×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

২০ জানুয়ারি ২০২১ ই-পেপার

বহুমূল্যের গয়না লোপাটের চেষ্টায় ধৃত যুবক

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা২৩ নভেম্বর ২০২০ ০২:৪৩
—ফাইল চিত্র

—ফাইল চিত্র

দীপাবলিতে মুম্বই থেকে কলকাতার বিভিন্ন দোকানে বিক্রির জন্য দু’কেজি আটশো গ্রাম ওজনের (যার বাজারদর ১ কোটি ৮০ লক্ষ টাকা) সোনার গয়না পাঠিয়েছিলেন মহারাষ্ট্রের এক গয়না ব্যবসায়ী। সম্প্রতি তিনি কলকাতায় এসে জানতে পারেন, একটি গয়নাও কোনও দোকানে পৌঁছয়নি। ১১ নভেম্বর ওই ব্যবসায়ী ফুলবাগান থানায় অভিযোগ দায়ের করেন। প্রতারণা ও বিশ্বাসভঙ্গের অভিযোগে সৈনিক জৈন নামে তাঁরই এক কর্মীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। 

তদন্তকারীরা জানান, ধৃতকে জিজ্ঞাসাবাদ করে ৯০০ গ্রাম গয়না উদ্ধার হয়েছে। পুলিশ জানিয়েছে, মুম্বইয়ের গয়নার ব্যবসায়ী অশ্বিন জয়ন্তীলাল জৈন মহারাষ্ট্র থেকে সোনার গয়না কলকাতার বিভিন্ন দোকানে সরবরাহ করেন। ফুলবাগান থানা এলাকার সিআইটি রোডে তাঁর একটি অফিস আছে। সেখানে কাজ করতেন বিশাখাপত্তনমের বাসিন্দা সৈনিক জৈন। অশ্বিন দীপাবলির কয়েক মাস আগে সৈনিকের মাধ্যমে মুম্বই থেকে দু’কেজি আটশো গ্রাম ওজনের গয়না কলকাতায় পাঠান। এর পরে অশ্বিন গত ১১ নভেম্বর কলকাতায় এসে জানতে পারেন, সব গয়না নিয়ে উধাও সৈনিক। তাঁকে ফোনেও পাননি অশ্বিন। সে দিনই তিনি ফুলবাগান থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। 

মোবাইলের টাওয়ার অবস্থান দেখে  পরের দিন ভোরে শিয়ালদহ স্টেশন থেকে সৈনিককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। তদন্তকারীরা জানান, সৈনিক বিশাখাপত্তনমে যাওয়ার পরিকল্পনা করেছিলেন। ধৃতকে জিজ্ঞাসাবাদ করে প্রথমে সোনাগাছি থেকে প্রায় তিনশো গ্রাম গয়না উদ্ধার করে পুলিশ। অভিযুক্ত পুলিশকে জানিয়েছেন, সোনাগাছিতে তাঁর যাতায়াত ছিল। কালীপুজোর পরে বাকি সোনা উদ্ধারের জন্য পুলিশ ধৃতকে নিয়ে বিশাখাপত্তনমের উদ্দেশে রওনা দেয়। সেখান থেকে আরও ছ’শো গ্রাম গয়না উদ্ধার করে শনিবার ফেরে পুলিশ। ধৃতকে আজ, সোমবার ফের শিয়ালদহ আদালতে তোলা হবে।

Advertisement
Advertisement