×

আনন্দবাজার পত্রিকা

Advertisement

১০ মে ২০২১ ই-পেপার

তেল-সহ ৫ প্রকল্পে ‘উন্নয়নে পঞ্চপ্রদীপ’ জ্বালাতে চান মমতা

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা ০৬ জানুয়ারি ২০২১ ০৪:৫০
মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ছবি পিটিআই।

মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ছবি পিটিআই।

উত্তর ২৪ পরগনার অশোকনগর ও ব্যারাকপুরে তেল প্রকল্পের পাশাপাশি আরও চারটি প্রকল্পকে ঘিরে প্রচুর কাজের সুযোগ-সহ ব্যাপক উন্নয়নের আশা দেখছেন দেখাচ্ছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ‘‘তেল প্রকল্প, চর্মশিল্প, সিলিকন ভ্যালি, গভীর সমুদ্রবন্দর, ডেউচা পাঁচামি— পঞ্চপ্রদীপের মতো পঞ্চ উন্নয়নের দীপ জ্বলবে বাংলাকে ঘিরে,’’ মঙ্গলবার বলেন মুখ্যমন্ত্রী।

উত্তর ২৪ পরগনার অশোকনগর ও ব্যারাকপুরে তেল প্রকল্পের জন্য ওএনজিসি-কে বিনামূল্যে জমি দেওয়ার কথা সোমবারেই ঘোষণা করেছিলেন মমতা। এ দিন মন্ত্রিসভার বৈঠকের পরে মুখ্যমন্ত্রী জানান, এক টাকার বিনিময়ে জমি দেবে সরকার। এবং সেই এক টাকা দেবেন তিনি নিজে। ‘‘বিশ্ব গ্যাস মানচিত্রে পশ্চিমবঙ্গের স্থান পাওয়া খুব জরুরি। ন্যূনতম এক টাকা ছাড়া যে-হেতু সরকার জমি দিতে পারে না, তাই ওই একটা টাকা আমি নিজেই দেব। এটা আমার একটা অবদান। প্রকল্পটি খুব ভাল। দ্রুত এটি রূপায়িত হওয়া প্রয়োজন। তার জন্য রাজ্য সব ধরনের সহযোগিতা করবে,’’ বলেন মুখ্যমন্ত্রী।

তেল উত্তোলন প্রকল্পের জন্য এই পর্বে ১৩.৪৯ একর জমি দেবে রাজ্য সরকার। মুখ্যমন্ত্রী জানান, জমি বাবদ সেলামি হিসেবে রাজ্যকে ছয়-সাড়ে ছয় কোটি টাকা দিতে চেয়েছিল ওএনজিসি। তা ছাড়াও প্রতি বছর আরও ৬০ লক্ষ রাজ্যকে দিতে হত। কিন্তু বাংলায় যে-হেতু এত বড় শিল্প হতে চলেছে এবং তাকে ঘিরে বিপুল আর্থিক অগ্রগতির সম্ভাবনা রয়েছে, তাই প্রকল্প রূপায়ণে সর্বতোভাবে সহযোগিতা করতে প্রস্তুত রাজ্য। মমতার কথায়, ‘‘বাংলায় এই তেলের ভান্ডার আবিষ্কারের ফলে রাজ্য আর্থিক ভাবে খুব গুরুত্বপূর্ণ জায়গায় যাচ্ছে। মূল শিল্পের পাশাপাশি নানা ধরনের অনুসারী শিল্প স্থাপনের সুযোগও থাকবে। ফলে কর্মসংস্থান-সহ অর্থনৈতিক কর্মকাণ্ড বাড়বে রাজ্যে। তাই মন্ত্রিসভা সিদ্ধান্ত নিয়েছে, জমিটা এক টাকায় দেওয়া হবে।’’

Advertisement

তেল প্রকল্প ছাড়াও মমতা এ দিন জানান, বানতলা চর্মনগরীতে নতুন ২৮টি ইউনিটকে ছাড়পত্র দিয়েছে সরকার। রাজ্যের পাঁচ প্রকল্পে তাই বিপুল কর্মসংস্থানের আশা করা হচ্ছে।

Advertisement