Advertisement
৩০ নভেম্বর ২০২২
Cyclone Amphan

দুই ২৪ পরগনায় দুর্যোগ সামলাতে যুদ্ধকালীন তৎপরতা: মমতা

আমপানের জেরে রাজ্যের ৬০ শতাংশ মানুষ ক্ষতিগ্রস্ত, জানালেন মুখ্যমন্ত্রী।

ছবি: মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ফেসবুক অ্যাকাউন্ট থেকে সংগৃহীত।

ছবি: মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ফেসবুক অ্যাকাউন্ট থেকে সংগৃহীত।

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা শেষ আপডেট: ২৭ মে ২০২০ ১৬:০১
Share: Save:

ঘূর্ণিঝড় আমপান (প্রকৃত উচ্চারণ উম পুন) পরবর্তী অবস্থা মোকাবিলায় তৎপর রাজ্য সরকার। রাজ্যের বিভিন্ন জেলায় পরিস্থিতি স্বাভাবিক করতে যুদ্ধকালীন তৎপরতায় কাজ করা হচ্ছে। বুধবার নবান্নে প্রশাসনিক বৈঠকে এমনটাই জানালেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সেই সঙ্গে তাঁর দাবি, পরিযায়ী শ্রমিক-সহ ভিন্‌ রাজ্য থেকে বহু মানুষ এ রাজ্যে ঢুকছেন, যাঁদের অনেকেই সংক্রমিত। যার ফলে এ রাজ্যের করোনা-পরিস্থিতি বিগড়ে যেতে পারে। তাঁর মতে, রাজ্য়ের সঙ্গে পরিকল্পনা করে এ বিষয়ে পদক্ষেপ করা উচিত ছিল কেন্দ্রীয় সরকারের।

Advertisement

এ দিন জেলাশাসকদের সঙ্গে ভিডিয়ো কনফারেন্সের মাধ্যমে বৈঠক করেন মুখ্যমন্ত্রী। সেখানে আমপান-পরবর্তী অবস্থা সামলাতে রাজ্য সরকারের বিভিন্ন পদক্ষেপ সম্পর্কে জানান তিনি।

এক নজরে মুখ্যমন্ত্রীর বক্তব্য:

Advertisement

• সিইএসসি জানিয়েছে, ৩৩ লক্ষ গ্রাহকের মধ্যে আজ, বুধবার সন্ধ্যার মধ্য়ে ৩২ লক্ষ ৭ হাজার গ্রাহকের বাড়িতে বিদ্যুৎ ফিরবে।

• রাজ্য়ের ১০ লক্ষ ঘরবাড়ি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। তাঁদের সকলের জন্য ২০ হাজার টাকা করে দেওয়া হবে।

• করোনা নিয়ে রাজনীতি করার চেষ্টা হচ্ছে।

• রাজ্যের করোনা-পরিস্থিতি ফের খারাপ হতে পারে।

• আমাদের সঙ্গে কথা বলে কেন্দ্র পরিযায়ীদের নিয়ে পরিকল্পনা করতে পারত।

• এ ব্যাপারে আমি খুব চিন্তায় আছি। রেড, অরেঞ্জ, গ্রিন জোন মানলে এই সমস্যা হত না।

• ভিন্‌‌ রাজ্য থেকে যাঁরাই আসছেন, তাঁদের অনেকেই সংক্রমিত।

• এত লোককে পরীক্ষা করব কী করে?

• একসঙ্গে ৩৬টি ট্রেন মুম্বই থেকে ছাড়া হচ্ছে বলে জানলাম।

• রাজ্যে করোনা সংক্রমণ বাড়লে দায় কে নেবে?

• একসঙ্গে অনেক পরিযায়ী ঢুকছেন।

• করোনা এক সময় নিয়ন্ত্রণে এসেছিল।

• সংক্রমণ ঠেকাতে রেল মন্ত্রকের কোনও দায় নেই?

• আজ রাজ্য ১১টি ট্রেন আসছে, কাল ১৭টি ট্রেন।

• প্রধানমন্ত্রী-স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে অনুরোধ করব, করোনা সংক্রমণ ঠেকাতে হস্তক্ষেপের জন্য।

• যুদ্ধকালীন তৎপরতায় বাঁধ মেরামতি করা হচ্ছে।

• দুই ২৪ পরগনায় আমপান পরবর্তী দুর্যোগ-পরিস্থিতি সামলাতে যুদ্ধকালীন তৎপরতায় কাজ করা হচ্ছে।

• টাস্ক ফোর্সে বিডিও-আইসি-বিধায়কেরা থাকবেন।

• জেলায় জেলায় টাস্ক ফোর্স গঠন করা হচ্ছে।

• আমপানের জন্য রাজ্য়ের ৬০ শতাংশ এলাকা ক্ষতিগ্রস্ত।

• জেলাশাসকদের বলব, ত্রাণসামগ্রী মানুষের কাছে পৌঁছে দিতে হবে।

• একসঙ্গে লক্ষ লোক এলে কী করা যাবে?

• রাজ্যে ইতিমধ্যেই ৫ লক্ষ লোক এসে গিয়েছে।

• মহারাষ্ট্র, মধ্যপ্রদেশ, গুজরাত, চেন্নাই, দিল্লি থেকে পরিযায়ীরা আসছেন। এ সব জায়গা থেকে এলেই হোম কোয়রান্টিনে থাকতে হবে। এ ছাড়া, স্কুলে স্কুলে কোয়রান্টিনে থাকতে হবে।

• করোনা নিয়ে বিশেষ সতর্কতায় পাঁচ রাজ্য থেকে লোক এলে ঘরেই কোয়রান্টিন।

• জল না সরলে বিদ্যুতের খুঁটি বসানো যাবে না।

• রাজ্যের ৯০ শতাংশ এলাকায় বিদ্যুৎ ফিরেছে।

• রাজ্যে যুদ্ধকালীন তৎপরতায় কাজ চলছে যাতে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়।

• আমপানে সুন্দরবনের সর্বনাশ হয়ে গিয়েছে।

• দমকলকর্মীর মৃত্যুর ঘটনায় তদন্ত করা হবে।

• সেই সঙ্গে ওই দমকলকর্মীর পরিবার থেকে এক জনকে চাকরি দেওয়া হবে।

• হাওড়ায় মৃত দমকলকর্মীর পরিবারকে ১০ লক্ষ টাকা ক্ষতিপূরণ দেওয়া হবে।

• হাওড়ায় বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে এক দমকলকর্মীর মৃত্যু।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.