Advertisement
০৪ ডিসেম্বর ২০২২
tree

সাফ হচ্ছে হুগলির একের পর এক আমবাগান, অভিযোগ পেয়ে রুখলেন বননিগমের চেয়ারম্যান

পোলবার রাজহাট গ্রাম পঞ্চায়েতের কোরলা মোড় থেকে পাঁচরখি যাওয়ার পথে দিল্লি রোড সংলগ্ন এমনই একটি আমবাগানের গাছ কাটা শুরু হয়েছিল শুক্রবার সকাল থেকে।

এই ভাবেই কাটা হচ্ছিল আম গাছ।

এই ভাবেই কাটা হচ্ছিল আম গাছ। — নিজস্ব চিত্র।

নিজস্ব সংবাদদাতা
চুঁচুড়া শেষ আপডেট: ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২২ ১৮:১৭
Share: Save:

পঞ্চমী থেকে রাজ্য সরকারের বিভিন্ন দফতরে পুজোর ছুটি। এই পরিস্থিতিতে বেআইনি ভাবে বিঘের পর বিঘে জমিতে আমগাছ কাটার অভিযোগ উঠল হুগলির পোলবায়। খবর পেয়ে প্রশাসনকে নির্দেশ দিয়ে গাছকাটা রুখলেন বননিগমের চেয়ারম্যান তথা হুগলির আদিসপ্তগ্রামের তৃণমূল বিধায়ক তপন দাশগুপ্ত।

Advertisement

হুগলির পোলবা ব্লকের কুন্তী এবং সরস্বতী নদী অববাহিকায় বিস্তীর্ণ এলাকা সবুজে ঘেরা। এখানে রয়েছে নানান জাতের বড় বড় আম গাছ। পোলবার রাজহাট গ্রাম পঞ্চায়েতের কোরলা মোড় থেকে পাঁচরখি যাওয়ার পথে দিল্লি রোড সংলগ্ন এমনই একটি আমবাগানের গাছ কাটা শুরু হয়েছিল শুক্রবার সকাল থেকে। খবর পৌঁছয় তৃণমূল বিধায়কের কানে। এই ঘটনার কথা প্রশাসনকে জানান তিনি। পোলবা থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছয়। এর পর পুলিশের হস্তক্ষেপে বন্ধ হয়ে যায় গাছ কাটার কাজ। তপন বলেন, ‘‘সবুজ ধ্বংস কোনও ভাবেই বরদাস্ত করা হবে না। রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় নিজেই সবুজায়নে উদ্যোগী। বাংলা জুড়ে নতুন করে বৃক্ষ রোপণের নির্দেশ দিয়েছেন তিনি। বিভিন্ন সরকারি অনুষ্ঠানে চারাগাছ প্রদান করা হয়। সাধারণ মানুষকে গাছ লাগাতে উৎসাহ দেওয়া হয়। এ ছাড়া ওই এলাকার বাগানে অসংখ্য ময়ূরের বাস।’’ভবিষ্যতেও বিষয়টির উপর নজর রাখার জন্য প্রশাসনকে নির্দেশ দিয়েছেন তিনি।

এ নিয়ে রাজহাট গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধান লিপিকা কাঁঠালি বলেন, ‘‘গাছ কাটার বিষয়টি আমার জানা নেই। যদি এমন হয়, যে ক্ষেত্রে প্রশাসন যদি আমাদের সাহায্য চায় তা হলে আমরা তা করব।’’

Advertisement
(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.