Advertisement
৩১ জানুয়ারি ২০২৩

নির্ভয়া-তহবিলের টাকায় শৌচাগার ও আলোর ব্যবস্থা

পুরসভার বস্তি দফতরের এক ইঞ্জিনিয়ার জানান, মূলত, শহরের যে সব বাজার, সিনেমা হল, পার্ক, স্কুল, কলেজ চত্বরে মহিলাদের ভিড় বেশি থাকে, সেই সব জায়গাতেই সুরক্ষা ব্যবস্থা জোরদার করতে চাওয়া হচ্ছে।

অনুপ চট্টোপাধ্যায়
কলকাতা শেষ আপডেট: ২৭ জুলাই ২০১৯ ০১:১৩
Share: Save:

এক বছর আগেই কলকাতা পুরসভার হাতে এসেছিল কেন্দ্রীয় প্রকল্প ‘নির্ভয়া ফান্ড’-এর বরাদ্দ। এ বার তা খরচ হতে চলেছে। সেই টাকায় কলকাতা শহরে মহিলাদের নিরাপত্তা ব্যবস্থার বিবিধ প্রকল্প হাতে নিয়েছে পুরসভা।

Advertisement

পুরসভার বস্তি দফতরের এক ইঞ্জিনিয়ার জানান, মূলত, শহরের যে সব বাজার, সিনেমা হল, পার্ক, স্কুল, কলেজ চত্বরে মহিলাদের ভিড় বেশি থাকে, সেই সব জায়গাতেই সুরক্ষা ব্যবস্থা জোরদার করতে চাওয়া হচ্ছে। পুরবোর্ডের সিদ্ধান্ত, ওই সব এলাকায় মহিলাদের জন্য সুরক্ষিত শৌচাগার, যথেষ্ট আলোর ব্যবস্থা, সিসি ক্যামেরায় নজরদারি বাড়ানো হবে।

২০১৩ সালে প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিংহের সরকার নির্ভয়া তহবিল তৈরি করে এক হাজার কোটি টাকা দিয়ে। মূলত মহিলাদের নিরাপত্তা বাড়ানোর জন্য যে যে কর্মসূচি জরুরি তার জন্যই ওই তহবিল তৈরি হয়। গত ৬ বছরে প্রায় ৩৬০০ কোটি টাকা ওই তহবিলের জন্য বরাদ্দ হয়েছে। কিন্তু তার ২০ শতাংশ টাকাও খরচ করা যায়নি বলে সম্প্রতি লোকসভায় প্রশ্নোত্তর পর্বে কেন্দ্রীয় সরকারের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে। সেই তহবিলের বরাদ্দ গত বছরেই এসেছে এ রাজ্যে।

পুরসভা সূত্রের খবর, কলকাতা পুলিশের পক্ষ থেকে পুরসভাকে জানানো হয়েছে যে শহরের মহিলাদের সুরক্ষার জন্য ২ কোটি ৮৪ লক্ষ টাকা খরচ করা যাবে নির্ভয়া তহবিল থেকে। যদিও এই খরচের ৬০ ভাগ দেবে কেন্দ্র এবং ৪০ ভাগ দেবে রাজ্য। পুরসভার এক আধিকারিক জানান, নির্বাচন বিধির কারণে ওই কাজ শুরু করতে কিছুটা দেরি হয়েছে। তবে এ বার তা শুরু করা হচ্ছে।

Advertisement

আধিকারিকেরা জানান, ইতিমধ্যেই কলকাতা পুরসভা শহরের ১০টি গুরুত্বপূর্ণ বাজারে পরিবেশবান্ধব শৌচাগার বসানোর জন্য সমীক্ষা শুরু করেছে। ওই শৌচাগারে শক্তপোক্ত দরজা, জলের ট্যাঙ্ক, বেসিন, ভেন্টিলেশন ব্যবস্থা সবই করা হচ্ছে। নিউ মার্কেট, গড়িয়াহাট, বেহালা, হাতিবাগানের মতো এলাকায় যে সব বাজার রয়েছে, সেখানে প্রয়োজনীয় আলো রয়েছে কি না, বাজার করতে আসা মহিলারা নিরাপত্তার অভাব বোধ করছেন কি না, তা খতিয়ে দেখা হবে। সেই মতো সব ব্যবস্থা নেওয়া হবে। পুর কমিশনার খলিল আহমেদ জানান, বায়ো টয়লেটের জন্য বরাদ্দের ৬০ লক্ষ টাকা খরচ করা হবে। বাকি টাকা শহরের বিভিন্ন এলাকায় মহিলাদের সুরক্ষা এবং স্বাচ্ছন্দ্য বাড়ানোর কাজে ব্যয় করা হবে। নবান্ন সূত্রের খবর, কেন্দ্রীয় সরকারের দেওয়া ওই তহবিল এ রাজ্যে ‘সেফ সিটি’ প্রকল্প হিসেবে চিহ্নিত হয়েছে।

২০১২ সালের ডিসেম্বরে নয়াদিল্লিতে গণধর্ষণের শিকার হন তরুণী ছাত্রী নির্ভয়া। পাশবিক অত্যাচারের শিকার নির্ভয়া হাসপাতালে মারা যান। খোদ রাজধানীতে ওই ঘটনায় (যা নির্ভয়াকাণ্ড হিসেবে পরিচিত) তোলপাড় হয়েছিল সারা দেশ। প্রশ্ন উঠেছিল মহিলাদের নিরাপত্তা নিয়েও। তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিংহের সরকার এক হাজার কোটি টাকা দিয়ে নির্ভয়া তহবিল তৈরি করে। উদ্দেশ্য ছিল, সারা দেশে মহিলাদের সুরক্ষায় বিশেষ প্রকল্প হাতে নেওয়া হবে। যার জন্য প্রতিটি রাজ্যে ওই তহবিলের টাকা বরাদ্দ করা হয়।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.