×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

১৭ জুন ২০২১ ই-পেপার

জানলায় রাখা কৌটোয় বিস্ফোরক, খেলতে গিয়ে মায়ের বকায় বিপদ এড়াল শিশু

নিজস্ব সংবাদদাতা
বর্ধমান ১৯ এপ্রিল ২০২১ ১৯:১৯


নিজস্ব চিত্র

ফের বোমাতঙ্ক বর্ধমানে। নির্বাচনের কিছু দিন আগে রসিকপুরে বোমা ফেটে মৃত্যু হয় এক শিশুর। আহত হয় আরও এক শিশু। সেই আতঙ্কই যেন ফিরে এল। খেলতে খেলতে এক শিশু হাতে তুলে নিল একটি বিস্ফোরক ভর্তি কৌটো। তার মা দেখতে পেয়ে কোনও মতে সেটি সরিয়ে প্রাণে বাঁচালেন সন্তানকে। রবিবার বর্ধমান শহরের দুবরাজদিঘির হেরডাঙার এই ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে।

ওই শিশুর মা, জেভা পরভিন বলেন, ‘‘আমার এখনও আতঙ্ক কাটছে না। ঈশ্বরের কৃপায় আমরা বেঁচে গেছি। না হলে আমি, আমার সন্তান সবাই শেষ হয়ে যেতাম। খুব ভয় করছে এখনও।’’

স্থানীয়রা জানিয়েছেন, তৃণমূল কংগ্রেসের শ্রমিক সংগঠনের সভাপতি ইফতিকার আহম্মদের বাড়ির পাশে পড়েছিল ওই কৌটোটি। ওটিতে বিস্ফোরক, তার, সবাই ভরা ছিল। একই কথা জানিয়েছেন ইফতিকারও। তিনি বলেছেন, ‘‘আমার এক প্রতিবেশীর জানলায় ওই কৌটো রাখা ছিল। সেই কৌটোটিকে খেলার সামগ্রী ভেবে হাতে নিয়ে খেলতে শুরু করে শিশুটি। ওর মা দেখতে পেয়ে শিশুটির হাত থেকে ওই কৌটো কেড়ে নেন। তার পর দেখা যায় ওটিতে বিস্ফোরক ভর্তি। সঙ্গে সঙ্গে খবর দেওয়া হয় বর্ধমান থানায়।

Advertisement

ইফতিকারের অভিযোগ, ‘‘এই ঘটনার সঙ্গে যুক্ত বিজেপি। এলাকায় অশান্তি পাকানোর চেষ্টা করা হচ্ছে। তৃণমূলের ঘাড়ে দোষ চাপাতেই বিষয়টি পরিকল্পনা করে সাজানো হয়েছে। সাম্প্রতিক রাজনৈতিক সংঘর্ষের সময় এমনই একটি বিস্ফোরণে এক তৃণমূল কর্মী আহত হয়েছিলেন।’’

অন্য দিকে, বিজেপি-র শহর আহ্বায়ক কল্লোল নন্দনের দাবি, ‘‘যিনি বলছেন তাঁকেই কাল পুলিশ গ্রেফতার করেছিল। আর বিজেপি এ সব কাজ করে না। ওই এলাকাটি ওদেরই। আমাদের বোমা নিয়ে রাজনীতি করতে হয় না।’’

Advertisement