Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৬ জানুয়ারি ২০২২ ই-পেপার

বাড়ি গিয়ে ন্যাপকিন, কোয়রান্টিন ক্লাসরুম

কয়েকটি ফোন নম্বর দিয়ে মহিলা সমিতি জানিয়েছে, দরিদ্র এবং বাড়ি থেকে বেরোতে না পারা মহিলাদের কাছে ন্যাপকিন পৌঁছে দেবেন তাদের কর্মীরা।

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা ৩০ মার্চ ২০২০ ০৩:২৪
প্রতীকী ছবি।

প্রতীকী ছবি।

লকডাউনে বিপন্ন নানা ধরনের মানুষকে নিজেদের মতো করে সাহায্য করছে রাজনৈতিক দল ও সামাজিক সংগঠনগুলি। এ বার মহিলা এবং ছাত্রছাত্রীদের জন্য বিশেষ সাহায্যে এগিয়ে এল পশ্চিমবঙ্গ গণতান্ত্রিক মহিলা সমিতি এবং এসএফআই। লকডাউন-পর্বে প্রয়োজনমতো মহিলাদের কাছে স্যানিটারি ন্যাপকিন পৌঁছে দেওয়ার দায়িত্ব নিয়েছে মহিলা সমিতি। আর উচ্চ শিক্ষার পড়ুয়াদের বাড়িতে বসেই শিক্ষকদের কাছে পড়াশোনার বন্দোবস্ত করছে এসএফআই।

মহিলা সমিতির রাজ্য সম্পাদক কনীনিকা বসুর মতে, ‘‘ঋতুচক্রে স্যানিটারি ন্যাপকিন পরিচ্ছন্ন ভাবে ব্যবহারের গুরুত্ব সম্পর্কে আমাদের দেশের মহিলাদের সচেতনতার অভাব আছে। দারিদ্র্যের কারণেও বহু মহিলা ন্যাপকিন কিনতে পারেন না। নানা ধরনের সংক্রমণের শিকার হন বহু মহিলাই। এখন সেই ধরনের রোগ হলে তাঁরা করোনার সঙ্গে লড়তে পারবেন না। করোনা মোকাবিলায় সব মানুষেরই রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে বলছেন বিশেষজ্ঞরা। তাই মহিলাদের ক্ষেত্রে এই দিকটিতে নজর দিতে চাইছি আমরা।’’ কয়েকটি ফোন নম্বর দিয়ে মহিলা সমিতি জানিয়েছে, দরিদ্র এবং বাড়ি থেকে বেরোতে না পারা মহিলাদের কাছে ন্যাপকিন পৌঁছে দেবেন তাদের কর্মীরা।

পাশাপাশি, দেশজোড়া লকডাউনের মধ্যেও লেখাপড়ায় যাতে লকডাউন না হয়, তার জন্য উচ্চ শিক্ষার বিভিন্ন বিষয় নিয়ে কোয়রান্টিন ক্লাসরুম চালু করতে চলেছে এসএফআই। সংগঠনের রাজ্য সম্পাদক সৃজন ভট্টাচার্যের বক্তব্য, রাজ্য এসএফআইয়ের ফেসবুক পেজে বিভিন্ন বিষয়ে শিক্ষকদের লেকচারের ভিডিয়ো আপলোড করা হবে। ধীরে ধীরে বাড়ানো হবে বিষয়। সৃজন বলেন, ‘‘এখন যে হেতু কলেজগুলিতে সিবিসিএস পদ্ধতিতে পড়াশোনা হয়, ফলে সেমেস্টারের পড়া শেষ করার তাড়া থাকে। তাই এই উদ্যোগ।’’

Advertisement

(অভূতপূর্ব পরিস্থিতি। স্বভাবতই আপনি নানান ঘটনার সাক্ষী। শেয়ার করুন আমাদের। ঘটনার বিবরণ, ছবি, ভিডিয়ো আমাদের ইমেলে পাঠিয়ে দিন, feedback@abpdigital.in ঠিকানায়। কোন এলাকা, কোন দিন, কোন সময়ের ঘটনা তা জানাতে ভুলবেন না। আপনার নাম এবং ফোন নম্বর অবশ্যই দেবেন। আপনার পাঠানো খবরটি বিবেচিত হলে তা প্রকাশ করা হবে আমাদের ওয়েবসাইটে।)

আরও পড়ুন

Advertisement