×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

২৩ জানুয়ারি ২০২১ ই-পেপার

বুনিয়াদপুর গেলেন না মুখ্যমন্ত্রী

অনুপরতন মোহান্ত
বালুরঘাট২২ অগস্ট ২০১৭ ০৪:০১
পাশে: গাজোলের আহোড়ায় মুখ্যমন্ত্রী। নিজস্ব চিত্র

পাশে: গাজোলের আহোড়ায় মুখ্যমন্ত্রী। নিজস্ব চিত্র

 প্রশাসনিক কর্তাদের সঙ্গে সমন্বয়ের অভাবে বন্যাকবলিত দক্ষিণ দিনাজপুরে ঢুকতেই পারলেন না মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। আর বুনিয়াদপুর-মালদহ ভায়া নালাগোলা সড়কে দেড় ঘণ্টা ধরে চরকি পাক খেলেন জেলার ডিএম-এসপিরা।

সোমবার সকালে মালদহ থেকে গাজোল হয়ে ৩৪ নম্বর জাতীয় সড়ক ধরে মুখ্যমন্ত্রীর বুনিয়াদপুরে আসার কথা ছিল। কিন্তু মাঝ রাস্তা থেকে মালদহ অভিমুখে রওনা হওয়া ডিএম এবং এসপি বুনিয়াদপুরে পৌঁছতে পারেননি শুনে মুখ্যমন্ত্রী গাজোল-বুনিয়াদপুরের শেষ সীমানা মেহেন্দিপাড়া থেকে ফের মালদহের দিক ঘুরে যান। সেখানে মালদহ এবং দুই দিনাজপুরের প্রশাসনিক কর্তা এবং জনপ্রতিনিধিদের নিয়ে
বৈঠক করে মুখ্যমন্ত্রী বন্যা পরিস্থিতির খবর নেন।

মুখ্যমন্ত্রী এ দিন বুনিয়াদপুরে কখন আসবেন, তা নিয়ে সকাল থেকে জেলা প্রশাসনের কাছে কোনও খবর ছিল না। বেলা ১১টা নাগাদ জেলাশাসক শরদকুমার দ্বিবেদী, পুলিস সুপার প্রসূন বন্দ্যোপাধ্যায় এবং গঙ্গারামপুরের মহকুমাশাসক বুনিয়াদপুর থেকে নালাগোলার রাস্তা ধরে মালদহের দিকে রওনা হন। মালদহের বুলবুলচন্ডীর কাছাকাছি পৌঁছতেই ডিএম-এসপি খবর পান মুখ্যমন্ত্রী গাজোল থেকে বুনিয়াদপুরে পৌঁছনোর জন্য মেহেন্দিপাড়ার দিকে রওনা হয়েছেন। ফের জেলাশাসক এবং পুলিশ সুপাররা গাড়ি ঘুরিয়ে বুনিয়াদপুরের দিকে ছোটেন।

Advertisement

কিন্তু মালদহের দিকে প্রায় ৭৫ কিলোমিটার পথ পেরিয়ে আসার পর বুনিয়াদপুরে পৌঁছতে ডিএম, এসপিদের দেরি হবে জেনে মুখ্যমন্ত্রীও তাঁদের মালদহে আসতে বলে মেহেন্দিপাড়া থেকে গাড়ি ঘুরিয়ে মালদহের দিকে রওনা হন। বুনিয়াদপুর-মালদহের মাঝামাঝি পাকুয়াহাট পেরিয়ে এসে ওই খবর পেয়ে ফের ডিএম, এসপি গাড়ি ঘুরিয়ে মালদহের দিকে রওনা হয়ে যান।

মালদহের ওই বৈঠকে জেলার মন্ত্রী বাচ্চু হাঁসদা, কুমারগঞ্জের বিধায়ক তোরাফ হোসেন মণ্ডল উপস্থিত ছিলেন। পরে বাচ্চুবাবু বলেন, ‘‘বন্যায় জেলার ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি ও ত্রাণের বিষয়টি তুলে ধরা হয়। মুখ্যমন্ত্রী ত্রাণ এবং ক্ষতিগ্রস্তদের সাহায্যের আশ্বাস দিয়েছেন।’’



Tags:
Flood Buniadpur Mamata Banerjee Reliefবুনিয়াদপুর

Advertisement