Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

১২ অগস্ট ২০২২ ই-পেপার

URL Copied
Something isn't right! Please refresh.

ধর্মঘট, বিক্ষোভে অমিল অ্যাপ-ক্যাব, নাকাল যাত্রীরা

অ্যাপ-ক্যাব চালকদের একাধিক সংগঠনের ডাকা ধর্মঘট এবং অবস্থান-বিক্ষোভের জেরে সোমবার দিনভর শহর জুড়ে হয়রানির মুখে পড়লেন যাত্রীরা।

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা ১৬ মার্চ ২০২১ ০৫:৩৬
Save
Something isn't right! Please refresh.
বিক্ষোভ: বিভিন্ন দাবিদাওয়া নিয়ে অবস্থান করছেন অ্যাপ-ক্যাব

বিক্ষোভ: বিভিন্ন দাবিদাওয়া নিয়ে অবস্থান করছেন অ্যাপ-ক্যাব
—নিজস্ব চিত্র

Popup Close

অ্যাপ-ক্যাব চালকদের একাধিক সংগঠনের ডাকা ধর্মঘট এবং অবস্থান-বিক্ষোভের জেরে সোমবার দিনভর শহর জুড়ে হয়রানির মুখে পড়লেন যাত্রীরা। আর পথে অ্যাপ-ক্যাবের আকালের মধ্যে সুযোগ বুঝে যথেচ্ছ ভাড়া হাঁকলেন হলুদ ট্যাক্সির চালকেরা। দূরপাল্লার ট্রেন থেকে হাওড়া, শিয়ালদহ, সাঁতরাগাছি এবং কলকাতা স্টেশনে নেমে অ্যাপ-ক্যাব পেতে রীতিমতো নাজেহাল হতে হল যাত্রীদের। একই ছবি বিমানবন্দরেও। ই এম বাইপাস, সল্টলেক এবং নিউ টাউনের কয়েকটি হাসপাতালে পৌঁছতে গিয়ে ভোগান্তির মুখে পড়তে হয় রোগীদের আত্মীয়-পরিজনদেরও।

ডিজ়েলের মূল্যবৃদ্ধির পরিপ্রেক্ষিতে ভাড়া পুনর্বিন্যাসের দাবি নিয়ে এ দিন এআইটিইউসি এবং সিটু অনুমোদিত দু’টি বামপন্থী অ্যাপ-ক্যাব চালক সংগঠন পৃথক ভাবে ধর্মঘটের ডাক দিয়েছিল। এ ছাড়াও রাজ্যে শাসকদল ঘনিষ্ঠ আইএনটিটিইউসি অনুমোদিত ‘ওয়েস্ট বেঙ্গল অনলাইন ক্যাব অপারেটর্স গিল্ড’ এ দিন রাসবিহারীতে একটি অ্যাপ-ক্যাব সংস্থার দফতরে দুপুর থেকে অবস্থান-বিক্ষোভ শুরু করে। দফায় দফায় তিনটি সংগঠনের ধর্মঘট, বিক্ষোভ ও ধর্নার জেরে শহরে অ্যাপ-ক্যাব পরিষেবা কার্যত তলানিতে এসে ঠেকে।

কলকাতা এবং শহরতলি মিলিয়ে প্রায় হাজার দশেক অ্যাপ-ক্যাব থাকলেও সাধারণত দিনে গড়ে ছয় থেকে সাড়ে ছয় হাজার অ্যাপ-ক্যাব রাস্তায় নামে। এ দিন তার মধ্যে অন্তত চার হাজার অ্যাপ-ক্যাব পথে নামেনি বলে ধর্মঘট করা সংগঠনগুলির তরফে দাবি করা হয়েছে। ফলে যাত্রীদের এ দিন দুই থেকে আড়াই গুণ পর্যন্ত সার্জ গুনতে হয়েছে।

Advertisement

এ দিন সকালে রাজধানী এক্সপ্রেস থেকে শিয়ালদহ পৌঁছন কুঁদঘাটের বাসিন্দা শঙ্করমোহন গোপ। তার পরে শিয়ালদহ থেকে কুঁদঘাটের বাড়ি পৌঁছতে তাঁকে ৭৯১ টাকা ভাড়া গুনতে হয়। সোনারপুর থেকে বাইপাসের ধারে, অজয়নগর সংলগ্ন একটি বেসরকারি হাসপাতালে পৌঁছতে অর্পিতা রজককে ভাড়া গুনতে হয়েছে ৬৩৪ টাকা। উল্টোডাঙার হাডকো মোড় থেকে বৃদ্ধ বাবাকে নিয়ে বাইপাসের ধারের একটি বেসরকারি হাসপাতালে যাচ্ছিলেন রুমা পাল। দীর্ঘক্ষণ চেষ্টার পরেও কোনও ক্যাব না পেয়ে শেষে মিটারের চেয়ে ১৫০ টাকা বেশি দিতে হবে, এই শর্তে হলুদ ট্যাক্সিতে ওঠেন তাঁরা।

এ দিনের ধর্মঘট প্রসঙ্গে এআইটিইউসি-র অ্যাপ-ক্যাব সংগঠনের নেতা নওলকিশোর শ্রীবাস্তব বলেন, ‘‘পরিবহণ দফতরের সচিব সমস্যার কথা জানতে চেয়েছেন। মঙ্গলবার তাঁর সঙ্গে দেখা করব। সমস্যা না মিটলে আগামী ১ এপ্রিল থেকে নাগাড়ে ধর্মঘটের পথে যাব।’’ সিটু অনুমোদিত অ্যাপ-ক্যাব সংগঠনের সভাপতি ইন্দ্রজিৎ ঘোষ বলেন, ‘‘অ্যাপ–ক্যাব সংস্থাগুলি ইনসেন্টিভ সংক্রান্ত শর্ত শিথিল করার আশ্বাস দেওয়ায় আমরা লাগাতার ধর্মঘটের পরিকল্পনা বাতিল করছি। তবে দাবি না মিটলে আন্দোলন চলবে।’’

এ দিন বিভিন্ন জায়গায় ধর্মঘটের পিকেটিং করেন সিটুর সদস্যরা। পুলিশ ওই ঘটনায় ৯ জনকে আটক করলেও পরে ছেড়ে দেয়। এআইটিইউসি-র সদস্যেরা গণেশ অ্যাভিনিউয়ে পরিবহণ ভবনের সামনে রাস্তা আটকে প্রায় ঘণ্টা তিনেক অবস্থান করেন।

‘অনলাইন ক্যাব অপারেটর্স গিল্ড’-এর সাধারণ সম্পাদক ইন্দ্রনীল বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, ‘‘আমরা ধর্মঘটের ডাক দিইনি। তবে চালকদের প্রতি অ্যাপ-ক্যাব সংস্থাগুলির অমানবিক আচরণের প্রতিবাদে এ দিন রাসবিহারী মোড়ে বিক্ষোভ হয়েছে।’’

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)


Something isn't right! Please refresh.

Advertisement