Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১ ই-পেপার

সচেষ্ট হবে তো পুলিশ, সন্দেহ

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা ২০ নভেম্বর ২০২০ ০৩:০২
পরিবেশকর্মীদের একাংশের আশঙ্কা, ছটপুজোয় পুলিশ হয়তো শুধু দর্শক হয়েই থাকবে। —ফাইল চিত্র।

পরিবেশকর্মীদের একাংশের আশঙ্কা, ছটপুজোয় পুলিশ হয়তো শুধু দর্শক হয়েই থাকবে। —ফাইল চিত্র।

রবীন্দ্র সরোবর এবং সুভাষ সরোবরে যে ছটপুজো করা যাবে না, সুপ্রিম কোর্টও সেই নির্দেশ দেওয়ায় কলকাতা পুলিশ জানাল, আদালতের নির্দেশ মেনেই কাজ করবে তারা।

লালবাজার সূত্রের খবর, রবীন্দ্র সরোবর ও সুভাষ সরোবরে ছটপুজোর দু’দিন স্থানীয় ডিসি ছাড়াও নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকছেন আরও দু’জন ডিসি। দু’টি এলাকায় মোতায়েন করা হচ্ছে পুলিশের বিরাট বাহিনী। দুই সরোবরের প্রতিটি প্রবেশপথে ছড়িয়ে থাকবে এই বাহিনী। কেউ যাতে সরোবর চত্বরে জোর করে ঢুকতে না পারেন, তার জন্য ব্যারিকেডও করা হচ্ছে। তবে পুলিশ পর্যাপ্ত বাহিনী মোতায়েন ও কোর্টের নির্দেশ মানার কথা বললেও পরিবেশকর্মীদের একাংশ অবশ্য তাদের ‘সদিচ্ছা’ নিয়ে সন্দিহান। কারণ এর আগে ছটের সময়ে পর্যাপ্ত পুলিশ রেখেও কিছু করা যায়নি। ব্যারিকেড ভেঙে, পুলিশকে ধাক্কা মেরে লোকজন ভিতরে ঢুকে ছটপুজো করেছিলেন।

পরিবেশকর্মীদের একাংশের বক্তব্য, আদালতের রায়কে চ্যালেঞ্জ করে সরকার সুপ্রিম কোর্টে গিয়েছিল। যার অর্থ, সরকার চায়, সরোবরে ছটপুজো হোক। সে ক্ষেত্রে সরকারের নিয়ন্ত্রণাধীন পুলিশ জোর করে কখনওই পুণ্যার্থীদের বাধা দেবে বলে মনে হয় না। তাঁদের আশঙ্কা, পুলিশ হয়তো এলাকায় থাকবে শুধু দর্শক হয়েই। পরিবেশকর্মী সুভাষ দত্ত জানাচ্ছেন, এ দিন শীর্ষ আদালতে পরিবেশকর্মীদের কিছু বলতে হয়নি। আদালত নিজেই আগের রায় বহাল রেখেছে। তাঁর কথায়, “রাজনৈতিক লোকজনই পরিস্থিতি ‘হাইজ্যাক’ করে নিয়ে জোর করে পুণ্যার্থীদের ঢোকান। এখন দেখার, পুলিশ কোর্টের নির্দেশ কার্যকর করতে কতটা তৎপর হয়।”

Advertisement

আরও পড়ুন

More from My Kolkata
Advertisement