×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

১৯ জুন ২০২১ ই-পেপার

রোগীর মৃত্যুতে অভিযুক্ত জোকা ইএসআই

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা ১৬ মে ২০২১ ০৬:১২
ছবি সংগৃহীত।

ছবি সংগৃহীত।

ফের এক করোনা রোগীর মৃত্যুতে হাসপাতালের বিরুদ্ধে গাফিলতির অভিযোগ উঠল। এ বার অভিযোগের তির জোকার ইএসআই হাসপাতালের বিরুদ্ধে। মৃতের পরিবারের অভিযোগ, রাজ়িয়া হোসেন নামে ওই রোগীর মাথায় ক্ষতচিহ্ন পাওয়া গিয়েছে, যা আগে ছিল না। তাঁদের অনুমান, অক্সিজেন মাত্রা কমে গিয়ে নয়, হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের গাফিলতির জেরেই পড়ে মাথায় গভীর চোট লেগে রাজ়িয়ার মৃত্যু হয়েছে।

পুলিশ সূত্রের খবর, ঠাকুরপুকুর বাস স্ট্যান্ড সংলগ্ন এলাকার বাসিন্দা রাজ়িয়া হোসেন নামের ৬৬ বছর বয়সি করোনা আক্রান্ত বৃদ্ধাকে গত সোমবার জোকা ইএসআই হাসপাতালে ভর্তি করেন তাঁর পরিবারের সদস্যেরা। রোগিণীর পরিবারের দাবি, প্রথম দু’দিন তাঁর সঙ্গে ফোনেও কথা হয়েছিল তাঁদের। কিন্তু তার পর থেকে তিনি ফোন ধরছিলেন না বলে জানান তাঁরা। গতকাল হাসপাতালের তরফে পরিবারকে ফোনে জানানো হয়, অক্সিজেনের মাত্রা কমে যাওয়ায় ওই রোগিণীর মৃত্যু হয়েছে।

রোগিণীর পরিবারের অভিযোগ, তাঁরা হাসপাতালে গিয়ে দেখেন, বৃদ্ধার মাথায় ক্ষতের দাগ। রোগিণীর মেয়ে বলেন, “হাসপাতাল থেকে বলা হয়েছিল মাকে দু’দিনে ছেড়ে দেওয়া হবে। মাঝে জানানো হয়েছিল, যে উনি ভাল আছেন। বাড়ি থেকে খাবার দিতেও বলা হয়েছিল। অথচ কাল জানায় যে অক্সিজেন কমে গিয়ে ওঁর মৃত্যু হয়েছে। আমরা এসে দেখি মায়ের মাথা ফেটে রক্ত বেরিয়েছে। অক্সিজেন নেমে গিয়ে মৃত্যু হলে কী করে এমন ক্ষত হয়?’’

Advertisement

পরিবারেরও অভিযোগ, হাসপাতালের কর্তব্যে গাফিলতি এবং দেখভালের অভাবেই শয্যা থেকে পড়ে গিয়ে মৃত্যু হয়েছে রাজ়িয়া হোসেনের। শনিবার সকালে এই অভিযোগ তুলে হাসপাতালে বিক্ষোভ দেখান রোগিণীর পরিজনেরা। ঠাকুরপুকুর থানায় অভিযোগও দায়ের করা হয় ইএসআই হাসপাতালের বিরুদ্ধে।

হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ মানছেন যে ওই রোগীর পরিবার নির্দিষ্ট অভিযোগ করেছে। তবে কী হয়েছিল, এখনই স্পষ্ট ভাবে বলা যাচ্ছে না। অভিযোগ খতিয়ে দেখতে তদন্ত কমিটি গঠন করা হবে বলে আশ্বাস কর্তৃপক্ষের। ঠাকুরপুকুর থানার পুলিশ জানিয়েছে, যেহেতু চিকিৎসার গাফিলতিতে রোগী-মৃত্যুর অভিযোগ উঠেছে, তাই নিয়ম মেনে স্বাস্থ্য দফতরের বিশেষজ্ঞদের কাছে পরামর্শ চেয়ে পাঠানো হবে। এর জন্য বৃদ্ধার চিকিৎসার প্রয়োজনীয় নথিপত্র জোগাড় করে হচ্ছে। ওই বিশেষজ্ঞ দল যা রিপোর্ট দেবে, তার ভিত্তিতে পরবর্তী পদক্ষেপ করা হবে।

Advertisement