Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

২২ অক্টোবর ২০২১ ই-পেপার

স্কুলের মাঠে বোমা ফেটে জখম দুই ছাত্র

নিজস্ব সংবাদদাতা
২১ জুন ২০১৫ ০০:৫২
স্কুলের এই মাঠেই ফাটে বোমা। — নিজস্ব চিত্র।

স্কুলের এই মাঠেই ফাটে বোমা। — নিজস্ব চিত্র।

স্কুলের পাঁচিল ঘেরা খেলার মাঠে পড়ে ছিল একটি বোমা। সেটাকেই বল ভেবে তা নিয়ে খেলতে গিয়েছিলেন দুই পড়ুয়া। কিন্তু হঠাৎই বোমাটি ফেটে যাওয়ায় গুরুতর আহত হন জনি হালদার ও আর্নল্ড গডউইন নামে ওই দু’জন।

শনিবার সকালে, দক্ষিণ দমদমের মাঠকল এলাকার সূর্য সেন পল্লির কাছে অ্যাসেম্বলি অব গড চার্চ স্কুলের মাঠে ঘটনাটি ঘটে। আহত দু’জনকেই আর জি কর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

স্কুলের পাঁচিল ঘেরা মাঠে কী ভাবে বোমা এল, তা নিয়ে আতঙ্কিত এলাকার বাসিন্দারা। স্থানীয় বাসিন্দা সমরেন্দ্র দত্ত বলেন, ‘‘একটা শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের মাঠে কী করে বোমা এল, তা ভাল করে তদন্ত করে দেখা উচিত। স্কুল চালু থাকলে তো আরও ভয়ঙ্কর ঘটনা ঘটতে পারত। তা হলে পড়ুয়াদের নিরাপত্তা কোথায়?’’ স্কুল কর্তৃপক্ষের তরফে অবশ্য এ দিন কেউ কোনও কথা বলেননি। তবে ঘটনার পরে গির্জার নিরাপত্তার দাবি তুলে থানায় গিয়ে অভিযোগ দায়ের করেন ফাদার।

Advertisement

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, জনি ও আর্নল্ড দু’জনেই স্থানীয় বাসিন্দা। জনি বঙ্গবাসী কলেজের প্রথম বর্ষের ছাত্র এবং আর্নল্ড স্থানীয় একটি স্কুলের একাদশ শ্রেণির পড়ুয়া। পুলিশ জানিয়েছে, শনিবার ওই স্কুলের মাঠে একটি ক্রিকেট প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হয়েছিল। কিন্তু শুক্রবার রাতের বৃষ্টিতে তা পণ্ড হয়ে যাওয়ায় এ দিন ক্রিকেটের বদলে ফুটবল টুর্নামেন্টের আয়োজন করা হয়। শনিবার বলে স্কুলও ছুটি ছিল। ফলে মাঠে স্কুলের কোনও প্রতিনিধিও উপস্থিত ছিলেন না। স্থানীয় কয়েক জন যুবক সকাল থেকে মাঠে খেলার প্রস্তুতিতে ব্যস্ত ছিলেন। সেখানেই ছিলেন জনি ও আর্নল্ড। মাঠের এক পাশে একটি প্লাস্টিকে মোড়া ক্রিকেট বলের মতো জিনিস দেখতে পেয়ে লোফালুফি খেলতে যান তাঁরা। আচমকা সেটি সিমেন্টের চাতালে পড়ে সশব্দে ফেটে যায়। রক্তাক্ত অবস্থায় দু’জনকেই আর জি কর হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়।

প্রাথমিক তদন্তের পরে পুলিশের অবশ্য দাবি, মাঠটি পাঁচিল দিয়ে ঘেরা হলেও এক দিকের অংশে পাঁচিলের উচ্চতা কম। তাই সেটি ডিঙিয়ে মাঠের ভিতরে ঢোকা সম্ভব। তার উপরে ওই এলাকা সন্ধ্যার পরে নির্জন হয়ে যায়। তদন্তকারীদের ধারণা, এই সুযোগ নিয়েই এলাকার দুষ্কৃতীরা সম্ভবত পাঁচিল ডিঙিয়ে মাঠে ঢুকে বোমা বানাচ্ছিল। কোনও ভাবে একটি বোমা ভুল ফেলে চলে যায়। সেটিকেই বল ভেবে খেলতে যাওয়ায় দুর্ঘটনাটি ঘটে।

এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে এলাকার রাজনীতির ময়দানও উত্তপ্ত হয়ে ওঠে। যে জায়গায় ঘটনাটি ঘটেছে, সেটি দক্ষিণ দমদম পুরসভার ১ নম্বর ওয়ার্ড। ওই ওয়ার্ডটি সিপিএমের দখলে। ঘটনার পরে স্থানীয় তৃণমূল সমর্থকেরা ওয়ার্ডের সিপিএম কাউন্সিলর মঞ্জু দাসকে ঘিরে বিক্ষোভ দেখান। তৃণমূলের অভিযোগ, সিপিএমের মদতপুষ্ট দুষ্কৃতীরা এই কাজ করেছে। সিপিএমের পাল্টা অভিযোগ, তৃণমূল এলাকায় দুষ্কৃতীরাজ কায়েম করেছে। নিত্য দিন নানা অপরাধমূলক ঘটনা ঘটলেও পুলিশ সম্পূর্ণ নিষ্ক্রিয়।

আরও পড়ুন

Advertisement