Advertisement
০৯ ডিসেম্বর ২০২২
Water Project

বিধাননগরে জল প্রকল্প পুজোর আগেই

পুরসভা সূত্রের খবর, জনস্বাস্থ্য ও কারিগরি দফতরের উদ্যোগে তৈরি পরিস্রুত পানীয় জল প্রকল্পটির জন্য টাকা বরাদ্দ করেছিল কেএমডিএ।

প্রতীকী ছবি।

প্রতীকী ছবি।

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা শেষ আপডেট: ৩১ অগস্ট ২০২০ ০৫:৩৮
Share: Save:

দুর্গাপুজোর আগেই সল্টলেক এবং রাজারহাট-গোপালপুর এলাকার কয়েকটি ওয়ার্ডে পরিস্রুত পানীয় জল সরবরাহ করার চেষ্টা করা হচ্ছে পুরসভার তরফে। এর ফলে অদূর ভবিষ্যতে ভূগর্ভ থেকে জল তোলা বন্ধ হবে বলে পুর কর্তৃপক্ষের আশা।

Advertisement

পুরসভা সূত্রের খবর, জনস্বাস্থ্য ও কারিগরি দফতরের উদ্যোগে তৈরি পরিস্রুত পানীয় জল প্রকল্পটির জন্য টাকা বরাদ্দ করেছিল কেএমডিএ। সেই জল প্রকল্প থেকে সল্টলেকে এবং রাজারহাট-গোপালপুরের ২২ থেকে ২৬ নম্বর ওয়ার্ডে জল সরবরাহ করা হবে। কাজ এখন শেষ পর্যায়ে। সূত্রের খবর, সেপ্টেম্বর মাসেই জল সরবরাহ শুরু করার চেষ্টা চলছে।

পর্যায়ক্রমে রাজারহাটের বাকি ওয়ার্ডগুলিতেও জল সরবরাহ শুরু হবে বলে সূত্রের খবর। সেই কাজ জোরকদমে চলছে বলে জানিয়েছে পুরসভা। বিধাননগরের মেয়র কৃষ্ণা চক্রবর্তী জানান, এর ফলে বিধাননগর ও রাজারহাটের কিছু এলাকায় দৈনিক জলের চাহিদা মিটবে।

পুরকর্তাদের কথায়, এই প্রকল্প থেকে গোটা বিধাননগর পুর এলাকায় জল সরবরাহ হলে ভূগর্ভস্থ জল তোলা পুরোপুরি বন্ধ করা যাবে। জল সরবরাহ দফতর সূত্রের খবর, বিধাননগরে কয়েক লক্ষ মানুষের বসবাস। এই প্রকল্পের মাধ্যমে সকলের দৈনিক জলের চাহিদা পূরণ হবে। গরমে জলের চাহিদা বাড়লে কিছু ক্ষেত্রে সল্টলেকের সংযোজিত এলাকার পাশাপাশি কেষ্টপুর, জ্যাংড়া, বাগুইআটি, হাতিয়াড়া, প্রমোদনগরেও জলসঙ্কট দেখা দেয়। টালা-পলতার জল এবং ভূগর্ভস্থ জলের মাধ্যমে চাহিদা মেটানোর চেষ্টা করা হয়। নতুন প্রকল্প চালু হয়ে গেলে গরমেও সমস্যা হবে না বলে আশা পুরসভার।

Advertisement
(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.