Advertisement
০৫ ডিসেম্বর ২০২২
Mamata Banerjee

Mamata Banerjee: প্রবীণ-নবীন জুটিতে এগোনোর বার্তা মমতার, আলোচনা হয়েছে অভিষেকের সঙ্গেও

নতুন প্রজন্মকে জায়গা দিতে গিয়ে পুরনোরা বাদ চলে যাচ্ছেন, সাম্প্রতিক কিছু বিষয়কে কেন্দ্র করে তৃণমূলের অন্দরে এই ভাবনা জায়গা পেয়েছে।

তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ফাইল চিত্র।

নিজস্ব সংবাদদাতা
কলকাতা শেষ আপডেট: ৩১ জানুয়ারি ২০২২ ০৫:৪৬
Share: Save:

দলের রাশ নিজের হাতে রাখার কথা আগেই জানিয়ে দিয়েছেন তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এ বার প্রবীণ-নবীনে সমন্বয়ের মাধ্যমে এগোনোর বার্তা দিলেন তিনি। আসন্ন পুরসভা ভোটে প্রার্থী তালিকায় দলের পুরনোদের পাশাপাশি ‘নতুনদের’ জন্যেও সংস্থান রাখতে চাইছেন তিনি। সূত্রের খবর, কম-বেশি ১০ শতাংশ আসনে নতুন প্রতিনিধিদের মনোনয়ন দেওয়ার বিষয়টি খতিয়ে দেখতে সর্বোচ্চ নেত্রীর নির্দেশ পেয়েছেন এই কাজের দায়িত্বে থাকা দলের দুই নেতা, রাজ্য সভাপতি সুব্রত বক্সী এবং মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায়।

Advertisement

নতুন প্রজন্মকে জায়গা দিতে গিয়ে পুরনোরা বাদ চলে যাচ্ছেন, সাম্প্রতিক কিছু বিষয়কে কেন্দ্র করে তৃণমূলের অন্দরে এই ভাবনা জায়গা পেয়েছে। তা কাটাতে পুরনোদের সসম্মানে রেখেই দলকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার পথ বাতলে দিয়েছিলেন তৃণমূল নেত্রী স্বয়ং। সেই মতো আসন্ন পুরভোটে রাজ্যের ১০৬টি পুরসভায় দলীয় প্রার্থী বাছাইয়ের কাজ শুরু করে দিয়েছিলেন দুই নেতা বক্সী এবং পার্থ। কথা ছিল, তাঁরাই প্রাথমিক ভাবে প্রার্থী তালিকা তৈরি করে মমতার কাছে জমা দেবেন। পরে প্রয়োজন মতো আরও এক বার ঝেড়েবেছে তা চূড়ান্ত করে দেবেন মমতা স্বয়ং। তবে শনিবার দলনেত্রীর সর্বশেষ বার্তা পাওয়ার পরে প্রার্থী করার ক্ষেত্রে প্রবীণ-নবীনে কিছুটা ভারসাম্য রাখতে গোটা বিষয়টি নিয়ে নতুন করে আলোচনা শুরু হয়েছে।

দলের নেতৃত্ব এবং জনপ্রতিনিধিত্বের মধ্যে নতুন প্রজন্মকে জায়গা দিতে নির্দিষ্ট পরামর্শ রয়েছে ভোটকুশলী প্রশান্ত কিশোরের সংস্থা আইপ্যাকের। কলকাতা পুরনির্বাচনের প্রার্থী বাছাই প্রক্রিয়ায়ও নির্দিষ্ট প্রস্তাব দিয়েছিল তারা। তবে সে ক্ষেত্রে পুরনো প্রার্থীদের উপরে ভরসা রেখে প্রশান্তের দেওয়া পরিবর্তনের প্রস্তাবের অনেকটাই গ্রহণ করেনি তৃণমূল। বরং দলের পুরনো নেতাদের মতেই সিলমোহর দিয়েছিলেন তৃণমূল নেত্রী। রাজ্যের বাকি পুরসভা নিয়ে সেই পরিকল্পনা থাকলেও নানা স্তরের আলোচনার পরে প্রবীণ-নবীনের মধ্যে ভারসাম্য রাখার কথা বিবেচনা করছে তৃণমূল। দলের মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায় বলেন, ‘‘প্রার্থী বাছাই বা এই রকম গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ে সব সময়েই শেষ কথা বলেন মমতা। তার আগে বিভিন্ন ভাবে দলের কাছে সম্ভাব্য তালিকা থেকে প্রাথমিক সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। সে ক্ষেত্রে আইপ্যাকের কোনও তালিকা থাকলে তা-ও দেখতে হবে।’’ দু’এক দিনের মধ্যে তালিকা নিয়ে দলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় ও আইপ্যাক প্রতিনিধিদের সঙ্গে কথা হতে পারে বক্সী ও পার্থর।

বিষয়টি নিয়ে দলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেকের দীর্ঘ আলোচনা হয়েছে মমতার সঙ্গে। তার পরেই পুরভোটের প্রায় তিন হাজার প্রার্থীর নাম বাছাইয়ে এই সমন্বয়ের উপরে জোর দিয়েছেন তৃণমূলনেত্রী।

Advertisement
(সবচেয়ে আগে সব খবর, ঠিক খবর, প্রতি মুহূর্তে। ফলো করুন আমাদের Google News, Twitter এবং Instagram পেজ)
Follow us on: Save:
Advertisement
Advertisement

Share this article

CLOSE
Popup Close
Something isn't right! Please refresh.