Advertisement
০১ মার্চ ২০২৪
Lalbazaar

ট্যাবে কার্ড স্ক্যান করে উপস্থিতি জানাবেন পুলিশকর্মীরা 

আইনশৃঙ্খলা রক্ষার কাজে পুলিশকর্মীদের অনুপস্থিতি বা ফাঁকি দেওয়া ঠেকাতেই এই ব্যবস্থা চালু করা হয়েছে। এত দিন ওই কাজে যাওয়া কর্মীদের উপস্থিতি জানান দেওয়ার যান্ত্রিক ব্যবস্থা ছিল না।

An image of Lalbazaar

লালবাজার একটি নির্দেশিকা জারি করল। —ফাইল চিত্র।

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা শেষ আপডেট: ৩০ জুন ২০২৩ ০৬:১৭
Share: Save:

আইনশৃঙ্খলা রক্ষার কাজে গিয়ে পুলিশকর্মীদের এ বার থেকে ‘আরএফআইডি’ (রেডিয়ো ফ্রিকোয়েন্সি আইডেন্টিটি) কার্ড স্ক্যান করে নিজেদের উপস্থিতি জানান দিতে হবে। চলতি সপ্তাহ থেকেই ট্যাবের মাধ্যমে হাজিরা দেওয়ার এই নয়া ব্যবস্থার মহড়া চালু করেছে কলকাতা পুলিশ।

প্রথম দফায় শেক্সপিয়র সরণি ও হেয়ার স্ট্রিট থানার পাশাপাশি হেডকোয়ার্টার্স ফোর্সের মুভমেন্ট শাখার হাতে ওই ট্যাব দেওয়া হয়েছে। ওই দুই থানা এলাকায় যেখানে আইনশৃঙ্খলা রক্ষার জন্য বাহিনীকে মোতায়েন করা হচ্ছে, সেখানেই ট্যাব নিয়ে পৌঁছে যাচ্ছেন অফিসারেরা। পুলিশকর্মীদের উপস্থিতি নথিভুক্ত করতে ওই ট্যাবের মাধ্যমে প্রত্যেকের আরএফআইডি কার্ড স্ক্যান করতে হচ্ছে। আবার শহরের কোনও জায়গায় মুভমেন্ট বিভাগ থেকে বাহিনী পাঠানো হলে সেখানেও পুলিশকর্মীদের উপস্থিতি নথিভুক্ত করতে ওই ট্যাব ব্যবহার করা হচ্ছে। কলকাতা পুলিশের এক শীর্ষ কর্তা জানান, কর্মীদের আরএফআইডি কার্ড ব্যবহার বাধ্যতামূলক করা হয়েছে। প্রাথমিক ভাবে দু’টি থানার হাতে এই কার্ড স্ক্যান করার জন্য ট্যাব দেওয়া হয়েছে। এই ব্যবস্থা সফল হলে ভবিষ্যতে বাকি থানা এবং পুলিশের অন্যান্য বিভাগেও ট্যাব দেওয়া হবে।

আইনশৃঙ্খলা রক্ষার কাজে পুলিশকর্মীদের অনুপস্থিতি বা ফাঁকি দেওয়া ঠেকাতেই এই ব্যবস্থা চালু করা হয়েছে। এত দিন ওই কাজে যাওয়া কর্মীদের উপস্থিতি জানান দেওয়ার যান্ত্রিক ব্যবস্থা ছিল না। যে যাঁর মতো করে ঊর্ধ্বতন অফিসারের কাছে নিজের উপস্থিতি জানান দিতেন। কিন্তু এখন ডিউটির শুরু এবং শেষে ওই কার্ড ছুঁইয়ে উপস্থিতি নথিভুক্ত করতে হবে পুলিশকর্মীদের।

শেক্সপিয়র সরণি এবং হেয়ার স্ট্রিট থানার হাতেই প্রথম দফায় ট্যাব দেওয়া হল কেন? সূত্রের খবর, কলকাতায় সব চেয়ে বেশি সংখ্যক আইনশৃঙ্খলা রক্ষার ডিউটি পড়ে হেয়ার স্ট্রিট থানা এলাকায়। মিছিল-মিটিংয়ের জন্য সারা বছরই ব্যস্ত থাকে ওই এলাকা। মেট্রো চ্যানেলও ওই থানার অধীন। আবার শেক্সপিয়র সরণি থানা এলাকায় রয়েছে রাজ্য নির্বাচন কমিশনের দফতর। সেখানে প্রতিদিনই রাজনৈতিক কর্মসূচি থাকছে।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement

Share this article

CLOSE