Advertisement
২১ ফেব্রুয়ারি ২০২৪
Sujay Krishna Bhadra

‘কালীঘাটের কাকু’কে নিয়ে যেতে পারল না ইডি, সাড়ে ছ’ঘণ্টা পর এসএসকেএম থেকে বেরোল অ্যাম্বুল্যান্স

সুজয়কৃষ্ণের অসুস্থতা নিয়ে এসএসকেএমের সুপার পীযূষ রায়কে প্রশ্ন করা হলে তিনি এই বিষয়ে কিছু বলতে চাননি। জানিয়েছেন, যা বলার তিনি ইডিকে বলেছেন। সংবাদমাধ্যমকে এই বিষয়ে কিছু বলবেন না।

ED failed to take Sujaykrishna Bhadra alias \\\\\\\'Kalighaer Kaku\\\\\\\' to Jokar ESI hospital

সুজয়কৃষ্ণ ভদ্র ওরফে কালীঘাটের কাকু। —ফাইল চিত্র ।

আনন্দবাজার অনলাইন সংবাদদাতা
কলকাতা শেষ আপডেট: ০৮ ডিসেম্বর ২০২৩ ১৬:৩২
Share: Save:

সুজয়কৃষ্ণ ভদ্র ওরফে ‘কালীঘাটের কাকু’কে জোকার ইএসআই হাসপাতালে নিয়ে যেতে ব্যর্থ হল ইডি। শুক্রবার সকালেই এসএসকেএম হাসপাতালে পৌঁছে গিয়েছিলেন ইডি কর্তারা। সঙ্গে নিয়ে যাওয়া হয়েছিল অত্যাধুনিক অ্যাম্বুল্যান্সও। কিন্তু হাসপাতাল সূত্রে খবর মেলে, আচমকাই ‘কাকু’র শারীরিক অবস্থার অবনতি হয়েছে। বুকে ব্যথা অনুভব করায় তাঁকে কেবিন থেকে সরিয়ে হৃদ্‌রোগ বিভাগের আইসিসিইউতে নিয়ে যাওয়া হয়। যার ফলে তাঁকে আদৌ ইএসআই হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া সম্ভব হবে কি না, তা নিয়ে তৈরি হয়েছিল সংশয়। শেষ পর্যন্ত, ‘কাকু’কে না নিয়েই ফিরে যেতে হল ইডি। শুক্রবার দুপুর আড়াইটে নাগাদ এসএসকেএম থেকে বেরিয়ে যেতে দেখা যায় ইডির নিয়ে আসা অ্যাম্বুল্যান্সটিকেও।

ইডি জানিয়েছে, সুজয়কৃষ্ণ আইসিসিইউ-তে ভর্তি আছেন বলেই তাঁকে নিয়ে যাওয়ার সম্ভব হল না। কেন্দ্রীয় সংস্থার তদন্তকারী আধিকারিক মিথিলেশ কুমার মিশ্র বলেন, ‘‘সব বিষয় খতিয়ে দেখে পরবর্তী পদক্ষেপ করা হবে।’’

ইডি সূত্রে আগেই জানা গিয়েছিল যে, শুক্রবারই সুজয়কৃষ্ণের গলার স্বরের নমুনা সংগ্রহ করে তা পরীক্ষার জন্য পাঠাতে চায় তারা। নিয়োগ মামলায় সুজয়কে গ্রেফতার করেছে ইডি। তিনি দীর্ঘ দিন ধরেই এসএসকেএম হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। তাঁর গলার স্বরের নমুনা অনেক দিন ধরে সংগ্রহ করার চেষ্টা করছে কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থাটি। কিন্তু বার বার তাতে বাধা আসছে বলে অভিযোগ। এ প্রসঙ্গে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের ভূমিকা নিয়েও ইডি প্রশ্ন তুলেছে। অন্য দিকে, এসএসকেএম থেকে জানানো হয়েছে, গলার স্বরের নমুনা দিতে প্রস্তুত নন সুজয়। আদালতের নির্দেশ সত্ত্বেও তাই তাঁর স্বরের নমুনা সংগ্রহ করা যায়নি এত দিন।

সুজয়কৃষ্ণের অসুস্থতা নিয়ে এসএসকেএমের সুপার পীযূষ রায়কে প্রশ্ন করা হলে তিনি এই বিষয়ে কিছু বলতে চাননি। জানিয়েছেন, যা বলার তিনি ইডিকে বলেছেন। সংবাদমাধ্যমকে এই বিষয়ে কিছু বলবেন না।

আদালতের নির্দেশে ‘কালীঘাটের কাকু’র স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য তাই জোকা ইএসআই হাসপাতালে মেডিক্যাল বোর্ড গঠন করা হয়। বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকদের নিয়ে গঠিত সেই বোর্ড বিবেচনা করে দেখবে, আদৌ সুজয় গলার স্বরের নমুনা দিতে শারীরিক ভাবে প্রস্তুত কি না।

হাসপাতাল সূত্রে জানা যায়, শুক্রবার সুজয়কে ইএসআই হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হবে। সেখানে আগে মেডিক্যাল বোর্ড তাঁর স্বাস্থ্য পরীক্ষা করে দেখবে। যদি তাঁরা সবুজ সঙ্কেত দেন, তবেই সংগ্রহ করা যাবে ‘কাকু’র গলার স্বরের নমুনা। ইতিমধ্যে এসএসকেএম হাসপাতাল থেকে সুজয়ের স্বাস্থ্য পরীক্ষার রিপোর্ট ইডিকে দেওয়া হয়েছে। ওই হাসপাতালে ভর্তি আছেন রেশন দুর্নীতি মামলায় ধৃত রাজ্যের মন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিকও। তাঁর স্বাস্থ্য পরীক্ষার রিপোর্টও ইডিকে পাঠিয়েছেন হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ।

প্রসঙ্গত, নিয়োগ মামলার তদন্ত করতে গিয়ে ইডি একটি বিশেষ অডিয়ো রেকর্ডিং পায়। সেখানে সুজয়ের গলার স্বর শোনা গিয়েছে বলে দাবি। কিন্তু তা প্রমাণসাপেক্ষ। সেই কারণেই সুজয়ের গলার স্বরের সঙ্গে ওই নমুনা মিলিয়ে দেখা হবে। শুক্রবার সেই নমুনা সংগ্রহ করা যায় কি না, তা অবশ্য সময়ই বলবে।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement

Share this article

CLOSE