Advertisement
০৮ ডিসেম্বর ২০২২
Jagdeep Dhankhar

ভুয়ো মেলের ফাঁদে খোদ রাজ্যপাল! অভিযোগ জানালেন কলকাতা পুলিশকে

রবিবার রাজ্যপাল টুইট করে জানিয়েছেন ভুয়ো মেলের কথা। তিনি একটি ভুয়ো মেল তাঁর টুইটের সঙ্গে অ্যাটাচ করেছেন।

পুলিশে অভিযোগ জানিয়েছেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়।—ফাইল চিত্র।

পুলিশে অভিযোগ জানিয়েছেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়।—ফাইল চিত্র।

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা শেষ আপডেট: ০৪ অক্টোবর ২০২০ ১৯:৪৬
Share: Save:

সাইবার জালিয়াতদের শিকার এবার খোদ রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়। কলকাতা পুলিশকে তিনি অভিযোগ জানিয়েছেন যে, তাঁর নাম করে ভুয়ো মেল পাঠানো হচ্ছে বিভিন্ন ব্যক্তিকে।

Advertisement

রবিবার রাজ্যপাল টুইট করে জানিয়েছেন ওই ভুয়ো মেলের কথা। তিনি একটি ভুয়ো মেল তাঁর টুইটের সঙ্গে অ্যাটাচ করেছেন। ওই ভুয়ো মেলের বয়ানে লেখা, ‘‘আমার সাহায্য প্রয়োজন। অবিলম্বে আমাকে মেল করুন।” ওই বয়ানের তলায় রাজ্যপালের নাম লেখা।

রাজ্যপাল তাঁর টুইটে কলকাতা পুলিশকেও জানিয়েছেন ভুয়ো মেলের বিষয়ে। তাঁর অভিযোগ, এর আগে তাঁকে বেনামি মেসেজ পাঠানো হয়েছিল। সেই ঘটনাও তিনি কলকাতা পুলিশকে জানিয়েছেন। এ দিন রাজ্যপাল টুইটে রাজ্য পুলিশকে উদ্দেশ্য করে লিখেছেন, ‘‘এর আগে আমার গাড়ি আটকেছিল গুন্ডারা। সোশ্যাল মিডিয়ায় বিকৃত করা হয়েছিল আমার ছবি।” তাঁর অভিযোগ, ওই ঘটনায় অভিযোগ জানিয়েও কোনও ফল হয়নি। তবে তিনি আশা প্রকাশ করেছেন, মুখ্যমন্ত্রী এ ব্যাপারে পদক্ষেপ করবেন এবং এ সবের উৎস খুঁজে বের করা হবে।

আরও পড়ুন: ফুলবাগান পাতালে ছুটল ইস্ট-ওয়েস্ট মেট্রো, উদ্বোধন রেলমন্ত্রীর

Advertisement

রাজ্যপাল তাঁর টুইটে রাজ্য সরকার এবং পুলিশকে খোঁচা দিলেও, কলকাতা পুলিশের শীর্ষ কর্তাদের একাংশের ইঙ্গিত, এর পিছনে কোনও রাজনীতি নেই। তাঁদের দাবি, আম আদমির মতোই সাইবার প্রতারণার ফাঁদে পড়েছেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়। রাজ্য পুলিশের এক সাইবার বিশেষজ্ঞ বলেন, ‘‘ভুয়ো মেল পাঠানো পুরনো প্রতারণার ধরন। এক সময়ে নাইজেরিয় সাইবার প্রতারকরা ভুয়ো মেল করে মানুষের কাছ থেকে টাকা নিত।” ওই সাইবার বিশেষজ্ঞ বলেন, ‘‘ওই প্রতারণার কায়দা আবার ফিরে এসেছে।”

তিনি উদাহরণ দিয়ে বলেন, গত দু’মাসে রাজ্য পুলিশের এসপি থেকে আইজি পদমর্যাদার একাধিক পুলিশ কর্তার নামে ভুয়ো ফেসবুক অ্যাকাউন্ট তৈরি হয়েছে। ওই অ্যাকাউন্ট তৈরি করে বিভিন্ন ব্যক্তিকে বন্ধুত্বের ‘রিকোয়েস্ট’ পাঠানো হচ্ছে। এক পুলিশ কর্তার এ রকম ভুয়ো ফেসবুক প্রোফাইল থেকে ‘ফ্রেন্ড রিকোয়েস্ট’ অ্যাকসেপ্ট করার পর মেসেঞ্জারে এক ব্যক্তি এ রকমই সাহায্য করার আবেদন জানানো মেসেজও পেয়েছিলেন। রাজ্য পুলিশ ওই মামলারও তদন্ত করছে।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.