Follow us on

Download the latest Anandabazar app

© 2021 ABP Pvt. Ltd.

Advertisement

০৪ জুলাই ২০২২ ই-পেপার

URL Copied
Something isn't right! Please refresh.

কপ্টারেই রাজ্য ঘুরবেন বিবেক

রাজ্য নিযুক্ত বিশেষ পুলিশ পর্যবেক্ষক বিবেক দুবের জন্য হেলিকপ্টারের ব্যবস্থা করেছে রাজ্য সরকারই। জাতীয় নির্বাচন কমিশনের আর্জিতেই এই পদক্ষেপ ব

সামসুদ্দিন বিশ্বাস ও জগন্নাথ চট্টোপাধ্যায়
বহরমপুর ও কলকাতা ০৯ এপ্রিল ২০১৯ ০৩:৫৪
Save
Something isn't right! Please refresh.
—ফাইল চিত্র।

—ফাইল চিত্র।

Popup Close

জেলাশাসক ও এসপি-সহ জেলার একাধিক পুলিশ আধিকারিক শাসক দল, তৃণমূলের হয়ে কাজ করছেন। তাঁদের বদলি করা না হলে অবাধ ও শান্তিপূর্ণ নির্বাচন হবে না। সম্প্রতি কয়েক দফায় নির্বাচন কমিশনে এমনই অভিযোগ করেছিলেন কংগ্রেসের অধীর চৌধুরী। সোমবার তাঁর সুরেই রাজ্যের বিশেষ পুলিশ-পর্যবেক্ষক বিবেক দুবের কাছে অভিযোগ করল কংগ্রেসের প্রতিনিধি দল। এ দিন বিকেলে বিবেক হেলিকপ্টারে বহরমপুরে আসেন।

রাজ্য নিযুক্ত বিশেষ পুলিশ পর্যবেক্ষক বিবেক দুবের জন্য হেলিকপ্টারের ব্যবস্থা করেছে রাজ্য সরকারই। জাতীয় নির্বাচন কমিশনের আর্জিতেই এই পদক্ষেপ বলে প্রশাসনিক সূত্রের খবর। সূত্রের দাবি, নির্বাচন কমিশন সংশ্লিষ্ট বিষয়ে অনুরোধ করেছিল রাজ্য স্বরাষ্ট্র দফতরকে। তার পরেই বিবেক কুমারের জন্য হেলিকপ্টার ভাড়ার ব্যবস্থা করে দফতর। কপ্টারের জন্য যাবতীয় খরচ মেটাবে রাজ্য সরকারই।

প্রশাসনের এক শীর্ষ কর্তার কথায়, ‘‘গোটা ভোটপর্বের জন্যই এই ব্যবস্থা করা হয়েছে।’’ প্রসঙ্গত, অতীতে ভোটে মাওবাদী সমস্যার কারণে জঙ্গলমহলের জন্য হেলিকপ্টারের ব্যবস্থা করেছিল রাজ্য। কিন্তু পর্যবেক্ষকের জন্য এমন ব্যবস্থা অতীতে কখনও করা হয়েছে কি না, তা মনে করতে পারছেন না প্রবীণ আধিকারিকদের অনেকেই। তবে আধিকারিকদের কেউ কেউ এ-ও জানাচ্ছেন, বিশেষ পুলিশ পর্যবেক্ষক হিসেবে যে হেতু বিবেক দুবেকে ভোটপর্বে গোটা রাজ্য ঘুরে বেড়াতে হবে, সময়ের সঙ্গে পাল্লা দিতে হলে পরিবহণের এই মাধ্যম ছাড়া চলত না।

Advertisement

বহরমপুর সার্কিট হাউসে বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের প্রতিনিধিদের সঙ্গে আলাদা ভাবে বৈঠক করেন বিবেক। তৃণমূল বাদে সব দলই তাঁর কাছে প্রত্যেকটি বুথে বাহিনীর দাবি জানিয়েছে। এ দিন রাজনৈতিক দলের প্রতিনিধিদের সাথে বৈঠকের সময় বিবেকের সঙ্গে উপস্থিত ছিলেন ডিএম পি উলাগানাথন ও এসপি মুকেশ কুমার। তবে কংগ্রেসের আপত্তিতে তাঁদের সঙ্গে একা বৈঠক করেন বিবেক। রাতে তিনি জেলাশাসক, পুলিশ সুপারের সঙ্গে বৈঠক করেছেন। আজ, মঙ্গলবার মুর্শিদাবাদের তিনটি লোকসভা কেন্দ্রের পর্যবেক্ষেকদের সঙ্গে তাঁর বৈঠক করার কথা।

বৈঠকের জন্য মুর্শিদাবাদকেই বাছলেন কেন? বিবেক বলেন, ‘‘শুধু মুর্শিদাবাদ নয়, কোচবিহার-সহ রাজ্যের বিভিন্ন জেলায় যাচ্ছি। তা ছাড়া মুর্শিদাবাদ গুরুত্বপূর্ণ জেলা। অবাধ ও শান্তিপূর্ণ ভোট চায় কমিশন। সেই কারণে বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের কাছে পরামর্শ নিতে তাদের সঙ্গে বৈঠক করেছি। তাঁরা পরামর্শও দিয়েছেন।’’ মুর্শিদাবাদের জেলাশাসক ও পুলিশ সুপার-সহ অন্য পুলিশ আধিকারিকদের বদলির ব্যাপারে জানতে চাইলে বিবেকের উত্তর, ‘‘বিষয়টি ওদেরই জিজ্ঞেস করুন।’’

দিল্লি দখলের লড়াই, লোকসভা নির্বাচন ২০১৯

(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)


Something isn't right! Please refresh.

Advertisement