Advertisement
২০ জুন ২০২৪

হেলমেট নেই, বাইক উল্টে মৃত্যু

স্থানীয় বাসিন্দা সম্রাট ঘোষ বলেন, ‘‘প্রায় ১৫ মিনিট ওই অবস্থায় দু’জনে পড়েছিলেন। সিঁথি থানার পুলিশ এসে তাঁদের হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার ব্যবস্থা করে।

প্রতীকী ছবি।

প্রতীকী ছবি।

নিজস্ব সংবাদদাতা
শেষ আপডেট: ১১ এপ্রিল ২০১৮ ০২:২৬
Share: Save:

হেলমেট নেই। সেই সঙ্গে চলছিল দু’টি বাইকে তিন বন্ধুর রেষারেষি। এর জেরে প্রাণ গেল দুই বাইক আরোহীর। আহত হলেন এক বৃদ্ধ। ঘটনাটি ঘটেছে মঙ্গলবার বিকেলে সাউথ সিঁথির দীপেন ঘোষ সরণিতে।

পুলিশ জানিয়েছে, মৃত দুই যুবকের নাম মলয় দাস (২৫) এবং সুমিত বিশ্বাস (১৭)। মলয় বাইক চালাচ্ছিলেন। সুমিত ওই বাইকেই ছিল। এক জনের ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয়। অন্য জনের আর জি কর হাসপাতালে।

পুলিশ সূত্রের খবর, এ দিন দমদম রোড থেকে সেভেন ট্যাঙ্কসের দীপেন ঘোষ সরণি ধরে রেষারেষি শুরু করে তিন বন্ধু। তিন জনের কারও মাথাতেই হেলমেট ছিল না বলে পুলিশ জানিয়েছে। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, দু’টি বাইক রেষারেষি করতে করতে আসছিল। একটি দুধের দোকানের কাছে এসে মলয় বাইকের নিয়ন্ত্রণ রাখতে না পেরে রাস্তার পড়ে গিয়ে ঘষটাতে থাকেন। সেই সময়ে ওই রাস্তা দিয়ে সাইকেল চালিয়ে যাচ্ছিলেন বছর পঁচাত্তরের বৃদ্ধ নির্মল বৈদ্য। তাঁকে ধাক্কা মেরে বাইকটি ছিটকে গিয়ে ডিভাইডারে ধাক্কা খায়।

স্থানীয় বাসিন্দা সম্রাট ঘোষ বলেন, ‘‘প্রায় ১৫ মিনিট ওই অবস্থায় দু’জনে পড়েছিলেন। সিঁথি থানার পুলিশ এসে তাঁদের হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার ব্যবস্থা করে। এক জনের ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয়। অন্য জন হাসপাতালে অক্সিজেন চলাকালীন মারা যান।’’ অন্য বাইকের আরোহী বিপন্মুক্ত বলে পুলিশ জানিয়েছে। কোমরে আঘাত নিয়ে নির্মলবাবু আর জি করে চিকিৎসাধীন।

স্থানীয় সূত্রের খবর, মৃত দু’জনের বাড়ি সবজিবাগানে। স্থানীয় বাসিন্দাদের বক্তব্য, দীপেন ঘোষ সরণির উপরে দুর্ঘটনা কমানোর জন্যই ডিভাইডার তৈরি হয়েছে বছর কয়েক আগে। তা সত্ত্বেও মাঝেমধ্যেই বেপরোয়া গাড়ির জন্য ওই রাস্তায় দুর্ঘটনা ঘটছে।

ঘটনাটি প্রসঙ্গে স্থানীয় তৃণমূল কাউন্সিলর পুষ্পালী সিংহ বলেন, ‘‘বাইক নিয়ে রেষারেষি বন্ধ করতে বারবার এলাকার মানুষের সঙ্গে কথা বলেছি। কিন্তু কমবয়সী ছেলেরা কারও কথা শোনে না।’’

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)

অন্য বিষয়গুলি:

helmet Bikes Death
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement

Share this article

CLOSE