Advertisement
২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২৪
Dipankar Bhattacharya

BJP History: ইতিহাস লুটছে ওরা, সুভাষ-বিবেকানন্দকে নিয়ে মিথ্যাচার করছে বিজেপি: দীপঙ্কর

বিজেপি-র বিরুদ্ধে ইতিহাস বিকৃতির অভিযোগ বার বার তুলেছে বিরোধীরা। আনন্দবাজার অনলাইনকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে তারই অনুরণন দীপঙ্করের গলায়।

বিজেপি-র বিরুদ্ধে ইতিহাস বিকৃতির অভিযোগ দীপঙ্কর ভট্টাচার্যের।

বিজেপি-র বিরুদ্ধে ইতিহাস বিকৃতির অভিযোগ দীপঙ্কর ভট্টাচার্যের। — ফাইল চিত্র

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা শেষ আপডেট: ২১ নভেম্বর ২০২১ ১১:১৮
Share: Save:

বিজেপি-র বিরুদ্ধে ইতিহাস বিকৃত করার অভিযোগ তুললেন সিপিআইএমএল লিবারেশনের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক দীপঙ্কর ভট্টাচার্য। তাঁর মতে, দেশীয় সম্পত্তি বিক্রি করে দেওয়ার মতো বিজেপি ইতিহাস ‘জবরদখল’ করে নিচ্ছে। ইতিহাসের গৈরিকীকরণের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ানোর আহ্বান জানিয়েছেন ওই নকশাল নেতা।
বিজেপি-র বিরুদ্ধে ইতিহাস বিকৃতির অভিযোগ বার বার তুলেছে বিরোধীরা। শনিবার আনন্দবাজার অনলাইনকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে তারই অনুরণন শোনা গেল দীপঙ্করের গলায়। তাঁর মতে, ‘‘বিজেপি যে ভাবে ইতিহাস বদলাচ্ছে তা মারাত্মক। ওরা ইতিহাসের সিলেবাস বদলাচ্ছে।’’ এর ‘কুফল’ তুলে ধরে দীপঙ্কর বলেন, ‘‘ইতিহাস না বাঁচাতে পারলে, আজ থেকে ১০ বছর বাদে যদি একটি শিশুকে জিজ্ঞাসা করা হয় যে ভারতের এক জন সবচেয়ে বড় স্বাধীনতা সংগ্রামীর নাম করো। সে অবলীলাক্রমে বলবে নরেন্দ্র মোদী। কারণ টিকার শংসাপত্র থেকে শুরু করে সর্বত্র সে এটাই দেখছে।’’

ইতিহাস বিকৃতির প্রসঙ্গে বলতে গিয়ে বিনায়ক দামোদর সাভারকরের কথা তোলেন দীপঙ্কর। বলেন, ‘‘আমরা বটুকেশ্বর দত্তের জন্মদিন পালন করলাম। তার কারণ তিনি ভগৎ সিংহের সঙ্গে ছিলেন। ভগৎ সিংহের ফাঁসি হয়। আর বটুকেশ্বর দত্তকে আন্দামান জেলে পাঠানো হয়। আন্দামান জেলে বাংলা, বিহার, পঞ্জাব থেকে কত মানুষ গিয়েছিলেন। তার মধ্যে হাতে গোটা দু’টি নাম পাওয়া যাবে যাঁরা ক্ষমা চেয়ে সেখান থেকে পালিয়ে এসেছিলেন। যাঁরা ক্ষমা চেয়ে বেরিয়ে এসেছিলেন সেই সাভারকরকে আজ বিজেপি বলছে ‘বীর সাভারকর’। তিনি না কি স্বাধীনতা আন্দোলনের বড় নেতা!’’

আনন্দবাজার অনলাইনের সম্পাদক অনিন্দ্য জানার সঙ্গে দীপঙ্কর ভট্টাচার্যের আলাপচারিতা।

দীপঙ্করের মতে, ‘‘নেহরু এবং গাঁধীকে বাদ দিয়ে বাকি সকলকে বিজেপি দখল করার চেষ্টা করছে।’’ তাঁর অভিযোগ, ‘‘বিজেপি ইতিহাস লুঠ করছে। ঠিক যে ভাবে জল, জঙ্গল, জমি, সম্পত্তি, রেলপথ, রাস্তাঘাট সমস্ত সম্পত্তি বিক্রি হচ্ছে সে ভাবে ইতিহাসও জবরদখল করার চেষ্টা হচ্ছে। সুভাষচন্দ্র বসুর সঙ্গে বিজেপি-র কী সম্পর্ক? সুভাষচন্দ্র বসু বামপন্থী নেতা ছিলেন। তাঁর সঙ্গে হয়তো কমিউনিস্টদের কৌশলগত মতপার্থক্য রয়েছে। হয়তো কমিউনিস্টরা কিছু কটূক্তি করেছে। সেটা হয়তো ভুল হয়েছে। সেটা আলাদা প্রসঙ্গ। কিন্তু সুভাষচন্দ্র বসু আদ্যোপান্ত একজন বামপন্থী এবং ধর্মনিরপেক্ষ নেতা। তিনি হিন্দু মহাসভার বিরুদ্ধে ছিলেন। তিনি আরএসএস-এর বিরুদ্ধে ছিলেন। আজকে এঁদের জবরদখল করার চেষ্টা হচ্ছে। ইতিহাস, সংস্কৃতি সবকিছু দখলের চেষ্টা হচ্ছে। বিবেকানন্দের সঙ্গে বিজেপি-র কী সম্পর্ক? বিবেকানন্দের ছবি নিয়ে দাঙ্গা করে বেড়াচ্ছে? ইতিহাস এবং ঐতিহ্যকে সামলাতে না পারলে বিজেপি লুঠ করে নেবে, দখল করে নেবে। বিকৃত করে ফেলবে। এটা বড় লড়াই।’’

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement

Share this article

CLOSE