Advertisement
০৪ মার্চ ২০২৪
Harassment Of A Teacher

টিচার্স রুমে শিক্ষিকাকে ‘হেনস্থা’ ছাত্রনেতার 

মধুমিতা জানান, বিরতির পরেই ওই ক্লাস ছিল। তিনি এবং দর্শন বিভাগের আরও দুই শিক্ষিকা টিচার্স রুমে সিলেবাস নিয়ে আলোচনা করছিলেন।

—প্রতীকী ছবি।

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা শেষ আপডেট: ০১ ডিসেম্বর ২০২৩ ০৭:৩৯
Share: Save:

রাজ্যে ছাত্র সংসদ নির্বাচন হয় না বহু বছর। কিন্তু ছাত্র সংসদের নেতা পরিচয়ে দৌরাত্ম্যের অভিযোগ ওঠে মাঝেমধ্যেই। এ বার তেমনই অভিযোগ উঠল বিদ্যাসাগর কলেজে। সেখানকার দর্শন বিভাগের এক শিক্ষিকাকে টিএমসিপি এক ছাত্রনেতা তথা সাবেক ছাত্র সংসদের সাধারণ সম্পাদক হেনস্থা করেছেন বলে অভিযোগ উঠেছে।

অভিযোগ, দর্শন বিভাগের শিক্ষিকা মধুমিতা মিত্র ক্লাস নিতে যাচ্ছেন না কেন, এই প্রশ্ন তুলে অধুনালুপ্ত ছাত্র সংসদের সাধারণ সম্পাদক মনিরুল মণ্ডল বৃহস্পতিবার টিচার্স রুমে তাঁকে রীতিমতো হেনস্থা করেন। বিষয়টি নিয়ে মধুমিতা বলেন, ‘‘আমি অত্যন্ত অপমানিত হয়েছি। টিচার্স রুমে ঢুকে মনিরুল জানতে চায়, কেন ক্লাসে যাচ্ছি না। শুধু তা-ই নয়, এর পরে আর একটি ক্লাস নেওয়ার সময়ে তার নেতৃত্বে বাইরে স্লোগান দেওয়া চলতে থাকে। অথচ কলেজের নিয়ম, বিরতির (রিসেস) সময়ে স্লোগান দেওয়া।’’

মধুমিতা জানান, বিরতির পরেই ওই ক্লাস ছিল। তিনি এবং দর্শন বিভাগের আরও দুই শিক্ষিকা টিচার্স রুমে সিলেবাস নিয়ে আলোচনা করছিলেন। তখনই ওই ঘটনা ঘটে। মধুমিতা বলেন, ‘‘২১ বছরের শিক্ষকতা-জীবনে আমার অভিজ্ঞতায় এমন এক দিনও নেই, যে দিন আমি কলেজে এসেও ক্লাস নিইনি কিংবা বিভাগীয় কাজ করিনি।’’

মধুমিতার দাবি, এমন প্রশ্ন করার অধিকার আছে একমাত্র প্রতিষ্ঠানের প্রধানের। ২০১৭ সালে ছাত্র সংসদের সাধারণ সম্পাদক হন মনিরুল। তিনি জানান, এখনও তিনি ছাত্র। তাঁর আরও দাবি, মধুমিতা নিয়মিত ক্লাস করান না। এ ছাড়াও তাঁর বিরুদ্ধে আরও অভিযোগ আছে। টিচার ইন-চার্জ সুদীপা বন্দ্যোপাধ্যায়ের অবশ্য দাবি, এমন কোনও ঘটনা এ দিন কলেজে ঘটেইনি।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement

Share this article

CLOSE