×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

১৬ এপ্রিল ২০২১ ই-পেপার

উদ্বেগ বাড়ল করোনায়, কম পরীক্ষাতেও রাজ্যে আক্রান্তের সংখ্যাবৃদ্ধি

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২১ ২৩:৫৭
প্রতীকী ছবি।

প্রতীকী ছবি।

উদ্বেগ বাড়িয়ে দিল রাজ্যের করোনা সংক্রমণের প্রবণতা। নমুনা পরীক্ষা কম, অথচ ২৪ ঘণ্টায় করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ছাপিয়ে গেল আগের দিনের অঙ্ক। এখনই মহারাষ্ট্রের মতো দ্বিতীয় ঢেউ বলার মতো বাড়াবাড়ি পর্যায়ে না গেলেও গত কয়েক দিনের পরিসংখ্যানে কিছুটা চওড়া হচ্ছে রাজ্যের স্বাস্থ্যকর্তাদের কপালে চিন্তার ভাঁজ।

করোনার সংক্রমণ কমতির পর্বে সর্বনিম্ন এই মাসেই ১৫ এবং ১৭ ফেব্রুয়ারি দু’দিন ২৪ ঘণ্টায় আক্রান্তের সংখ্যা সর্বনিম্ন নেমে দাঁড়িয়েছিল ১৩৩। কিন্তু তার পর থেকে ধীরে ধীরে হলেও বাড়তে বাড়তে আবার ২৪ ঘণ্টায় করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ২০০ ছাড়িয়ে গিয়েছে। শুক্রবারও সেই প্রবণতা অব্যাহত। স্বাস্থ্য দফতরের বুলেটিন অনুযায়ী ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে কোভিড সংক্রমণ ধরা পড়েছে ২১৬ জনের নমুনায়। এই নিয়ে রাজ্যে মোট করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে হল ৫ লক্ষ ৭৪ হাজার ৭১৬। বৃহস্পতিবার আক্রান্ত হয়েছিলেন ১৯৯ জন, বুধবার ২০২।

অথচ নমুনা পরীক্ষা বৃহস্পতিবারের তুলনায় শুক্রবার কম হয়েছে। স্বাভাবিক ভাবেই বেড়েছে সংক্রমণের হার। ২৪ ঘণ্টায় যত নমুনা পরীক্ষা হয়, তার মধ্যে যত জনের রিপোর্ট পজিটিভ আসে, তার শতকরা হারকেই ‘পজিটিভিটি রেট’ বা ‘সংক্রমণের হার’ বলা হয়। শুক্রবারের বুলেটিন অনুযায়ী এই হার ১.০৮ শতাংশ। বৃহস্পতিবার এই হার ছিল ০.৯৮। শুক্রবার নমুনা পরীক্ষার সংখ্যা ২০ হাজার ৮৪। বৃহস্পতিবার এই সংখ্যা ছিল ২০ হাজার ৩৯৬। অর্থাৎ নমুনা পরীক্ষার সংখ্যা প্রায় ৪০০ কমলেও আক্রান্তের সংখ্যায় এই বৃদ্ধিতেই বাড়ছে উদ্বেগ।

Advertisement

তবে পাল্লা দিয়ে বাড়ছে সুস্থতাও। শুক্রবারের বুলেটিন অনুযায়ী ২৪ ঘণ্টায় কোভিডমুক্ত হয়েছেন ২২৩ জন। এই নিয়ে রাজ্যে মোট কোভিড আক্রান্ত হয়েও সুস্থ হয়ে উঠেছেন ৫ লক্ষ ৬১ হাজার ১১০ জন। শুক্রবার সুস্থতার হার ৯৭.৬৩ শতাংশ। এই মুহূর্তে রাজ্যে সক্রিয় করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ৩ হাজার ৩৪৩। বৃহস্পতিবার এই সংখ্যা ছিল ৩ হাজার ৩৫৩।

সংক্রমণ নিয়ে উদ্বেগ বাড়লেও ২৪ ঘণ্টায় মৃতের সংখ্যা কমেছে এক জন। শুক্রবারের বুলেটিন অনুযায়ী মৃত্যু হয়েছে ৩ জনের। এই নিয়ে রাজ্যে মোট কোভিডের বলি হলেন ১০ হাজার ২৬৩ জন। এক জন করে মানুষের মৃত্যু হয়েছে উত্তর ২৪ পরগনা, হুগলি এবং পশ্চিম মেদিনীপুর জেলায়।

শুক্রবারের বুলেটিন অনুযায়ী সবচেয়ে বেশি মানুষ করোনা আক্রান্ত হয়েছেন কলকাতায় (৭২ জন)। এর পরেই উত্তর ২৪ পরগনা। এই জেলায় আক্রান্তের সংখ্যা ৬৬। এ ছাড়া হাওড়ায় ১৩, পশ্চিম বর্ধমানে ১০ এবং বাঁকুড়ায় ১০ জন সংক্রমিত হয়েছেন গত ২৪ ঘণ্টায়। এ ছাড়া আর কোনও জেলায় ২৪ ঘণ্টায় আক্রান্তের সংখ্যা দুই অঙ্কে পৌঁছয়নি।

নির্বাচন কমিশন ভোটের নির্ঘণ্ট ঘোষণা করে জানিয়েছে, বুথের সংখ্যা বাড়ানো হয়েছে। কোভিডের কথা ভেবে করা হয়েছে আরও বেশ কিছু পদক্ষেপ। কিন্তু তার আগে? সময় যত গড়াবে, বাড়বে রাজনৈতিক তৎপরতা। জনসভা, মিছিল, মিটিং-এর সংখ্যা ক্রমেই বাড়বে। করোনা সংক্রমণ কমতির দিকে থাকায় এখন কোনও রাজনৈতিক সভা-মিছিলে দূরত্বের বালাই থাকছে না। অনেকের মুখ থেকেই উধাও হয়েছে মাস্ক। ফলে ভোট পর্বে সংক্রমণ আরও বাড়বে বলেই মনে করছেন বিশেষজ্ঞদের একাংশ।

Advertisement