×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

৩১ জুলাই ২০২১ ই-পেপার

গর্জে উঠল সমাজ, চরম শাস্তি হোক, বলছেন মানুষ

নিজস্ব প্রতিবেদন
০১ মে ২০১৮ ১৬:০৯
প্রতীকী ছবি।

প্রতীকী ছবি।

কে ঠিক করে দিল শ্লীল আর অশ্লীল ভেদাভেদ? কোন নিক্তিতে মাপা হল প্রকাশ্যে কী করা উচিত আর কোনটা নয়?

মেট্রো রেলে ‘ঘনিষ্ঠ’ ভাবে দাঁড়ানোর অপরাধে দমদম স্টেশনে যে ভাবে এক তরুণ যুগলকে বেধড়ক মারধর করা হল, তাতে বোঝা যাচ্ছে, এ শহরও এখন নীতি পুলিশদের দখলে। তারাই বিচার করে দেবে, কে কী ভাবে দাঁড়াবে, পাবলিক প্লেসে ঠিক কী করলে তা ‘অশ্লীলতা’র পর্যায়ে পড়বে না।

যারা এই যুগলকে মেরেছে, দুর্ভাগ্যজনক হলেও তাদের অনেকেই প্রৌঢ় ও বয়স্ক। যদি কোনও কাজ তাদের কাছে প্রকৃত আপত্তিকর বলে মনে হত তা তারা অন্য ভাবেও বোঝাতে পারত। তা না করে তারা ‘নীতিশিক্ষা’ দেওয়ার জন্য শুধু এক তরুণকেই বেধড়ক মারধর করেনি, এক তরুণীকেও প্রকাশ্যে মারধর করেছে। এই দুষ্কর্মের বিচার তা হলে কে করবে?

Advertisement



Advertisement