×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

২০ এপ্রিল ২০২১ ই-পেপার

‘ক্রিমিনাল’ বলায় শোভনের বিরুদ্ধে মামলার পথে কুণাল, আক্রমণ ফেসবুকেও

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা ১৫ জানুয়ারি ২০২১ ১৫:৪৮
গ্রাফিক- শৌভিক দেবনাথ।

গ্রাফিক- শৌভিক দেবনাথ।

কলকাতার প্রাক্তন মেয়র তথা প্রাক্তন মন্ত্রী শোভন চট্টোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে মানহানীর মামলা করতে চলেছেন তৃণমূল মুখপাত্র কুণাল ঘোষ। বৃহস্পতিবারই বিজেপির সাংবাদিক বৈঠক থেকে কুণালকে ‘পকেটমার’-এর সঙ্গে তুলনা করেন শোভন। শুধু তাই নয়, সারদাকর্তা সুদীপ্ত সেনের থেকে মোটা অঙ্কের ‘বেতন পাওয়া’ কুণাল ‘দালাল’-এর কাজ করতেন বলেও আক্রমণ করেন তিনি। এর আগে কুণালকে ‘নটোরিয়াস ক্রিমিনাল’ বলেও অভিযোগ করেছিলেন শোভন। এই সব মন্তব্যের জন্যই তিনি আইনি পদক্ষেপ করতে চান জানিয়ে কুণাল বলেন, ‘‘দু’এক দিনের মধ্যেই আমার আইনজীবী ওঁকে নোটিস পাঠাবেন।’’ কুণালের এই বক্তব্যের পরিপ্রেক্ষিতে শোভনের পক্ষ থেকে এখনও পর্যন্ত কোনও প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি। চেষ্টা করা হলেও ফোনে যোগাযোগ করা যায়নি। টেক্স্ট মেসেজেরও জবাব আসেনি।

লড়াইটা শুরু হয়েছিল গত সোমবার। সে দিন বিজেপি-র মঞ্চ থেকে কুণাল প্রসঙ্গ টেনে শোভন বলেন, ‘‘ওঁর (মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়) পায়ের তলা থেকে মাটি সরে গিয়েছে বলেই এ সব বলছেন। রাজীব কুমারকে বাঁচাতে ধর্নায় বসেছিলেন তিনি। আবার সেই রাজীব কুমারের বিরুদ্ধে শিলংয়ে গিয়ে সাক্ষী দিয়ে আসা কুণাল ঘোষকে দলের মুখপাত্র নিয়োগ করেছেন।’’ এর পরে আক্রমণ করেন কুণালও। শোভন সম্পর্কে তিনি সংবাদমাধ্যমে বলেন, ‘‘উনি তো বৈশাখীর গ্ল্যাক্সো বেবি। ওঁর কথার আর কী জবাব দেব?’’

বৃহস্পতিবার শোভনের আক্রমণ ছিল আরও কড়া ভাষায়। চিটফান্ড কেলেঙ্কারিতে যুক্ত থাকার অভিযোগে ইতিমধ্যেই শোভনকে গ্রেফতারের দাবি তুলেছেন কুণাল। সেই প্রসঙ্গে বৃহস্পতিবার শোভন বলেন, ‘‘মোটা অঙ্কের বেতন নিয়ে বিভিন্ন চিটফান্ড সংস্থার হয়ে কুণালের কী ভূমিকা ছিল তা সবাই জানে।’’ সেই সঙ্গে তিনি বলেন, ‘‘পকেটমার ধরা পরে গেলে অন্য ব্যক্তির দিকে আঙুল তুলে পকেটমার, ‘পকেটমার’ বলে চেঁচায়।’’ কুণাল সাংবাদিক হিসেবে যে অঙ্কের বেতন পেতেন তার জন্য যোগ্যতা ছিল ‘দালালি’ করার বলেও আক্রমণ করেন শোভন।

Advertisement

আরও পড়ুন: ‘জয় শ্রীরাম’ নিয়ে বিতর্ক, টুইট-যুদ্ধে অবিরত যুযুধান সায়নী-তথাগত

তৃণমূল বনাম বিজেপি লড়াইটা যে ক্রমে কুণাল বনাম শোভন হয়ে উঠেছে, তা শুক্রবার সকালে ফেসবুকের একটি পোস্টেও স্পষ্ট হয়েছে। কুণাল দীর্ঘ ওই পোস্টে দলত্যাগীদের নিয়ে নানা কথার শেষে শোভনকে আক্রমণ করেছেন। লিখেছেন, ‘‘যার যার আমার বিরুদ্ধে ব্যক্তিগত আক্রমণের শখ আছে, বাড়িতে বসে না করে (গ্ল্যাক্সো বেবি তো আবার আঁচল ধরে ছাড়া কথা কয় না), আসুন, প্রকাশ্য মুখোমুখি মঞ্চে। বলুন আমি কত খারাপ। আমিও দেখাব আপনারা কত বড় মুখোশধারী।’’ এখনও পর্যন্ত কুণালের এই মন্তব্যেরও কোনও জবাব পাওয়া যায়নি শোভনের পক্ষ থেকে।

Advertisement