×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২১ ই-পেপার

তেজপাতার গাদায় আত্মগোপন করেও গ্রেফতার অভিযুক্ত

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা ২৮ নভেম্বর ২০২০ ০১:৪৯
প্রতীকী ছবি।

প্রতীকী ছবি।

অন্ধকারে কোথায় অভিযুক্ত লুকিয়ে রয়েছে তা বুঝতে হিমশিম খাচ্ছিল পুলিশ। আচমকাই তদন্তকারীরা খেয়াল করলেন দুই রেললাইনের মাঝে শুকোনোর জন্য রাখা তেজপাতার বড় বড় ব্যাগগুলি নড়ছে। পুলিশ এগোতেই সেখান থেকে লাফ দিয়ে রেললাইন ধরে দৌড়তে শুরু করল অভিযুক্ত। অবশ্য শেষরক্ষা হল না। ফাঁকা রেললাইনে ধরে প্রায় দুশো মিটার দৌড়ে তাকে কাবু করে ফেলল পুলিশ।

লালবাজার সূত্রের খবর, বুধবার উত্তর ২৪ পরগনার গোবরডাঙা থানার সরকারপাড়ার কাছের রেললাইনে ঘটনাটি ঘটে। হেয়ার স্ট্রিট থানার তিন তদন্তকারী ওই রাতে স্থানীয় থানার চার পুলিশকর্মীকে নিয়ে দেবীপ্রসাদ পাল নামে এক অভিযুক্তকে গ্রেফতার করেন। তার সঙ্গে দীপঙ্কর মজুমদার নামে তার এক বন্ধুকেও গ্রেফতার করা হয়েছে। বিশ্বাসভঙ্গ এবং ষড়যন্ত্রের অভিযোগে ধৃতদের বৃহস্পতিবার আদালতে তোলা হলে বিচারক তাদের ৪ ডিসেম্বর পর্যন্ত পুলিশি হেফাজতে রাখার নির্দেশ দেন।

পুলিশ জানায়, গত সোমবার হেয়ার স্ট্রিট থানা এলাকার ম্যাঙ্গো লেনের একটি সংস্থার তরফে পুলিশে অভিযোগ করা হয়, তাদের এক কর্মী দেবীপ্রসাদকে অন্য সংস্থা থেকে বকেয়া ৪০ লক্ষ টাকা আদায় করতে পাঠানো হয়েছিল। কিন্তু সোমবার টাকা আদায়ের পরে সে ওই টাকা জমা করেনি, তার মোবাইলও বন্ধ।

Advertisement

তদন্তে জানা যায়, দত্তপুকুরের বাসিন্দা তার এক বান্ধবীর সঙ্গে দেবীপ্রসাদ যোগাযোগ রাখছে। বুধবার সেখানে হানা দিয়ে ওই বান্ধবীর থেকে ফোন নম্বর উদ্ধার করে পুলিশ। যার সূত্রে রাতেই দীপঙ্করের খোঁজ মেলে। দীপঙ্কর জেরায় জানায়, গোবরডাঙায় রেললাইনের ধারে লুকিয়ে দেবীপ্রসাদ।

পুলিশ জানিয়েছে, ধৃতদের জেরা করে দত্তপুকুরের একটি দোকান থেকে প্রায় ৩২ লক্ষ টাকা উদ্ধার করা হয়েছে।

Advertisement