Advertisement
১৬ এপ্রিল ২০২৪
Mamata Banerjee

ধনখড় সই করে যাননি! হাওড়ার পুরভোটের জট খুলতে আরও একটি বিল আনছেন মমতা

হাওড়া পুরসভা নিয়ে আবার একটি বিল আনা হবে পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভায়। আগামী ১৪-২২ সেপ্টেম্বর বসছে বিধানসভার এই স্বল্পকালীন অধিবেশন।

তৎকালীন রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড় সই করেননি, হাওড়া পুরসভা নিয়ে আরও একটি বিল আনছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

তৎকালীন রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড় সই করেননি, হাওড়া পুরসভা নিয়ে আরও একটি বিল আনছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা শেষ আপডেট: ৩১ অগস্ট ২০২২ ১৩:১৭
Share: Save:

আবারও স্বল্পকালীন অধিবেশন বসতে চলেছে পশ্চিমবঙ্গ বিধানসভার। সেই অধিবেশনে আসতে পারে হাওড়া পুর নিগম বিল। গত বছর নভেম্বর মাসেই হাওড়া পুরসভা ও বালি পুরসভাকে আলাদা করতে একটি বিল পাশ হয়েছিল। কিন্তু তৎকালীন রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড় সেই বিলে সায় না দেওয়ায় শেষ পর্যন্ত রাজভবনে আটকে ছিল সেই বিলটি। কিন্তু এ বার বিলটি সম্পূর্ণ আলাদা ভাবে আনা হচ্ছে বলে খবর। সে বার বিলটি যে বিলটি হওড়া পুরসভা থেকে বালিকে আলাদা করার জন্য আনা হয়েছিল, সেই বিলটি বহাল থাকছে। বর্তমান রাজ্যপাল লা গনেশন সেই বিলে স্বাক্ষর না করলেও অপেক্ষা করতে চায় রাজ্য সরকার। কিন্তু এ বারের বিলটি আনা হচ্ছে হাওড়া পুরসভাকে নতুন করে সাজাতে। আগামী ১৪-২২ সেপ্টেম্বর বসছে বিধানসভার এই স্বল্পকালীন অধিবেশন।

সূত্রের খবর, বালিকে বিচ্ছিন্ন করার পর হাওড়ায় বর্তমানে ৫০টি ওয়ার্ড রয়েছে। সেই ওয়ার্ডের সংখ্যা এ বারের পুর নির্বাচনে বাড়ানো হতে পারে। সে ক্ষেত্রে ওয়ার্ডের সংখ্যা হতে পারে ৫৭ থেকে ৬০ পর্যন্ত। বিল পাশ করিয়ে নির্বাচন কমিশন হাওড়া পুরসভায় আসন পুনর্বিন্যাসের কাজে হাত দিতে পারে বলেই খবর। যদিও, এমনিতেই সেই কাজ হতে পারত। কিন্তু, যে হেতু বালি এবং হাওড়া পুরসভাকে আবার আলাদা করে দু’টি নতুন পুরসভা তৈরি করা হচ্ছে, তাই এই বিল পাশ হওয়া জরুরি হয়ে পড়েছে। আগের বিলটি অপেক্ষায় থাকলেও ফের একটি নতুন বিল পাশ করিয়ে রাজভবনে পাঠাতে চায় পুর ও নগরোন্নয়ন দফতর। তার পর আলোচনার ভিত্তিতে রাজভবনের সঙ্গে কথা বলে দুটি বিল একত্রে আইন করে, তা কার্যকর করতে চাইছেন পুর ও নগরোন্নয়ন দফতরের কর্তারা। এই পর্ব মিটে গেলে আগামী নভেম্বর- ডিসেম্বর মাসে উৎসবের মরসুম শেষ হলেই হাওড়া ও বালিতে একযোগে ভোট হতে পারে।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE