Advertisement
১৫ জুন ২০২৪
Bidhannagar Municiaplity

VIP Road: নিকাশির উন্নতিতে ভিআইপি রোডের নীচ দিয়ে নালা তৈরির পরিকল্পনা

পুরসভা সূত্রের খবর, কৈখালির কাছে হজ হাউসের সামনে থেকে প্রস্তাবিত ওই নিকাশি নালা কেষ্টপুর পর্যন্ত যাবে। তার পরে সেটি মিশবে আপার বাগজোলা খালে।

বিধাননগর পুরসভা।

বিধাননগর পুরসভা। ফাইল চিত্র।

প্রবাল গঙ্গোপাধ্যায়
কলকাতা শেষ আপডেট: ২১ অগস্ট ২০২২ ০৭:৩৭
Share: Save:

বিধাননগর পুরসভার রাজারহাট-গোপালপুর এলাকায় জল জমার সমস্যা মেটাতে এ বার ভিআইপি রোডের নীচ দিয়ে বিশেষ নিকাশি পথ তৈরির পরিকল্পনা করা হয়েছে। পুরসভার তরফে তৈরি করা ১০৬ কোটি টাকার প্রকল্প-রিপোর্ট আপাতত অনুমোদনের জন্য পুর বিষয়ক দফতরের কাছে পাঠানো হয়েছে। পুরসভা সূত্রের খবর, ওই প্রকল্প বাস্তবায়িত করা গেলে আগামী দিনে রাজারহাট-গোপালপুর এলাকায় জল দাঁড়ানোর সমস্যা অনেকটাই কমে যাবে।

পুরসভা সূত্রের খবর, এই প্রকল্প অনুযায়ী, বাগুইআটি ও জ্যাংড়ার মতো এলাকা দিয়ে যাওয়া বাগজোলা বাইপাস (বিবি-১) খালের জলের একটি বড় অংশ ভিআইপি রোডের নীচ দিয়ে যাওয়া প্রস্তাবিত ওই নিকাশি নালার দিকে ঠেলে দেওয়া হবে। ওই নিকাশি পথ দিয়ে সেই জল আপার বাগজোলা খালে গিয়ে পড়বে। তাতে বিবি-১ খালের উপরে জল বহনের চাপ কমবে।

বিবি-১ খাল কৈখালি, চিনার পার্ক, বাগুইআটি, জ্যাংড়া, হাতিয়াড়া-সহ বিস্তীর্ণ এলাকার নিকাশি জল বহন করে। চলতি বর্ষার আগে খালটির সংস্কার করা হলেও তা অতিরিক্ত জল বহনে কতটা তৈরি, তা এখনও পরীক্ষিত নয়। কারণ, এ বছর এখনও সেই পরিমাণ বৃষ্টি দেখা যায়নি। গত বছরেও ওই খাল উপচে আশপাশের এলাকা জলমগ্ন হয়েছিল। সেই সঙ্গে বেশ কয়েকটি এলাকায় স্থানীয় মানুষ জলবন্দি দশাতেও কাটিয়েছিলেন।

পুরসভার আধিকারিকেরা জানান, ক্রমবর্ধমান জনসংখ্যার কারণে বিবি-১ খাল দিয়ে বহমান জলের পরিমাণ বহু গুণ বেড়েছে। কিন্তু খাল মজে যাওয়া-সহ নানা কারণে বিগত কয়েক বছরে দেখা গিয়েছে, একটু বেশি বৃষ্টি হলেই ওই খাল টইটম্বুর হয়ে পড়ছে এবং সেই জল সহজে নামানো যাচ্ছে না। যে কারণে এ বার বর্ষায় চিনার পার্ক-সহ বিস্তীর্ণ এলাকায় জল জমা ঠেকাতে বিপুল খরচ করেছে পুরসভা। গত বছর যেখানে ৭৬টি জল নিকাশির পাম্প বসানো হয়েছিল, এ বার সেখানে ১৪৬টি পাম্প তৈরি রাখা হয়েছে। যাতে প্রতি বারের মতো ভারী বৃষ্টিতে চিনার পার্ক এবং সংলগ্ন এলাকায় জল জমা ঠেকানো যায়। সেই সঙ্গে পুর এলাকার নিকাশি নালাগুলিরও যথাসম্ভব সংস্কার করা হয়েছে। অনেক জায়গায় নিকাশি নালার উপরে গজিয়ে ওঠা দোকান ভেঙে দিয়েছে পুরসভা। এলাকায় জল জমা ঠেকাতে বিবি-১ খালের কাছে একটি লকগেট তৈরির পরিকল্পনাও করেছে সেচ দফতর। বাগজোলা খালও সংস্কার করা হয়েছে বলে দাবি সেচ দফতরের।

পুরসভা সূত্রের খবর, কৈখালির কাছে হজ হাউসের সামনে থেকে প্রস্তাবিত ওই নিকাশি নালা কেষ্টপুর পর্যন্ত যাবে। তার পরে সেটি মিশবে আপার বাগজোলা খালে। তাতে বর্তমানে যত জল বিবি-১ খাল দিয়ে আসছে, তার একটি বড় অংশ সহজে অন্য রাস্তা দিয়ে বয়ে যাওয়ার জায়গা তৈরি হবে।

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, X (Twitter), Facebook, Youtube, Threads এবং Instagram পেজ)
সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের মাধ্যমগুলি:
Advertisement

Share this article

CLOSE