খবর, ওই মেলা প্রাঙ্গনের কাজ শেষ হলে আগামী শিল্প সম্মেলন সেখানেই করতে চান মুখ্যমন্ত্রী।

মুখ্যসচিব এ দিন জানান, আগামী বছর বইমেলা হবে ৩১ জানুয়ারি থেকে। ৭ থেকে ১৪ জানুয়ারি থেকে হবে ফিল্ম ফেস্টিভ্যাল।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.