Advertisement
০৯ ফেব্রুয়ারি ২০২৩
West bengal Assembly

বিধায়কদের আলিপুর জেলে সংগ্রহশালা দেখাতে নিয়ে যাবেন স্পিকার বিমান, যাচ্ছে না বিজেপি

বুধবার বিধানসভার শীতকালীন অধিবেশন শেষে সমস্ত বিধায়ককে নিয়ে আলিপুরে স্বাধীনতা সংগ্রামীদের নিয়ে তৈরি মিউজ়িয়াম দেখতে যাবেন স্পিকার বিমান। বিষয়টি বিধায়কদের জানিয়েও রাখেন তিনি।

বিমানের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করলেন শুভেন্দুরা।

বিমানের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করলেন শুভেন্দুরা। —ফাইল চিত্র।

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা শেষ আপডেট: ৩০ নভেম্বর ২০২২ ১০:৫৯
Share: Save:

যে জায়গা নিয়ে মামলা চলছে, সেখানে তৈরি হওয়া মিউজ়িয়াম পরিদর্শন করতে চান না তাঁরা। বিধানসভার স্পিকার বিমান বন্দ্যোপাধ্যায়ের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করে এমনই জানিয়ে দিলেন শুভেন্দু অধিকারীরা।

Advertisement

বুধবার বিধানসভার শীতকালীন অধিবেশন শেষে সমস্ত বিধায়ককে নিয়ে আলিপুরে স্বাধীনতা সংগ্রামীদের নিয়ে তৈরি মিউজ়িয়াম দেখতে যাবেন স্পিকার বিমান। বিষয়টি বিধায়কদের জানিয়েও রাখেন তিনি। তবে স্পিকারের ওই প্রস্তাব পত্রপাঠ প্রত্যাখ্যান করেছেন বিজেপি বিধায়করা। রাজ্যের বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী জানিয়ে দিয়েছেন,ওই মিউজ়িয়াম তৈরি নিয়ে জনস্বার্থ মামলা হয়েছে আদালতে। বিষয়টি এখন আদালতের বিচারধীন। তাই তাঁরা কেউ ওই মিউজ়িয়াম দেখতে যাবেন না।

প্রসঙ্গত, আলিপুর জেল বারুইপুরে স্থানান্তরের পরে ওই জমির একাংশের উপর মিউজ়িয়াম তৈরি করেছে রাজ্য সরকার। স্বাধীনতার ৭৫ বছর উপলক্ষে স্বাধীনতা সংগ্রামীদের স্মরণে তৈরি এই মিউজ়িয়াম দেখতে যাওয়ার জন্য বিধায়কদের আমন্ত্রণ জানিয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। গত সংবিধান দিবসের ভাষণে মুখ্যমন্ত্রী সব বিধায়ককে অনুরোধ করেন তাঁরা সবাই মিলে যেন মিউজ়িয়ামটি দেখে আসেন। মঙ্গলবার স্পিকার বিধায়কদের জানান, বুধবার অধিবেশন শেষে সকলে মিলে ওই মিউজ়িয়াম দেখতে যাবেন। বিমানের সঙ্গে রাজ্যের পুরমন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম এই উদ্যোগটি নেন।

যদিও বিজেপি বিধায়করা ওই মিউজ়িয়ামে যেতে চান না বলে জানিয়েছেন। বিজেপি বিধায়কদের অভিযোগ, আলিপুর সংশোধনাগারের জমির একটি অংশে মিউজ়িয়াম তৈরি হলেও বাকি অংশ ব্যবসায়ীদের বিক্রি করে দিচ্ছে সরকার। আবাসন শিল্পের জন্য ওই জমি কিনে নিচ্ছেন ব্যবসায়ীরা। এ নিয়ে কলকাতা হাই কোর্টে জনস্বার্থ মামলাও দায়ের হয়। বুধবার বিজেপি বিধায়ক সুদীপ মুখোপাধ্যায়ের কথায়, ‘‘সরকার অন্যায্য ভাবে ওখানকার জমি বিক্রি করে দিচ্ছে। তাই আমরা ঠিক করেছি, ওই মিউজ়িয়াম দেখতে যাব না।’’

Advertisement
(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.