Advertisement
২৫ জুন ২০২৪
AICC plenary

রায়পুরের কংগ্রেস অধিবেশনে যাননি আব্দুল মান্নান, ফোন এআইসিসি নেতা পবন বনসলের

ছাত্রাবস্থা থেকে রাজনীতি শুরু করে দীর্ঘ রাজনৈতিক জীবনে কখনও যোগ দেননি অন্য দলে। এমন একজন বিশ্বস্ত নেতার কংগ্রেসের শীর্ষ অধিবেশন এড়িয়ে যাওয়ার বিষয়টি নজরে এসেছে এআইসিসির।

Congress leader Abdul Mannan has not gone to Raipur to attend the plenary of party

অনুপস্থিতির কারণ জানতে শনিবার অধিবেশনের প্রথম দিনেই আব্দুল মান্নানকে ফোন করেছিলেন এআইসিসির শীর্ষ নেতা পবন বনসল। — ফাইল চিত্র।

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা শেষ আপডেট: ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২৩ ১৩:৩৫
Share: Save:

ছত্তীসগঢ়ের রায়পুরে বসেছে কংগ্রেসের প্লেনারি অধিবেশন। দু’দিনের এই অধিবেশনে যোগ দিতে এসেছেন সারা দেশের বিভিন্ন প্রান্তে ছড়িয়ে-ছিটিয়ে থাকা এআইসিসির সদস্যরা। কিন্তু সেই অধিবেশনে যোগ দিতে যাননি পশ্চিমবঙ্গ প্রদেশ কংগ্রেসের প্রবীণ নেতা আব্দুল মান্নান। প্রায় ৫০ বছর ধরে তিনি বাংলার কংগ্রেসের সঙ্গে যুক্ত। ছাত্রাবস্থা থেকে কংগ্রেসের রাজনীতি শুরু করে তাঁর দীর্ঘ রাজনৈতিক জীবনে কখনও যোগ দেননি অন্য দলে। এমন একজন বিশ্বস্ত নেতার কংগ্রেসের শীর্ষ অধিবেশন এড়িয়ে যাওয়ার বিষয়টি নজরে এসেছে এআইসিসি নেতৃত্বের। তাঁর অনুপস্থিতির কারণ জানতে শনিবার অধিবেশনের প্রথম দিনেই মান্নান সাহেবকে ফোন করেছিলেন এআইসিসির শীর্ষ নেতা পবন বনসল। দুই নেতার মধ্যে দীর্ঘক্ষণ কথা হয় বলে সূত্রের খবর। কেন মান্নান এআইসিসির অধিবেশনে যোগ দিতে আসেননি? এমন প্রশ্নের উত্তর জানতে চান পবন। নিজের অনুপস্থিতির কারণ বিস্তারিত আকারে প্রাক্তন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী তথা কংগ্রেসের বরিষ্ঠ নেতা পবনকে জানিয়েছেন মান্নান, এমনটাই সূত্রের খবর।

এই মুহূর্তে প্রদেশ কংগ্রেস নেতা তথা রাজ্যসভার সাংসদ প্রদীপ ভট্টাচার্যের পর প্রবীণতম নেতা হলেন মান্নান। গত বিধানসভায় তিনিই ছিলেন কংগ্রেসের তরফে বিরোধী দলনেতা। তাই এমন একজন নেতার এআইসিসির অধিবেশনে যোগদান না করায় দলের অন্দরে প্রশ্ন উঠেছে। সূত্রের খবর, মান্নানের এআইসিসির অধিবেশনে অনুপস্থিত হওয়ার সিদ্ধান্ত জানতে পেরে তাঁকে ছত্তীসগঢ় যেতে একাধিক বার অনুরোধ করেছিলেন কংগ্রেস নেতা অমিতাভ চক্রবর্তী এবং ৪৫ নম্বর ওয়ার্ডের কংগ্রেস কাউন্সিলর সন্তোষ পাঠক। কিন্তু সেই অনুরোধে কান না দিয়ে নিজের অবস্থানেই অনড় থেকেছেন মান্নান। তাঁর অধিবেশনে অনুপস্থিত হওয়ার কারণ জানতে প্রশ্ন করা হলে এই প্রবীণ কংগ্রেস নেতা বলেন, ‘‘আমি ব্যক্তিগত কারণে রায়পুর যেতে পারিনি।’’ এআইসিসি নেতা পবন তাঁকে ফোন করেছিলেন, তা স্বীকার করে নিলেও, তাঁদের মধ্যে কী কথা হয়েছে, তা জানাতে চাননি মান্নান।

তবে প্রদেশ কংগ্রেসের একটি সূত্র জানাচ্ছে, বর্তমান রাজ্য নেতৃত্বের সঙ্গে বনিবনা না হওয়াতেই রায়পুরের অধিবেশনে যাননি মান্নান। গত কয়েক বছর ধরে প্রদেশ কংগ্রেসের সদর দফতর বিধান ভবনেও যাওয়া বন্ধ করেছেন তিনি। কলকাতায় এলে পরিচিতদের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেই নিজের চাঁপদানীর বাড়িতে ফিরে যান। ২০২১ সালের বিধানসভা নির্বাচনে পরাজয়ের পর নিজেকে অনেকটা গুটিয়ে নিয়েছিলেন প্রাক্তন বিরোধী দলনেতা। কিন্তু দীর্ঘ সময় পর গত ডিসেম্বর মাসে কংগ্রেসের কোনও কর্মসূচিতে দেখা গিয়েছিল তাঁকে। সে বার গঙ্গাসাগরে ভারত জোড়ো যাত্রায় অংশগ্রহণ করতে দেখা গিয়েছিল মান্নানকে। কিন্তু ফের কংগ্রেসের জাতীয় স্তরের সম্মেলন থেকে নিজেকে দূরে সরিয়ে নিয়েছেন তিনি। তবে দল বদলের ইঙ্গিত উড়িয়ে দিয়ে মান্নানের বলেন, ‘‘রায়পুরে না গেলেও কংগ্রেসেই ছিলাম, কংগ্রেসই আছি, কংগ্রেসেই থাকব।’’

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)

অন্য বিষয়গুলি:

Abdul Mannan Congress Leader Congress
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement

Share this article

CLOSE