Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২৩ অক্টোবর ২০২১ ই-পেপার

প্রজাতন্ত্র দিবসে দেশের বিকৃত ম্যাপ! তুমুল বিতর্কে কলকাতা পুরসভা

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা ২৬ জানুয়ারি ২০২০ ১৮:১৩
এই শুভেচ্ছাবার্তা ঘিরেই বিতর্ক। ছবি: ফেসবুক থেকে সংগৃহীত।

এই শুভেচ্ছাবার্তা ঘিরেই বিতর্ক। ছবি: ফেসবুক থেকে সংগৃহীত।

ভারতের বিকৃত মানচিত্র। তা-ও আবার কলকাতা পুরসভার শুভেচ্ছাবার্তায়! প্রজাতন্ত্র দিবস উপলক্ষে কলকাতা পুরসভার ফেসবুক পেজে পোস্ট করা হয়েছিল শুভেচ্ছাবার্তাটি। কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই তুমুল বিতর্ক তৈরি হয়েছে বিষয়টি নিয়ে। ডেপুটি মেয়র বলেছেন— যদি এমনটা হয়ে থাকে, তা হলে ভুল হয়েছে। মেয়রের বিরুদ্ধে পদক্ষেপের দাবি তুলেছে সিপিএম। আর বিজেপি একযোগে নিশানা করেছে মুখ্যমন্ত্রী এবং মেয়রকে। মেয়র জানিয়েছেন, ইতিমধ্যেই তদন্তের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। উপযুক্ত পদক্ষেপ করা হবে।

দেশের ৭১তম প্রজাতন্ত্র দিবস উপলক্ষে রবিবার সকালে নিজেদের ফেসবুক পেজে একটি শুভেচ্ছাবার্তা পোস্ট করে কলকাতা পুরসভা। মেয়র ফিরহাদ হাকিমের ছবি এবং কলকাতা পুরসভার লোগো সম্বলিত সেই শুভেচ্ছায় লেখা হয়, ‘‘এই প্রজাতন্ত্র দিবস, গাঢ় হোক একতার রঙ!’’

কিন্তু তেরঙায় রাঙানো সেই শুভেচ্ছা বার্তায় ভারতের যে মানচিত্রের ছবিটি দেওয়া হয়, সেটি বিকৃত। মানচিত্রে পাক অধিকৃত কাশ্মীর এবং চিনের কব্জায় থাকা আকসাই চিনকে বাদ দেওয়া হয়েছে ভারত থেকে। এই বিষয়টি নজরে আসতেই তুমুল হইচই শুরু হয় নানা মহলে।

Advertisement



পাকিস্তান এবং চিন যে মানচিত্র প্রকাশ করে, তাতে ভারতকে ওই ভাবে দেখানো হয়। অর্থাৎ পাক অধিকৃত কাশ্মীরকে পাকিস্তানের এবং আকসাই চিনকে চিনের অংশ হিসেবে দেখানো হয় ওই সব মানচিত্রে। কিন্তু ভারত কখনও ওই দুই অঞ্চলের উপরে নিজেদের দাবি ছাড়েনি। পাক অধিকৃত কাশ্মীর এবং আকসাই চিন ভারতের অবিচ্ছেদ্য অংশ বলে ভারত সরকার বরাবর দাবি করে এসেছে। ভারতের মানচিত্র থেকে যেন ওই দুই অঞ্চলকে বাদ দিয়ে দেখানো না হয়— এ বার্তা গুগ্‌লকেও দিয়ে রেখেছে নয়াদিল্লি। এত কিছুর পরেও কলকাতা পুরসভার শুভেচ্ছাবার্তায় দেখানো মানচিত্রে ওই দুই অঞ্চল বাদ পড়ায় বড়সড় বিতর্ক তৈরি হয়েছে।

কী ভাবে ঘটল এই ঘটনা? কে তৈরি করলেন এই শুভেচ্ছাবার্তা? মেয়র ফিরহাদ হাকিম বা পুরসভার অন্য কোনও কর্তার চোখে কি ধরাই পড়ল না বিষয়টা? এমন নানা প্রশ্ন তৈরি হয়েছে পুরসভার ফেসবুক পোস্টটিকে ঘিরে।

বিষয়টি সম্পর্কে কলকাতার মেয়র ফিরহাদ হাকিম বলেছেন, "কী হয়েছে আমি জানতাম না। আমার নজরে একেবারেই পড়েনি। ইতিমধ্যেই তদন্তের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। উপযুক্ত পদক্ষেপ করা হবে।’’ আর ডেপুটি মেয়র অতীন ঘোষ বলেছেন, ‘‘যদি এটা হয়ে থাকে, তা হলে ভুল হয়েছে। এ রকম হওয়া উচিত নয়।’’

আরও পড়ুন: কুশলী কেন্দ্র! বাংলার ট্যাবলো বাদ, রবীন্দ্রসঙ্গীতে বাউল নৃত্য কুচকাওয়াজে​

বিজেপি প্রশ্ন তুলছে— যে বিষয়ে ভারত সরকার এত সংবেদনশীল, ঠিক সেই বিষয়টাতেই ভুল করে ফেলল পুরসভা? রাজ্য বিজেপির সাধারণ সম্পাদক সায়ন্তন বসু তীব্র আক্রমণ করেছেন কলকাতার মেয়র ফিরহাদ হাকিম এবং রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে। তিনি বলেন, ‘‘আমরা বার বারই বলছি, পশ্চিমবঙ্গকে পশ্চিম বাংলাদেশ বানানোর চেষ্টা চলছে। এটাও সেই চেষ্টারই অঙ্গ। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় তাঁর প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের নির্দেশে এ সব করাচ্ছেন।’’

ফিরহাদ হাকিমকে আক্রমণ করেছে বামেরাও। বিধানসভার বাম পরিষদীয় দলনেতা সুজন চক্রবর্তীর কথায়, ‘‘ফিরহাদ হাকিম একটা গুরুত্বপূর্ণ পদে রয়েছেন। তিনি কলকাতার মেয়র। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় দেখুন, ভারতের মানচিত্র নিয়ে কী হচ্ছে! তিনি (মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়) দ্রুত এই ভুলের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিন। আমরা তা দেখতে চাই।’’

আরও পড়ুন

Advertisement