Advertisement
১৪ জুলাই ২০২৪
Kolkata Traffic Police

পুলিশকে ‘নিগ্রহে’ ধৃত দুই, পরে জামিন

শুক্রবার রাত ৯টা নাগাদ চিত্তরঞ্জন অ্যাভিনিউ ও গণেশ অ্যাভিনিউয়ের মোড়ে অর্ঘ্যের গাড়ি ধাক্কা মারে অন্য একটি গাড়িতে। দুই চালকের বচসা শুরু হয়। খবর পেয়ে আসেন হেড কোয়ার্টার্স ট্র্যাফিক গার্ডের এক সার্জেন্ট।

— প্রতিনিধিত্বমূলক ছবি।

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা শেষ আপডেট: ২৮ এপ্রিল ২০২৪ ০৬:২৩
Share: Save:

ট্র্যাফিক পুলিশকে কাজে বাধা দেওয়ার ও নিগ্রহের অভিযোগ উঠল এক সরকারি চিকিৎসক এবং পুরসভার এক ইঞ্জিনিয়ারের বিরুদ্ধে। শুক্রবার রাতে, বৌবাজার থানা এলাকার চিত্তরঞ্জন অ্যাভিনিউ ও গণেশ অ্যাভিনিউয়ের সংযোগস্থলে। ওই রাতেই বৌবাজার থানার পুলিশ অভিযুক্তদের গ্রেফতার করে। তাঁদের নাম অর্ঘ্য দাশগুপ্ত এবং শুদ্ধশীল ভৌমিক। অর্ঘ্য উলুবেড়িয়া মেডিক্যাল কলেজের চিকিৎসক। শুদ্ধশীল কলকাতা পুরসভার ইঞ্জিনিয়ার। শনিবার ধৃতদের ব্যাঙ্কশাল আদালতে তোলা হলে বিচারক দু’জনের শর্তাধীন জামিন মঞ্জুর করেন।

শুক্রবার রাত ৯টা নাগাদ চিত্তরঞ্জন অ্যাভিনিউ ও গণেশ অ্যাভিনিউয়ের মোড়ে অর্ঘ্যের গাড়ি ধাক্কা মারে অন্য একটি গাড়িতে। দুই চালকের বচসা শুরু হয়। খবর পেয়ে আসেন হেড কোয়ার্টার্স ট্র্যাফিক গার্ডের এক সার্জেন্ট। অর্ঘ্যের আচরণ দেখে তাঁকে বৌবাজার থানায় যেতে বলেন তিনি। অভিযোগ, অর্ঘ্য তাতে রাজি না হয়ে রাস্তার উপরেই পুলিশের সঙ্গে বচসা জুড়ে দেন। এর পরে সেখানে পৌঁছন অন্য এক সার্জেন্ট এবং এক কনস্টেবল। অভিযোগ, তাঁদের সঙ্গেও বচসায় জড়ান অর্ঘ্য।

এরই মধ্যে শুদ্ধশীলকে ডেকে আনেন ওই চিকিৎসক। অভিযোগ, তিনি এসে পুলিশকর্মীদের নিগ্রহ করেন। জখম হন এক পুলিশকর্মী। পরে পুলিশবাহিনী এসে তাঁদের থানায় নিয়ে যায়। পুলিশের এক কর্তা জানান, ব্রেথ অ্যানালাইজ়ারে দেখা যায়, ওই চিকিৎসক মত্ত অবস্থায় ছিলেন।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement

Share this article

CLOSE